ঢাকা ০৫:২২ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল ২০২৪, ১১ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম :
Logo মানসম্পন্ন শিক্ষা নিশ্চিত করা আমাদের অঙ্গীকারঃ ড. তৌফিক রহমান চৌধুরী  Logo মেট্রোপলিটন ইউনিভার্সিটির নতুন বাসের উদ্বোধন Logo মানসম্পন্ন শিক্ষা নিশ্চিত করতে শিক্ষকদের ভূমিকা অগ্রগণ্য: ভিসি প্রফেসর ড. মোহাম্মদ জহিরুল হক Logo মঙ্গল শোভাযাত্রা – তাসফিয়া ফারহানা ঐশী Logo সাস্টিয়ান ব্রাহ্মণবাড়িয়া এর ইফতার মাহফিল সম্পন্ন Logo কুবির চট্টগ্রাম স্টুডেন্টস ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশনের ইফতার ও পূর্নমিলনী Logo অধ্যাপক জহীর উদ্দিন আহমেদের মায়ের মৃত্যুতে শাবির মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও মুক্ত চিন্তা চর্চায় ঐক্যবদ্ধ শিক্ষকবৃন্দ পরিষদের শোক প্রকাশ Logo শাবির অধ্যাপক জহীর উদ্দিনের মায়ের মৃত্যুতে উপাচার্যের শোক প্রকাশ Logo বিশ কোটিতে গণপূর্তের প্রধান হওয়ার মিশনে ‘ছাত্রদল ক্যাডার প্রকৌশলী’! Logo দূর্নীতির রাক্ষস ফায়ার সার্ভিসের এডি আনোয়ার!




শীতে কাঁপছে কুড়িগ্রাম

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১১:২৯:৫৬ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১৩ জানুয়ারী ২০২০ ৭৪ বার পড়া হয়েছে

কুড়িগ্রাম (উত্তর) প্রতিনিধি |

দেশের উত্তরের জনপদ কুড়িগ্রাম কাঁপছে শীতে। গতকাল রোববার কুড়িগ্রামের তাপমাত্রা ছিল দেশের সর্বনিম্ন। আজ সোমবার ভোর ৬টায় জেলার তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ৮ দশমিক ৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস এবং সকাল ৯টায় ৮ দশমিক ১ ডিগ্রি সেলসিয়াস।
কুড়িগ্রামের রাজারহাট আবহাওয়া কৃষি পর্যবেক্ষণ কেন্দ্রের সিনিয়র পর্যবেক্ষক মোফাখখারুল ইসলাম জানান, মৃদু থেকে মাঝারি শৈত্যপ্রবাহ কুড়িগ্রামের উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। যা তীব্র শৈত্যপ্রবাহের রুপ নিতে পারে।
এদিকে ঘন কুয়াশা আর উত্তরের হিমেল হাওয়ায় কুড়িগ্রামের জনজীবন বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে। ক্রমাগত বাড়ছে শীতের প্রকোপ। বৃষ্টির মতো ঝরছে শিশির। ঠাণ্ডায় চরম বিপাকে পড়েছে শ্রমজীবী ও ছিন্নমূল মানুষসহ পশুপাখি। ঘন কুয়াশা ও কনকনে ঠাণ্ডায় বিশেষ কাজ ছাড়া বাইরে বের হচ্ছে না মানুষ।
গত তিনটি ও চলমান শৈত্যপ্রবাহের প্রভাবে উত্তরের জেলা কুড়িগ্রামের ১৬টি নদ-নদীর ৫ শতাধিক চরাঞ্চলের মানুষ চরম দুর্ভোগে পড়েছেন। এখানকার জীবনযাত্রা বিপর্যস্ত। ব্যাহত হয়ে পড়েছে মানুষের স্বাভাবিক কাজ।
তীব্র শীত ও অতিরিক্ত ঠাণ্ডায় কুড়িগ্রাম জেলার জেনারেল হাসপাতালসহ উপজেলার বিভিন্ন স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ডায়রিয়া ও নিউমোনিয়াসহ শীতজনিত রোগে আক্রান্ত হয়ে ভর্তি হচ্ছে রোগী। এদের বেশিরভাগ শিশু ও বৃদ্ধ।
শীতের প্রভাব পড়েছে কৃষিতে। চলতি বোরো মৌসুমের বীজতলা ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে ঘন কুয়াশার কারণে। এছাড়া আলু ও সবজি চাষেও প্রভাব পড়েছে।
কৃষি অধিদপ্তর সূত্রে জানা গেছে, জেলায় এবার বোরো বীজতলা রয়েছে ৫০৯৪ হেক্টর এবং আবাদের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে ১ লাখ ১১ হাজার হেক্টর।
জেলা ত্রাণ শাখা সূত্রে জানা গেছে, শীতার্ত মানুষের জন্য ৬১ হাজার ৫১৪টি কম্বল উপজেলা পর্যায়ে বিতরণ করা হয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :




শীতে কাঁপছে কুড়িগ্রাম

আপডেট সময় : ১১:২৯:৫৬ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১৩ জানুয়ারী ২০২০

কুড়িগ্রাম (উত্তর) প্রতিনিধি |

দেশের উত্তরের জনপদ কুড়িগ্রাম কাঁপছে শীতে। গতকাল রোববার কুড়িগ্রামের তাপমাত্রা ছিল দেশের সর্বনিম্ন। আজ সোমবার ভোর ৬টায় জেলার তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ৮ দশমিক ৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস এবং সকাল ৯টায় ৮ দশমিক ১ ডিগ্রি সেলসিয়াস।
কুড়িগ্রামের রাজারহাট আবহাওয়া কৃষি পর্যবেক্ষণ কেন্দ্রের সিনিয়র পর্যবেক্ষক মোফাখখারুল ইসলাম জানান, মৃদু থেকে মাঝারি শৈত্যপ্রবাহ কুড়িগ্রামের উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। যা তীব্র শৈত্যপ্রবাহের রুপ নিতে পারে।
এদিকে ঘন কুয়াশা আর উত্তরের হিমেল হাওয়ায় কুড়িগ্রামের জনজীবন বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে। ক্রমাগত বাড়ছে শীতের প্রকোপ। বৃষ্টির মতো ঝরছে শিশির। ঠাণ্ডায় চরম বিপাকে পড়েছে শ্রমজীবী ও ছিন্নমূল মানুষসহ পশুপাখি। ঘন কুয়াশা ও কনকনে ঠাণ্ডায় বিশেষ কাজ ছাড়া বাইরে বের হচ্ছে না মানুষ।
গত তিনটি ও চলমান শৈত্যপ্রবাহের প্রভাবে উত্তরের জেলা কুড়িগ্রামের ১৬টি নদ-নদীর ৫ শতাধিক চরাঞ্চলের মানুষ চরম দুর্ভোগে পড়েছেন। এখানকার জীবনযাত্রা বিপর্যস্ত। ব্যাহত হয়ে পড়েছে মানুষের স্বাভাবিক কাজ।
তীব্র শীত ও অতিরিক্ত ঠাণ্ডায় কুড়িগ্রাম জেলার জেনারেল হাসপাতালসহ উপজেলার বিভিন্ন স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ডায়রিয়া ও নিউমোনিয়াসহ শীতজনিত রোগে আক্রান্ত হয়ে ভর্তি হচ্ছে রোগী। এদের বেশিরভাগ শিশু ও বৃদ্ধ।
শীতের প্রভাব পড়েছে কৃষিতে। চলতি বোরো মৌসুমের বীজতলা ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে ঘন কুয়াশার কারণে। এছাড়া আলু ও সবজি চাষেও প্রভাব পড়েছে।
কৃষি অধিদপ্তর সূত্রে জানা গেছে, জেলায় এবার বোরো বীজতলা রয়েছে ৫০৯৪ হেক্টর এবং আবাদের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে ১ লাখ ১১ হাজার হেক্টর।
জেলা ত্রাণ শাখা সূত্রে জানা গেছে, শীতার্ত মানুষের জন্য ৬১ হাজার ৫১৪টি কম্বল উপজেলা পর্যায়ে বিতরণ করা হয়েছে।