ঢাকা ০৯:২৯ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ৪ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম :
Logo মঙ্গল শোভাযাত্রা – তাসফিয়া ফারহানা ঐশী Logo সাস্টিয়ান ব্রাহ্মণবাড়িয়া এর ইফতার মাহফিল সম্পন্ন Logo কুবির চট্টগ্রাম স্টুডেন্টস ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশনের ইফতার ও পূর্নমিলনী Logo অধ্যাপক জহীর উদ্দিন আহমেদের মায়ের মৃত্যুতে শাবির মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও মুক্ত চিন্তা চর্চায় ঐক্যবদ্ধ শিক্ষকবৃন্দ পরিষদের শোক প্রকাশ Logo শাবির অধ্যাপক জহীর উদ্দিনের মায়ের মৃত্যুতে উপাচার্যের শোক প্রকাশ Logo বিশ কোটিতে গণপূর্তের প্রধান হওয়ার মিশনে ‘ছাত্রদল ক্যাডার প্রকৌশলী’! Logo দূর্নীতির রাক্ষস ফায়ার সার্ভিসের এডি আনোয়ার! Logo ঝড় ও শিলাবৃষ্টিতে ক্ষতি হওয়া শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয়ে অবকাঠামোর সংস্কার শুরু Logo বুয়েটে নিয়মতান্ত্রিক ছাত্র রাজনীতির দাবিতে শাবিপ্রবি ছাত্রলীগের মানববন্ধন Logo কুবি উপাচার্যের বক্তব্যের প্রমাণ দিতে শিক্ষক সমিতির সাত দিনের আল্টিমেটাম




নোয়াখালী বেগমগঞ্জে প্রবাসীর বাড়ীতে কিশোর গ্যাংয়ের হামলা, মারধর, লুটপাট!

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১০:৫৪:৪০ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২১ অগাস্ট ২০২১ ৯৮ বার পড়া হয়েছে

মোঃ ইমাম উদ্দিন সুমন, স্টাফ করেসপন্ডেন্টঃ

নোয়াখালী বেগমগঞ্জে এক প্রবাসীর বাড়ীতে মাছ ধরাকে কেন্দ্র করে সন্ত্রাসী হামলা, ভাংচুর ও লুটপাটের ঘটনা ঘটেছে হামলায় আহত হয়েছেন ২ নারী সহ ৬ জন। এ ঘটনায় প্রবাসীর স্ত্রী রুপা বেগম বাদী হয়ে বেগমগঞ্জ মডেল থানায় মামলা করেন। অভিযোগ জমা দেয়ার ১৮ দিনেও আটক হয়নি কেউ। আসামিরা গ্রেফতার না হওয়ায় নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছে ভুক্তভোগি পরিবার।

ঘটনাটি ঘটে ৩ আগস্ট মঙ্গলবার বিকেল সাড়ে ৫টায় বেগমগঞ্জ উপজেলা ৯নং মিরওয়ারিশপুর ইউনিয়ন ২নং ওয়ার্ডের মিরওয়ারিশ পুর গ্রামের রিয়াজ উদ্দিন নতুন মহাজন বাড়ীতে।

ভুক্তভোগি মির ওয়ারিশ পুর গ্রামের বদিউজ্জামানের পুত্র প্রবাসী জহির আলম বলেন, প্রতিবেশী শাহজাহান সাজু প্রকাশ শাহজান মাষ্টার দির্ঘদিন জোর পূর্বক তাদের জায়গাজমি দখল করার চেষ্টা করে যাচ্ছে ঘটনারদিন ৩ আগস্ট জহির আলম তার স্ত্রী তাবুনা তাবান্নুম রুপা(৩০) সহ পরিবারের সদস্য পুকুরের মাছ ধরেন। মাছ ধরা শেষ হলে পূর্বপরিকল্পিত ভাবে মির ওয়ারিশ পুর গ্রামের মৃত ছায়েদুল হকের পুত্র শাহ জাহান সাজু(৫৫), সাহাব উদ্দিন (৪৫), শাহ জাহান সাজুর পুত্র শাহাদাত হোসেন শাওন (২৮), টেন্ডল বাড়ির শাহ আলমের পুত্র জিদান(২৫), চৌধুরীর পুত্র আনাছ (২২), ছায়েদের পুত্র তানজির(২০) দিদার পিতা অজ্ঞাত সহ ২০/২৫ জনের একটি কিশোর গ্যাং তাদেরকে এলোপাতাড়ি পিটিয়ে জহিল আলমের মাথা ফাটিয়ে দেয় এবং তার স্ত্রী রুপাকে আহত করে ২ মন মাছ ছিনিয়ে নেয়। তাদের শৌর চিৎকার শুনে তাদেরকে উদ্ধার জহিরের ভাই খুরশিদ, নুরুজ্জামানের ছেলে আব্দুল মান্নান (৬৫), আব্দুল মান্নানের ছেলে মারুফ (১৮) এগিয়ে এলে তাদেরকে পিটিয়ে আহত করে। পরে হামলাকারিরা ঘরে দরজা ভেঙ্গে প্রবেশ ঘরে প্রবেশ করে ঘরের আলমিরা, শোকেস, সহ মূল্যবান জিনিসপত্র ভাংচুর করে নগদ অর্থ ও স্বর্ণাঅরংকার নিয়ে পালিয়ে যায়।
পরে স্থানীয়রা তাদের বেগমগঞ্জ হাসপাতালে ভর্তি করে। ঘটনার দিন ৩ তারিখ রুপা বেগম বাদী হয়ে থানায় লিখিত অভিযোগ করলেও মামলা নেয়নি বলে অভিযোগ করে ভুক্তভোগিরা পরে সংবাদটি গণমাধ্যমে এলে ১৮ আগস্ট বেগমগঞ্জ থানা মামলাটি এজাহার ভুক্ত করেন। মামলা নং ৬৪৯৮/১৮/০৮/২১।

ঘটনার বিষয়ে জানতে অভিযুক্ত শাহ জাহান সাজুকে ফোন করলে তার মেয়ে ফোনটি রিসিভ করে বলেন, আমার বাবা বাড়ীতে নেই তিনি ঢাকায় আছেন ঘটনার বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি ফোনের সংযোগ কেটে দেন পরে একাধিকবার ফোন করলেও তিনি ফোন রিসিভ করেননি।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :




নোয়াখালী বেগমগঞ্জে প্রবাসীর বাড়ীতে কিশোর গ্যাংয়ের হামলা, মারধর, লুটপাট!

আপডেট সময় : ১০:৫৪:৪০ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২১ অগাস্ট ২০২১

মোঃ ইমাম উদ্দিন সুমন, স্টাফ করেসপন্ডেন্টঃ

নোয়াখালী বেগমগঞ্জে এক প্রবাসীর বাড়ীতে মাছ ধরাকে কেন্দ্র করে সন্ত্রাসী হামলা, ভাংচুর ও লুটপাটের ঘটনা ঘটেছে হামলায় আহত হয়েছেন ২ নারী সহ ৬ জন। এ ঘটনায় প্রবাসীর স্ত্রী রুপা বেগম বাদী হয়ে বেগমগঞ্জ মডেল থানায় মামলা করেন। অভিযোগ জমা দেয়ার ১৮ দিনেও আটক হয়নি কেউ। আসামিরা গ্রেফতার না হওয়ায় নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছে ভুক্তভোগি পরিবার।

ঘটনাটি ঘটে ৩ আগস্ট মঙ্গলবার বিকেল সাড়ে ৫টায় বেগমগঞ্জ উপজেলা ৯নং মিরওয়ারিশপুর ইউনিয়ন ২নং ওয়ার্ডের মিরওয়ারিশ পুর গ্রামের রিয়াজ উদ্দিন নতুন মহাজন বাড়ীতে।

ভুক্তভোগি মির ওয়ারিশ পুর গ্রামের বদিউজ্জামানের পুত্র প্রবাসী জহির আলম বলেন, প্রতিবেশী শাহজাহান সাজু প্রকাশ শাহজান মাষ্টার দির্ঘদিন জোর পূর্বক তাদের জায়গাজমি দখল করার চেষ্টা করে যাচ্ছে ঘটনারদিন ৩ আগস্ট জহির আলম তার স্ত্রী তাবুনা তাবান্নুম রুপা(৩০) সহ পরিবারের সদস্য পুকুরের মাছ ধরেন। মাছ ধরা শেষ হলে পূর্বপরিকল্পিত ভাবে মির ওয়ারিশ পুর গ্রামের মৃত ছায়েদুল হকের পুত্র শাহ জাহান সাজু(৫৫), সাহাব উদ্দিন (৪৫), শাহ জাহান সাজুর পুত্র শাহাদাত হোসেন শাওন (২৮), টেন্ডল বাড়ির শাহ আলমের পুত্র জিদান(২৫), চৌধুরীর পুত্র আনাছ (২২), ছায়েদের পুত্র তানজির(২০) দিদার পিতা অজ্ঞাত সহ ২০/২৫ জনের একটি কিশোর গ্যাং তাদেরকে এলোপাতাড়ি পিটিয়ে জহিল আলমের মাথা ফাটিয়ে দেয় এবং তার স্ত্রী রুপাকে আহত করে ২ মন মাছ ছিনিয়ে নেয়। তাদের শৌর চিৎকার শুনে তাদেরকে উদ্ধার জহিরের ভাই খুরশিদ, নুরুজ্জামানের ছেলে আব্দুল মান্নান (৬৫), আব্দুল মান্নানের ছেলে মারুফ (১৮) এগিয়ে এলে তাদেরকে পিটিয়ে আহত করে। পরে হামলাকারিরা ঘরে দরজা ভেঙ্গে প্রবেশ ঘরে প্রবেশ করে ঘরের আলমিরা, শোকেস, সহ মূল্যবান জিনিসপত্র ভাংচুর করে নগদ অর্থ ও স্বর্ণাঅরংকার নিয়ে পালিয়ে যায়।
পরে স্থানীয়রা তাদের বেগমগঞ্জ হাসপাতালে ভর্তি করে। ঘটনার দিন ৩ তারিখ রুপা বেগম বাদী হয়ে থানায় লিখিত অভিযোগ করলেও মামলা নেয়নি বলে অভিযোগ করে ভুক্তভোগিরা পরে সংবাদটি গণমাধ্যমে এলে ১৮ আগস্ট বেগমগঞ্জ থানা মামলাটি এজাহার ভুক্ত করেন। মামলা নং ৬৪৯৮/১৮/০৮/২১।

ঘটনার বিষয়ে জানতে অভিযুক্ত শাহ জাহান সাজুকে ফোন করলে তার মেয়ে ফোনটি রিসিভ করে বলেন, আমার বাবা বাড়ীতে নেই তিনি ঢাকায় আছেন ঘটনার বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি ফোনের সংযোগ কেটে দেন পরে একাধিকবার ফোন করলেও তিনি ফোন রিসিভ করেননি।