ঢাকা ০২:৪২ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০২৪, ৩ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম :
Logo সিলেট-সুনামগঞ্জ মহাসড়কে আন্দোলনকারীরা পুলিশের উপর হামলা চালালে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে Logo জবিতে আজীবন ছাত্ররাজনীতি নিষিদ্ধ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ Logo শাবিতে হল প্রশাসনকে ভয়-ভীতি দেখিয়ে নোটিসে জোর পূর্বক সাইন আদায় Logo এবার সামনে আসছে ছাত্রলীগ কর্তৃক আন্দোলনকারীদের মারধরের আরো ঘটনা Logo আবাসিক হল ছাড়ছে শাবি শিক্ষার্থীরা Logo নিরাপত্তার স্বার্থে শাবি শিক্ষার্থীদের আইডিকার্ড সাথে রাখার আহবান বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের Logo জনস্বাস্থ্যের প্রধান সাধুর যত অসাধু কর্ম: দুর্নীতি ও অর্থ পাচারের অভিযোগ! Logo বিআইডব্লিউটিএ বন্দর শাখা যুগ্ম পরিচালক আলমগীরের দুর্নীতি ও ঘুষ বাণিজ্য  Logo রাজশাহীতে এটিএন বাংলার সাংবাদিক সুজাউদ্দিন ছোটনকে হয়রানিমূলক মামলায় বএিমইউজরে নিন্দা ও প্রতিবাদ Logo শিক্ষার্থীদের তথ্য প্রযুক্তিতে দক্ষ হয়ে স্মার্ট বাংলাদেশ গড়ায় অবদান রাখতে হবেঃ ড. তৌফিক রহমান চৌধুরী




করোনার ভয়ে ফিরিয়ে দিল হাসপাতাল, কিডনি রোগীর মৃত্যু”

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৪:৫৩:০৮ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৭ এপ্রিল ২০২০ ৬২ বার পড়া হয়েছে

নিজস্ব প্রতিনিধি;  করোনা সন্দেহে ডায়ালাইসিসে রাজি না হওয়ায় যশোর জেনারেল হাসপাতালের কোয়ারেন্টাইনে থাকা ভারত ফেরত এক কিডনি রোগীর মৃত্যু হয়েছে।

বৃহস্পতিবার ভোরে যশোর জেনারেল হাসপাতালের ডা.ওবায়দুল কাদির উজ্জ্বল তাকে মৃত ঘোষণা করেন। ওই রোগীর নাম আলমগীর কবীর (৪৫)। তিনি যশোরের চৌগাছা উপজেলার বাসিন্দা।

হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, গত ১০ এপ্রিল আলমগীর কবীর ভারত থেকে কিডনির চিকিৎসা নিয়ে দেশে ফেরেন। ওইদিনই তাকে যশোর জেনারেল হাসপাতালের কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়। ভর্তির পর পরই ওই রোগীর কিডনি ডায়ালাইসিসের প্রয়োজন হয়। যশোর জেনারেল হাসপাতালে ডায়ালাইসিসের কোনও ব্যবস্থা না থাকায় স্থানীয় বেসরকারি হাসপাতালের সঙ্গে ডাক্তাররা যোগাযোগ করেন।

কিন্তু রোগীর করোনা পরীক্ষার ফলাফল ছাড়া যশোরের কোনও বেসরকারি হাসপাতাল তার ডায়ালাইসিসে করাতে রাজি হয়নি। এরপর ওই রোগীর নমুনা পাঠানো হয় খুলনাতে পরীক্ষার জন্য। ১৫ এপ্রিল রাতে খুলনা থেকে ওই রোগীর করোনা পরীক্ষার রেজাল্ট আসে- নেগেটিভ। ফলাফল নিয়ে ডাক্তাররা বেসরকারি হাসপাতাল ইবনে সিনা কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথা বলেন। তারা আজ (বৃহস্পতিবার) সকালে তার ডায়ালাইসিস করাতে রাজি হয়। কিন্তু ততক্ষণে ওই রোগী মারা যান।

এ বিষয়ে যশোর জেনারেল হাসপাতালের আরএমও ডা. আরিফ আহমেদ জানান, গত ১০ এপ্রিল চৌগাছা উপজেলার এক বাসিন্দা ভারত থেকে কিডনি রোগের চিকিৎসা নিয়ে দেশে ফেরেন। তার শরীরে করোনা ভাইরাসের উপসর্গ না থাকলেও সরকারি নির্দেশনার কারণে তাকে হাসপাতালের প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়। ওই রোগীর ডায়ালাইসিসে প্রয়োজন ছিল। কিন্তু করোনার ভয়ে যশোরের কোনও বেসরকারি হাসপাতাল তার ডায়ালাইসিসে রাজি হয়নি।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :




করোনার ভয়ে ফিরিয়ে দিল হাসপাতাল, কিডনি রোগীর মৃত্যু”

আপডেট সময় : ০৪:৫৩:০৮ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৭ এপ্রিল ২০২০

নিজস্ব প্রতিনিধি;  করোনা সন্দেহে ডায়ালাইসিসে রাজি না হওয়ায় যশোর জেনারেল হাসপাতালের কোয়ারেন্টাইনে থাকা ভারত ফেরত এক কিডনি রোগীর মৃত্যু হয়েছে।

বৃহস্পতিবার ভোরে যশোর জেনারেল হাসপাতালের ডা.ওবায়দুল কাদির উজ্জ্বল তাকে মৃত ঘোষণা করেন। ওই রোগীর নাম আলমগীর কবীর (৪৫)। তিনি যশোরের চৌগাছা উপজেলার বাসিন্দা।

হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, গত ১০ এপ্রিল আলমগীর কবীর ভারত থেকে কিডনির চিকিৎসা নিয়ে দেশে ফেরেন। ওইদিনই তাকে যশোর জেনারেল হাসপাতালের কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়। ভর্তির পর পরই ওই রোগীর কিডনি ডায়ালাইসিসের প্রয়োজন হয়। যশোর জেনারেল হাসপাতালে ডায়ালাইসিসের কোনও ব্যবস্থা না থাকায় স্থানীয় বেসরকারি হাসপাতালের সঙ্গে ডাক্তাররা যোগাযোগ করেন।

কিন্তু রোগীর করোনা পরীক্ষার ফলাফল ছাড়া যশোরের কোনও বেসরকারি হাসপাতাল তার ডায়ালাইসিসে করাতে রাজি হয়নি। এরপর ওই রোগীর নমুনা পাঠানো হয় খুলনাতে পরীক্ষার জন্য। ১৫ এপ্রিল রাতে খুলনা থেকে ওই রোগীর করোনা পরীক্ষার রেজাল্ট আসে- নেগেটিভ। ফলাফল নিয়ে ডাক্তাররা বেসরকারি হাসপাতাল ইবনে সিনা কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথা বলেন। তারা আজ (বৃহস্পতিবার) সকালে তার ডায়ালাইসিস করাতে রাজি হয়। কিন্তু ততক্ষণে ওই রোগী মারা যান।

এ বিষয়ে যশোর জেনারেল হাসপাতালের আরএমও ডা. আরিফ আহমেদ জানান, গত ১০ এপ্রিল চৌগাছা উপজেলার এক বাসিন্দা ভারত থেকে কিডনি রোগের চিকিৎসা নিয়ে দেশে ফেরেন। তার শরীরে করোনা ভাইরাসের উপসর্গ না থাকলেও সরকারি নির্দেশনার কারণে তাকে হাসপাতালের প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়। ওই রোগীর ডায়ালাইসিসে প্রয়োজন ছিল। কিন্তু করোনার ভয়ে যশোরের কোনও বেসরকারি হাসপাতাল তার ডায়ালাইসিসে রাজি হয়নি।