• ১৬ই এপ্রিল ২০২১ খ্রিস্টাব্দ , ৩রা বৈশাখ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

প্রধানমন্ত্রীর অনুষ্ঠানের নামে প্রবাসীর নিকট ওয়ার্ড  কাউন্সিলের ৫ লাখ টাকা চাঁদা দাবি

সকালের সংবাদ ডেস্ক;
প্রকাশিত জুলাই ২০, ২০১৯, ১৯:১৮ অপরাহ্ণ
প্রধানমন্ত্রীর অনুষ্ঠানের নামে প্রবাসীর নিকট ওয়ার্ড  কাউন্সিলের ৫ লাখ টাকা চাঁদা দাবি

নিজস্ব প্রতিবেদক।

বরিশাল সিটি কর্পোরেশন এর ৪ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর তৌহিদুল বাদশা প্রধানমন্ত্রীর আগমন উপলক্ষে বরিশালে আয়োজিত একটি অনুষ্ঠানের অযুহাতে পাঁচ লাখ টাকা চাঁদা চাইলেন আমেরিকা প্রবাসী মঞ্জুর মোর্শেদ এর কাছে (২০১৮ সালের জুন মাসে)। কাউন্সিলর বাদশা তার নিজ ফেইসবুক আইডির (Toihidul Islam Badsha )ম্যাসেন্জার দিয়ে মোর্শেদ এর (Mohammed Khan ) কাছে এ চাঁদা দাবী করেন বলে অভিযোগ করেছেন ভুক্তভোগী মোর্শেদ। মোর্শেদ কাউনিয়া বাটিখানার ৪ নং ওয়ার্ডের আবুল হাসেম খানের পুত্র। তিনি এ বিষয়ে বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার ও সংশ্লিষ্ট কাউনিয়া থানায় ই-মেইল এ লিখিত অভিযোগ সহ ফেইসবুকে বিভিন্ন সময়ে পোষ্ট দিয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ এর চেষ্টা করে আসছিলেন। সম্প্রতি গত ৩ জুলাই কাউনিয়া থানায় জিডির আবেদন করে একটি লিখিত অভিযোগ দেন মোর্শেদ।
অভিযোগ পত্র অনুযায়ী জানা যায়, মোর্শেদ ও কাউন্সিলর বাদশা একই এলাকার বাসিন্দা ও বন্ধুসুলভ সম্পর্কে জড়িত ছিলেন। উক্ত তারিখে তিনি(কাউন্সিলর) তাকে এ চাঁদা দিতে বলে। চাঁদা না পেয়ে ক্ষিপ্ত হয়ে ভুক্তভোগীকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করেন বাদশা।

অভিযোগ সমন্ধে কাউন্সিলর বাদশা প্রথমে সম্পুর্ণ অস্বীকার ও পরে পাওনা টাকা চেয়েছেন বলে দাবী করেন। অবশেষে সকল প্রমাণ দেখে, প্রধানমন্ত্রীর নামে টাকা চাওয়া হয়েছে সত্য বলে বলেন ” আমার ফেইসবুক আইডি হ্যাকড হয়েছিল”। তবে কত তারিখে হ্যাক হল এবং জিডি করেননি কেন প্রশ্নের কোন সঠিক জবাব দিতে পারেননি কাউন্সিলর বাদশা। এবং এক পর্যায় তিনি ভুক্তভোগীকে মাদক ব্যাবসায়ী ও নারীলোভী হিসেবে আখ্যা দেন।

বিষয়টি নিয়ে ভুক্তভোগী মোর্শেদের মেজ ভাই আব্দুল হাফিজ খান কবির জানান, ” মোর্শেদ দেশে থাকতে চোরাচালানের ব্যাবসা করতো। সেসময় মাদক ও চোরাচালান ব্যাবসায় জড়িত ও সাহায্য করতো কাউন্সিলর বাদশা। টাকা পয়সার লেনদেন সমন্ধে আমরা ঠিক জানিনা।

বিষয়টি নিয়ে বরিশাল মহানগর আ’লীগ সভাপতি গোলাম আব্বাস দুলাল বলেন ” এ অভিযোগ সত্যি প্রমাণিত হলে কঠোর ব্যাবস্থা নেয়া হবে। বিষয়টি আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর পাশাপাশি আমরাও তদন্ত করে দেখবো।”

বরিশাল সিটি কর্পোরেশন এর মেয়র সেরনিয়াবাত সাদিক আব্দুল্লাহ ও একই প্রতিক্রিয়া ব্যাক্ত করেন।

সূত্র – দৈনিক  দিগন্তর, ১৩ই জুলাই।