ঢাকা ০৯:৫২ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৩ জুন ২০২৪, ৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম :
Logo ২৫জুন থেকে অর্ধ-দিবস কর্ম বিরতি পালন করবে শাবি শিক্ষক সমিতি Logo এনবিআরের পদ থেকে অপসারণ করা হলো মতিউরকে Logo বন্যা পরিস্থিতিতে শিক্ষার্থীদের কথা বিবেচনায় পরীক্ষা পিছানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে শাবিপ্রবি প্রশাসন Logo সরকার সবক্ষেত্রে গবেষণাকে উৎসাহ দিচ্ছে: কুবি উপাচার্য Logo উত্তরা জুড়ে ভুয়া পত্রিকার প্রতারণা ফাঁদ! Logo ভয়ঙ্কর মোজাহিদ চক্র টঙ্গীর আতঙ্ক Logo শৃঙ্খলা পরিপন্থী কাজে জড়িত থাকার কারণে শাবির সেই ছাত্রীর আবাসিক সিট বাতিল Logo জাল সার্টিফিকেট কান্ড: পাউবোর শত কোটি টাকা আত্মসাৎ Logo শাবিপ্রবি ছাত্রীর শৃঙ্খলা পরিপন্থী কাজে জড়িত থাকায় তদন্ত কমিটি গঠন Logo তরুণ নেতৃত্ব হিসেবে কাজ করছেন শাবির নুপুর




পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরের লাইন ডিরেক্টর নুরুন্নাহারের বিরুদ্ধে যত অনিয়মের অভিযোগ

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৫:০৯:২৬ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৫ অগাস্ট ২০২৩ ১৭৪ বার পড়া হয়েছে

নিজস্ব প্রতিবেদক: পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরের লাইন ডিরেক্টর ডা. নুরুন্নাহার বেগমের বিরুদ্ধে নানা অনিয়মের অভিযোগ পাওয়া গেছে। ডা. নুরুন্নাহার বেগম ক্ষমতার অপব্যবহার করে একই পদে দীর্ঘদিন ধরে বহাল আছেন। নানা অনিয়মের অভিযোগ এনে জনৈক ঘনজিত ধীমন প্রধানমন্ত্রী বরাবর লিখিত অভিযোগ করেছেন। অভিযোগের ভিত্তিতে জানা গেছে, পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরের লাইন ডিরেক্টর ডা. নুরুন্নাহার অধিদপ্তরের নিয়ন্ত্রণাধীন যেসব এনজিও লিস্টেট রয়েছে তাদেরকে কোন বরাদ্দ না দিয়ে নাম সর্বস্ব এনজিওকে নিয়ম বহির্ভূতভাবে বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। আর অবৈধভাবে তিনি পেয়েছেন মোটা অংকের নজরানা।

তাছাড়া টেন্ডার প্রক্রিয়ায় জড়িত ঔষধ ও মালামাল এবং যন্ত্রপাতি ক্রয় সংক্রান্ত যাবতীয় কাজ তার হাতে থাকার কারণে সেখান থেকেও তিনি অনিয়মের মাধ্যমে মোটা অংকের টাকা হাতিয়ে নিচ্ছেন। বর্তমানে নিয়োগ বাণিজ্য থেকে শুরু করে যতগুলো রেগুলার প্রোগ্রাম হয় তা সবকিছুই তিনি তাদের কি করেন। ডাক্তার নুরুন্নাহার বেগম একই পদে চার বছর ধরে বহাল রয়েছেন। গত বছরও তার নানা অনিয়মের অভিযোগ এনে সচিব বরাবর লিখিত অভিযোগ করা হয়েছে। তিনি কাউকে তোয়াক্কা করেন না। সরকারি ক্রয় সংক্রান্ত বিধি লঙ্ঘন করে ডা. নুরুন্নাহার বেগম তালিকাভুক্ত ভুঁইফোড় এনজিওকে বিধি বহির্ভূতভাবে কোটি কোটি টাকা বরাদ্দ দিয়েছেন। ঠিকাদারদের উপেক্ষা করে তার পছন্দমত ঠিকাদারকে কাজ ভাগিয়ে দেয়ার অভিযোগ রয়েছে।
ডা. নুরুন্নাহার বেগমের চাকরির বয়স সীমা বেশিদিন না থাকলেও তিনি ইতিমধ্যে তার আখের গুটিয়ে নিয়েছেন। কিছুদিন আগেও তার নানা অনিয়মের সচিত্র প্রতিবেদন পত্রিকায় প্রকাশিত হয়েছে যা সচিব বরাবর পাঠানো হয়েছে ।কিন্তু তার বিরুদ্ধে রহস্যজনক কারণে কোন ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয় নাই। ডা. নুরুন্নাহার বেগম তার অধীনস্থ কর্মচারীদের সাথে অসাধাচারণ করছেন কিন্তু তার কেউ মুখ খুলতে পারছেন না। এ ব্যাপারে ডা. নুরুন্নাহার বেগুন এর কাছে জানতে চাইলে তিনি জানান, তার বিরুদ্ধে আনিতো অভিযোগ সম্পূর্ণ মিথ্যা। তিনি কোন অনিয়মের সাথে জড়িত না। একটি মহল তার সুনাম নষ্ট করার জন্য মিথ্যা তথ্য দিয়েছে।

 

চলবে……

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :




পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরের লাইন ডিরেক্টর নুরুন্নাহারের বিরুদ্ধে যত অনিয়মের অভিযোগ

আপডেট সময় : ০৫:০৯:২৬ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৫ অগাস্ট ২০২৩

নিজস্ব প্রতিবেদক: পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরের লাইন ডিরেক্টর ডা. নুরুন্নাহার বেগমের বিরুদ্ধে নানা অনিয়মের অভিযোগ পাওয়া গেছে। ডা. নুরুন্নাহার বেগম ক্ষমতার অপব্যবহার করে একই পদে দীর্ঘদিন ধরে বহাল আছেন। নানা অনিয়মের অভিযোগ এনে জনৈক ঘনজিত ধীমন প্রধানমন্ত্রী বরাবর লিখিত অভিযোগ করেছেন। অভিযোগের ভিত্তিতে জানা গেছে, পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরের লাইন ডিরেক্টর ডা. নুরুন্নাহার অধিদপ্তরের নিয়ন্ত্রণাধীন যেসব এনজিও লিস্টেট রয়েছে তাদেরকে কোন বরাদ্দ না দিয়ে নাম সর্বস্ব এনজিওকে নিয়ম বহির্ভূতভাবে বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। আর অবৈধভাবে তিনি পেয়েছেন মোটা অংকের নজরানা।

তাছাড়া টেন্ডার প্রক্রিয়ায় জড়িত ঔষধ ও মালামাল এবং যন্ত্রপাতি ক্রয় সংক্রান্ত যাবতীয় কাজ তার হাতে থাকার কারণে সেখান থেকেও তিনি অনিয়মের মাধ্যমে মোটা অংকের টাকা হাতিয়ে নিচ্ছেন। বর্তমানে নিয়োগ বাণিজ্য থেকে শুরু করে যতগুলো রেগুলার প্রোগ্রাম হয় তা সবকিছুই তিনি তাদের কি করেন। ডাক্তার নুরুন্নাহার বেগম একই পদে চার বছর ধরে বহাল রয়েছেন। গত বছরও তার নানা অনিয়মের অভিযোগ এনে সচিব বরাবর লিখিত অভিযোগ করা হয়েছে। তিনি কাউকে তোয়াক্কা করেন না। সরকারি ক্রয় সংক্রান্ত বিধি লঙ্ঘন করে ডা. নুরুন্নাহার বেগম তালিকাভুক্ত ভুঁইফোড় এনজিওকে বিধি বহির্ভূতভাবে কোটি কোটি টাকা বরাদ্দ দিয়েছেন। ঠিকাদারদের উপেক্ষা করে তার পছন্দমত ঠিকাদারকে কাজ ভাগিয়ে দেয়ার অভিযোগ রয়েছে।
ডা. নুরুন্নাহার বেগমের চাকরির বয়স সীমা বেশিদিন না থাকলেও তিনি ইতিমধ্যে তার আখের গুটিয়ে নিয়েছেন। কিছুদিন আগেও তার নানা অনিয়মের সচিত্র প্রতিবেদন পত্রিকায় প্রকাশিত হয়েছে যা সচিব বরাবর পাঠানো হয়েছে ।কিন্তু তার বিরুদ্ধে রহস্যজনক কারণে কোন ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয় নাই। ডা. নুরুন্নাহার বেগম তার অধীনস্থ কর্মচারীদের সাথে অসাধাচারণ করছেন কিন্তু তার কেউ মুখ খুলতে পারছেন না। এ ব্যাপারে ডা. নুরুন্নাহার বেগুন এর কাছে জানতে চাইলে তিনি জানান, তার বিরুদ্ধে আনিতো অভিযোগ সম্পূর্ণ মিথ্যা। তিনি কোন অনিয়মের সাথে জড়িত না। একটি মহল তার সুনাম নষ্ট করার জন্য মিথ্যা তথ্য দিয়েছে।

 

চলবে……