ঢাকা ১০:৫৯ অপরাহ্ন, বুধবার, ৩০ নভেম্বর ২০২২, ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম :




১০ বছরেও উন্নয়নের ছোঁয়া লাগেনি বাকেরগঞ্জ উপজেলা সদরে!

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১২:৫৩:২৫ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২ এপ্রিল ২০১৯ ১৩ বার পড়া হয়েছে

বাকেরগঞ্জ প্রতিনিধি;  গত ১০ বছরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকারের আমলে দেশ যখন উন্নয়নের মহাসড়কে ঠিক তখনও এখানে কয়েকযুগের ভাঙ্গা রাস্তা ও পুলই ভরসা সাধারণ মানুষের। এতটুকু উন্নয়নের ছোঁয়া লাগেনি বরিশালের ঐতিহ্যবাহী উপজেলা বাকেরগঞ্জে। এর চরম দৃষ্টান্ত হিসেবে উপজেলা সদরের কয়েক যুগের পুরনো কাঠেরপুল আর খানাখন্দে ভরা জরাজীর্ণ সড়কই প্রমাণ।

উপজেলার গুরুত্বপূর্ণ সড়কের এই ঝুঁকিপূর্ণ পুলের উপর দিয়েই পার হচ্ছেন জনসাধারণ। উপজেলার এক প্রান্তে বাকেরগঞ্জ পৌরসভার ৩নং ওয়ার্ড ( বাকেরগঞ্জ বন্দর ) এবং অন্য প্রান্তে ৪নং ওয়ার্ড বৃহত্তর সাহেবগঞ্জ এই এলাকায় রয়েছে সকল সরকারি কার্যালয় যেখানে উপজেলার ১৪ টি ইউনিয়নের জনসাধারণের যাতায়াত। বরিশালের সবচেয়ে বৃহত্তর ও ঐতিহ্য এই উপজেলার সকল জনগণকেই এই এলাকায় কাজের জন্য আসতে হয়।

এলাকাবাসীর অভিযোগ স্থানীয় মহাজোটের এমপি রত্না আমিন স্বামী মহাজোটের প্রভাবশালী নেতার অবস্থানকে ব্যাবহার করে বারবার ক্ষমতায় আসলেও উপজেলা সদরের উন্নয়নের দিকে কোন ভ্রুক্ষেপ নেই তার।

এমনকি স্থানীয় আওয়ামীলীগের সাথে তার সমন্বয় নেই বললেই চলে তাই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উন্নয়নের সুফল থেকে বঞ্চিত এই উপজেলার জনসাধারণ। পৌরসভার সব রাস্তাঘাটই ভাঙ্গা ও খানা খন্দে ভরা, যা জনসাধারণের চলাচলের জন্য একেবারে অনুপযোগী।

তাই সারাদেশের উন্নয়ন ও উন্নত বাংলাদেশের সুফল পেতে ও জনগণের দূর্ভোগ লাঘবে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের সুনজর তথা কার্যকরী ব্যাবস্থার প্রত্যাশায় বরিশালের বাকেরগঞ্জ উপজেলাবাসী।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :




১০ বছরেও উন্নয়নের ছোঁয়া লাগেনি বাকেরগঞ্জ উপজেলা সদরে!

আপডেট সময় : ১২:৫৩:২৫ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২ এপ্রিল ২০১৯

বাকেরগঞ্জ প্রতিনিধি;  গত ১০ বছরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকারের আমলে দেশ যখন উন্নয়নের মহাসড়কে ঠিক তখনও এখানে কয়েকযুগের ভাঙ্গা রাস্তা ও পুলই ভরসা সাধারণ মানুষের। এতটুকু উন্নয়নের ছোঁয়া লাগেনি বরিশালের ঐতিহ্যবাহী উপজেলা বাকেরগঞ্জে। এর চরম দৃষ্টান্ত হিসেবে উপজেলা সদরের কয়েক যুগের পুরনো কাঠেরপুল আর খানাখন্দে ভরা জরাজীর্ণ সড়কই প্রমাণ।

উপজেলার গুরুত্বপূর্ণ সড়কের এই ঝুঁকিপূর্ণ পুলের উপর দিয়েই পার হচ্ছেন জনসাধারণ। উপজেলার এক প্রান্তে বাকেরগঞ্জ পৌরসভার ৩নং ওয়ার্ড ( বাকেরগঞ্জ বন্দর ) এবং অন্য প্রান্তে ৪নং ওয়ার্ড বৃহত্তর সাহেবগঞ্জ এই এলাকায় রয়েছে সকল সরকারি কার্যালয় যেখানে উপজেলার ১৪ টি ইউনিয়নের জনসাধারণের যাতায়াত। বরিশালের সবচেয়ে বৃহত্তর ও ঐতিহ্য এই উপজেলার সকল জনগণকেই এই এলাকায় কাজের জন্য আসতে হয়।

এলাকাবাসীর অভিযোগ স্থানীয় মহাজোটের এমপি রত্না আমিন স্বামী মহাজোটের প্রভাবশালী নেতার অবস্থানকে ব্যাবহার করে বারবার ক্ষমতায় আসলেও উপজেলা সদরের উন্নয়নের দিকে কোন ভ্রুক্ষেপ নেই তার।

এমনকি স্থানীয় আওয়ামীলীগের সাথে তার সমন্বয় নেই বললেই চলে তাই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উন্নয়নের সুফল থেকে বঞ্চিত এই উপজেলার জনসাধারণ। পৌরসভার সব রাস্তাঘাটই ভাঙ্গা ও খানা খন্দে ভরা, যা জনসাধারণের চলাচলের জন্য একেবারে অনুপযোগী।

তাই সারাদেশের উন্নয়ন ও উন্নত বাংলাদেশের সুফল পেতে ও জনগণের দূর্ভোগ লাঘবে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের সুনজর তথা কার্যকরী ব্যাবস্থার প্রত্যাশায় বরিশালের বাকেরগঞ্জ উপজেলাবাসী।