ঢাকা ০৭:৪৪ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১০ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ




হোয়াটসঅ্যাপে স্ত্রীকে তিন তালাক, স্বামীকে খুঁজছে পুলিশ

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৪:০৩:৪৭ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৭ মে ২০১৯ ৭১ বার পড়া হয়েছে

অনলাইন ডেস্ক |
বার্তা আদান-প্রদানের অ্যাপস হোয়াটসঅ্যাপে কথা কাটাকাটির একপর্যায়ে স্ত্রীকে তিন তালাক দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে। ভারতের মহারাষ্ট্র রাজ্যের পুনে শহরে এ ঘটনা ঘটে।

টাইমস অব ইন্ডিয়া জানায়, রবিবার ২৫ বছর বয়সী এক নারী থানায় এসে অভিযোগ করেন, ১২ মে হোয়াটসঅ্যাপে স্বামীর সঙ্গে কথা-কাটাকাটি চলার সময় আচমকা তাকে তিন তালাক দেওয়া হয়।

ওই নারীর অভিযোগের ভিত্তিতে মুসলিম নারী (বৈবাহিক অধিকার রক্ষা) আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

তিনি জানান, ২০১৪ সালের মে মাসে তাদের বিয়ে হয়। ওই দম্পতির চার বছরের একটি ছেলেও রয়েছে।

কিন্তু বিয়ের পর থেকেই স্বামী এবং শ্বশুরবাড়ির সদস্যদের হাতে তিনি নিপীড়নের শিকার বলেও অভিযোগ করেন ওই নারী।

এমনকি বাবার বাড়ি থেকে যৌতুক আনতে না পারায় ঘর থেকে তাকে বের করে দিলে এক আত্মীয়ের কাছে গিয়ে থাকছেন বলে তিনি জানান।

এদিকে স্থানীয় থানার পুলিশ কর্মকর্তা কল্যাণ কারপে জানানা, অভিযোগের ভিত্তিতে ওই নারীর স্বামী ও তার বাবা-মায়ের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে। তারপর থেকেই স্বামীর খোঁজ পাওয়া যাচ্ছে না। তবে তাকে ধরতে তল্লাশি চালানো হচ্ছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :




হোয়াটসঅ্যাপে স্ত্রীকে তিন তালাক, স্বামীকে খুঁজছে পুলিশ

আপডেট সময় : ০৪:০৩:৪৭ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৭ মে ২০১৯

অনলাইন ডেস্ক |
বার্তা আদান-প্রদানের অ্যাপস হোয়াটসঅ্যাপে কথা কাটাকাটির একপর্যায়ে স্ত্রীকে তিন তালাক দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে। ভারতের মহারাষ্ট্র রাজ্যের পুনে শহরে এ ঘটনা ঘটে।

টাইমস অব ইন্ডিয়া জানায়, রবিবার ২৫ বছর বয়সী এক নারী থানায় এসে অভিযোগ করেন, ১২ মে হোয়াটসঅ্যাপে স্বামীর সঙ্গে কথা-কাটাকাটি চলার সময় আচমকা তাকে তিন তালাক দেওয়া হয়।

ওই নারীর অভিযোগের ভিত্তিতে মুসলিম নারী (বৈবাহিক অধিকার রক্ষা) আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

তিনি জানান, ২০১৪ সালের মে মাসে তাদের বিয়ে হয়। ওই দম্পতির চার বছরের একটি ছেলেও রয়েছে।

কিন্তু বিয়ের পর থেকেই স্বামী এবং শ্বশুরবাড়ির সদস্যদের হাতে তিনি নিপীড়নের শিকার বলেও অভিযোগ করেন ওই নারী।

এমনকি বাবার বাড়ি থেকে যৌতুক আনতে না পারায় ঘর থেকে তাকে বের করে দিলে এক আত্মীয়ের কাছে গিয়ে থাকছেন বলে তিনি জানান।

এদিকে স্থানীয় থানার পুলিশ কর্মকর্তা কল্যাণ কারপে জানানা, অভিযোগের ভিত্তিতে ওই নারীর স্বামী ও তার বাবা-মায়ের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে। তারপর থেকেই স্বামীর খোঁজ পাওয়া যাচ্ছে না। তবে তাকে ধরতে তল্লাশি চালানো হচ্ছে।