ঢাকা ০৪:৫৩ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২২, ১৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম :




মঠবাড়িয়া উপজেলা নির্বাচন স্থগিত, এসপি-ওসি প্রত্যাহার

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১১:৪৩:২৭ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৮ মার্চ ২০১৯ ১৯ বার পড়া হয়েছে

এসপি মোহাম্মাদ সালাম কবির। ছবি: সংগৃহীত

পিরোজপুর প্রতিনিধি; আগামী ৩১ মার্চের চতুর্থ ধাপে অনুষ্ঠেয় পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া উপজেলা পরিষদ নির্বাচন স্থগিত করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)।

নির্বাচনী সহিংসতার কারণে বৃহস্পতিবার ইসির যুগ্ম সচিব ফরহাদ আহম্মাদ খান এ নির্দেশ দেন।

অপরদিকে পুলিশ হেডকোয়ার্টার থেকে পাওয়া এক চিঠিতে মঠবাড়িয়া উপজেলায় চলমান কয়েকটি সহিংস ঘটনা, হত্যা ও হামলা-মামলার ঘটনায় পিরোজপুরের পুলিশ সুপার (এসপি) মোহাম্মাদ সালাম কবির ও মঠবাড়িয়া থানার ওসি শওকত আনোয়ারকে বৃহস্পতিবার প্রত্যাহার করা হয়েছে।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন পিরোজপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোল্লা আজাদ হোসেন।

উল্লেখ্য, রোববার মঠবাড়িয়া উপজেলা পরিষদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সহসভাপতি জনি তালুকদার প্রতিপক্ষের আঘাতে খুন হন।

এর আগেও কয়েক দফায় নৌকা ও বিদ্রোহী প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে এবং মামলা পাল্টা মামলা হওয়ার কারণে উত্তপ্ত হয়ে ওঠে ওই উপজেলার রাজনৈতিক পরিস্থিতি ও নির্বাচন।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :




মঠবাড়িয়া উপজেলা নির্বাচন স্থগিত, এসপি-ওসি প্রত্যাহার

আপডেট সময় : ১১:৪৩:২৭ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৮ মার্চ ২০১৯

এসপি মোহাম্মাদ সালাম কবির। ছবি: সংগৃহীত

পিরোজপুর প্রতিনিধি; আগামী ৩১ মার্চের চতুর্থ ধাপে অনুষ্ঠেয় পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া উপজেলা পরিষদ নির্বাচন স্থগিত করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)।

নির্বাচনী সহিংসতার কারণে বৃহস্পতিবার ইসির যুগ্ম সচিব ফরহাদ আহম্মাদ খান এ নির্দেশ দেন।

অপরদিকে পুলিশ হেডকোয়ার্টার থেকে পাওয়া এক চিঠিতে মঠবাড়িয়া উপজেলায় চলমান কয়েকটি সহিংস ঘটনা, হত্যা ও হামলা-মামলার ঘটনায় পিরোজপুরের পুলিশ সুপার (এসপি) মোহাম্মাদ সালাম কবির ও মঠবাড়িয়া থানার ওসি শওকত আনোয়ারকে বৃহস্পতিবার প্রত্যাহার করা হয়েছে।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন পিরোজপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোল্লা আজাদ হোসেন।

উল্লেখ্য, রোববার মঠবাড়িয়া উপজেলা পরিষদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সহসভাপতি জনি তালুকদার প্রতিপক্ষের আঘাতে খুন হন।

এর আগেও কয়েক দফায় নৌকা ও বিদ্রোহী প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে এবং মামলা পাল্টা মামলা হওয়ার কারণে উত্তপ্ত হয়ে ওঠে ওই উপজেলার রাজনৈতিক পরিস্থিতি ও নির্বাচন।