ঢাকা ০৯:০৮ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২৩, ৭ আশ্বিন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম :
Logo রাজউকের নথি গায়েবের মূল হোতা নাসির উদ্দীন স্ট্যান্ড রিলিজ Logo বাংলাদেশে মানবাধিকার লঙ্ঘনের রিপোর্টে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে যুক্তরাজ্য Logo শাবিপ্রবিতে দায়িত্বপালনকালে প্রক্টরিয়াল বডির দুই সদস্য আহত Logo জিয়া শিশু কিশোর মেলার ঢাকা মহানগর দক্ষিণের কমিটি ঘোষণা Logo শাবিতে ছাত্রলীগ কর্মী শুভ’র হামলায় আহত ছাত্র হাসপাতালে ভর্তি Logo কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ে ইংলিশ উইক শুরু Logo কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ে ইংলিশ উইক শুরু Logo হাবিবুর রহমান ডিএমপির পরবর্তী কমিশনার Logo সিওইউ ব্র্যাকনেট ইন্টার ইউনিভার্সিটি প্রোগ্রামিং চ্যাম্পিয়ন বুয়েটের নাইটফল টিম Logo ৪র্থ সাস্ট অ্যাস্ট্রকার্নিভালে মেট্রোপলিটন ইউনিভার্সিটির অভাবনীয় সাফল্য




প্রধানমন্ত্রীর অনুষ্ঠানের নামে প্রবাসীর নিকট ওয়ার্ড  কাউন্সিলের ৫ লাখ টাকা চাঁদা দাবি

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৭:১৮:৫৫ অপরাহ্ন, শনিবার, ২০ জুলাই ২০১৯ ৫৭ বার পড়া হয়েছে

নিজস্ব প্রতিবেদক।

বরিশাল সিটি কর্পোরেশন এর ৪ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর তৌহিদুল বাদশা প্রধানমন্ত্রীর আগমন উপলক্ষে বরিশালে আয়োজিত একটি অনুষ্ঠানের অযুহাতে পাঁচ লাখ টাকা চাঁদা চাইলেন আমেরিকা প্রবাসী মঞ্জুর মোর্শেদ এর কাছে (২০১৮ সালের জুন মাসে)। কাউন্সিলর বাদশা তার নিজ ফেইসবুক আইডির (Toihidul Islam Badsha )ম্যাসেন্জার দিয়ে মোর্শেদ এর (Mohammed Khan ) কাছে এ চাঁদা দাবী করেন বলে অভিযোগ করেছেন ভুক্তভোগী মোর্শেদ। মোর্শেদ কাউনিয়া বাটিখানার ৪ নং ওয়ার্ডের আবুল হাসেম খানের পুত্র। তিনি এ বিষয়ে বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার ও সংশ্লিষ্ট কাউনিয়া থানায় ই-মেইল এ লিখিত অভিযোগ সহ ফেইসবুকে বিভিন্ন সময়ে পোষ্ট দিয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ এর চেষ্টা করে আসছিলেন। সম্প্রতি গত ৩ জুলাই কাউনিয়া থানায় জিডির আবেদন করে একটি লিখিত অভিযোগ দেন মোর্শেদ।
অভিযোগ পত্র অনুযায়ী জানা যায়, মোর্শেদ ও কাউন্সিলর বাদশা একই এলাকার বাসিন্দা ও বন্ধুসুলভ সম্পর্কে জড়িত ছিলেন। উক্ত তারিখে তিনি(কাউন্সিলর) তাকে এ চাঁদা দিতে বলে। চাঁদা না পেয়ে ক্ষিপ্ত হয়ে ভুক্তভোগীকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করেন বাদশা।

অভিযোগ সমন্ধে কাউন্সিলর বাদশা প্রথমে সম্পুর্ণ অস্বীকার ও পরে পাওনা টাকা চেয়েছেন বলে দাবী করেন। অবশেষে সকল প্রমাণ দেখে, প্রধানমন্ত্রীর নামে টাকা চাওয়া হয়েছে সত্য বলে বলেন ” আমার ফেইসবুক আইডি হ্যাকড হয়েছিল”। তবে কত তারিখে হ্যাক হল এবং জিডি করেননি কেন প্রশ্নের কোন সঠিক জবাব দিতে পারেননি কাউন্সিলর বাদশা। এবং এক পর্যায় তিনি ভুক্তভোগীকে মাদক ব্যাবসায়ী ও নারীলোভী হিসেবে আখ্যা দেন।

বিষয়টি নিয়ে ভুক্তভোগী মোর্শেদের মেজ ভাই আব্দুল হাফিজ খান কবির জানান, ” মোর্শেদ দেশে থাকতে চোরাচালানের ব্যাবসা করতো। সেসময় মাদক ও চোরাচালান ব্যাবসায় জড়িত ও সাহায্য করতো কাউন্সিলর বাদশা। টাকা পয়সার লেনদেন সমন্ধে আমরা ঠিক জানিনা।

বিষয়টি নিয়ে বরিশাল মহানগর আ’লীগ সভাপতি গোলাম আব্বাস দুলাল বলেন ” এ অভিযোগ সত্যি প্রমাণিত হলে কঠোর ব্যাবস্থা নেয়া হবে। বিষয়টি আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর পাশাপাশি আমরাও তদন্ত করে দেখবো।”

বরিশাল সিটি কর্পোরেশন এর মেয়র সেরনিয়াবাত সাদিক আব্দুল্লাহ ও একই প্রতিক্রিয়া ব্যাক্ত করেন।

সূত্র – দৈনিক  দিগন্তর, ১৩ই জুলাই।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :




প্রধানমন্ত্রীর অনুষ্ঠানের নামে প্রবাসীর নিকট ওয়ার্ড  কাউন্সিলের ৫ লাখ টাকা চাঁদা দাবি

আপডেট সময় : ০৭:১৮:৫৫ অপরাহ্ন, শনিবার, ২০ জুলাই ২০১৯

নিজস্ব প্রতিবেদক।

বরিশাল সিটি কর্পোরেশন এর ৪ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর তৌহিদুল বাদশা প্রধানমন্ত্রীর আগমন উপলক্ষে বরিশালে আয়োজিত একটি অনুষ্ঠানের অযুহাতে পাঁচ লাখ টাকা চাঁদা চাইলেন আমেরিকা প্রবাসী মঞ্জুর মোর্শেদ এর কাছে (২০১৮ সালের জুন মাসে)। কাউন্সিলর বাদশা তার নিজ ফেইসবুক আইডির (Toihidul Islam Badsha )ম্যাসেন্জার দিয়ে মোর্শেদ এর (Mohammed Khan ) কাছে এ চাঁদা দাবী করেন বলে অভিযোগ করেছেন ভুক্তভোগী মোর্শেদ। মোর্শেদ কাউনিয়া বাটিখানার ৪ নং ওয়ার্ডের আবুল হাসেম খানের পুত্র। তিনি এ বিষয়ে বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার ও সংশ্লিষ্ট কাউনিয়া থানায় ই-মেইল এ লিখিত অভিযোগ সহ ফেইসবুকে বিভিন্ন সময়ে পোষ্ট দিয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ এর চেষ্টা করে আসছিলেন। সম্প্রতি গত ৩ জুলাই কাউনিয়া থানায় জিডির আবেদন করে একটি লিখিত অভিযোগ দেন মোর্শেদ।
অভিযোগ পত্র অনুযায়ী জানা যায়, মোর্শেদ ও কাউন্সিলর বাদশা একই এলাকার বাসিন্দা ও বন্ধুসুলভ সম্পর্কে জড়িত ছিলেন। উক্ত তারিখে তিনি(কাউন্সিলর) তাকে এ চাঁদা দিতে বলে। চাঁদা না পেয়ে ক্ষিপ্ত হয়ে ভুক্তভোগীকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করেন বাদশা।

অভিযোগ সমন্ধে কাউন্সিলর বাদশা প্রথমে সম্পুর্ণ অস্বীকার ও পরে পাওনা টাকা চেয়েছেন বলে দাবী করেন। অবশেষে সকল প্রমাণ দেখে, প্রধানমন্ত্রীর নামে টাকা চাওয়া হয়েছে সত্য বলে বলেন ” আমার ফেইসবুক আইডি হ্যাকড হয়েছিল”। তবে কত তারিখে হ্যাক হল এবং জিডি করেননি কেন প্রশ্নের কোন সঠিক জবাব দিতে পারেননি কাউন্সিলর বাদশা। এবং এক পর্যায় তিনি ভুক্তভোগীকে মাদক ব্যাবসায়ী ও নারীলোভী হিসেবে আখ্যা দেন।

বিষয়টি নিয়ে ভুক্তভোগী মোর্শেদের মেজ ভাই আব্দুল হাফিজ খান কবির জানান, ” মোর্শেদ দেশে থাকতে চোরাচালানের ব্যাবসা করতো। সেসময় মাদক ও চোরাচালান ব্যাবসায় জড়িত ও সাহায্য করতো কাউন্সিলর বাদশা। টাকা পয়সার লেনদেন সমন্ধে আমরা ঠিক জানিনা।

বিষয়টি নিয়ে বরিশাল মহানগর আ’লীগ সভাপতি গোলাম আব্বাস দুলাল বলেন ” এ অভিযোগ সত্যি প্রমাণিত হলে কঠোর ব্যাবস্থা নেয়া হবে। বিষয়টি আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর পাশাপাশি আমরাও তদন্ত করে দেখবো।”

বরিশাল সিটি কর্পোরেশন এর মেয়র সেরনিয়াবাত সাদিক আব্দুল্লাহ ও একই প্রতিক্রিয়া ব্যাক্ত করেন।

সূত্র – দৈনিক  দিগন্তর, ১৩ই জুলাই।