ঢাকা ০৮:৪৭ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৬ জুন ২০২৪, ২ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ




সলিমুল্লাহ মেডিকেলে ২৩ চিকিৎসকসহ ৪২ জন করোনায় আক্রান্ত

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১০:০৬:২১ অপরাহ্ন, সোমবার, ২০ এপ্রিল ২০২০ ৯৭ বার পড়া হয়েছে

অনলাইন রিপোর্ট | 

ঢাকার স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজ (মিটফোর্ড) হাসপাতালের ২৩ জন চিকিৎসকসহ ৪২ জন স্বাস্থ্যকর্মী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন।
একজন রোগী তার আক্রান্তের তথ্য গোপন করে চিকিৎসা নেয়ায় তার থেকে চিকিৎসক-নার্সদের মধ্যে এই সংক্রমণ ঘটছে বলে জানিয়েছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

রোববার রাতে এবিষয়ে হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল কাজী মো. রশিদ উন নবী বলেন, গত সপ্তাহের শনিবার হাসপাতালের সার্জারি বিভাগে একজন রোগী ভর্তি হন। জরুরি ওই রোগীর অস্ত্রোপচারে যারা যুক্ত ছিলেন তারা সবাই আক্রান্ত হয়েছেন।

তিনি বলেন, বৃহস্পতিবার ১২ জন এবং শুক্রবার ১০ জনের করোনাভাইরাস আক্রান্ত বলে শনাক্ত করা হয়। তাদের মধ্যে সার্জারি ও গাইনি বিভাগের ১০ জন চিকিৎসক এবং আটজন নার্স রয়েছেন। পরদিন ৬৯ জনের নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষা করলে তাদের সবার ফল ‘নেগেটিভ’ আসে। তবে রোববার আরও ১৩ জন চিকিৎসক এবং সাতজন নার্সের করোনাভাইরাস পজেটিভ শনাক্ত করা হয়। এ নিয়ে মোট ৪২ জন আক্রান্ত হয়েছেন।
তিনি আরও বলেন, আমরা কী করব, একজন রোগীর ইমার্জেন্সি অপারেশনের দরকার হলে তো অপারেশন করতে হবে। না হলে রাস্তায় মারা যাবে। কিন্তু তারা তথ্য গোপন করলে এভাবে এক থেকে আরেকজন ছড়াবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :




সলিমুল্লাহ মেডিকেলে ২৩ চিকিৎসকসহ ৪২ জন করোনায় আক্রান্ত

আপডেট সময় : ১০:০৬:২১ অপরাহ্ন, সোমবার, ২০ এপ্রিল ২০২০

অনলাইন রিপোর্ট | 

ঢাকার স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজ (মিটফোর্ড) হাসপাতালের ২৩ জন চিকিৎসকসহ ৪২ জন স্বাস্থ্যকর্মী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন।
একজন রোগী তার আক্রান্তের তথ্য গোপন করে চিকিৎসা নেয়ায় তার থেকে চিকিৎসক-নার্সদের মধ্যে এই সংক্রমণ ঘটছে বলে জানিয়েছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

রোববার রাতে এবিষয়ে হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল কাজী মো. রশিদ উন নবী বলেন, গত সপ্তাহের শনিবার হাসপাতালের সার্জারি বিভাগে একজন রোগী ভর্তি হন। জরুরি ওই রোগীর অস্ত্রোপচারে যারা যুক্ত ছিলেন তারা সবাই আক্রান্ত হয়েছেন।

তিনি বলেন, বৃহস্পতিবার ১২ জন এবং শুক্রবার ১০ জনের করোনাভাইরাস আক্রান্ত বলে শনাক্ত করা হয়। তাদের মধ্যে সার্জারি ও গাইনি বিভাগের ১০ জন চিকিৎসক এবং আটজন নার্স রয়েছেন। পরদিন ৬৯ জনের নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষা করলে তাদের সবার ফল ‘নেগেটিভ’ আসে। তবে রোববার আরও ১৩ জন চিকিৎসক এবং সাতজন নার্সের করোনাভাইরাস পজেটিভ শনাক্ত করা হয়। এ নিয়ে মোট ৪২ জন আক্রান্ত হয়েছেন।
তিনি আরও বলেন, আমরা কী করব, একজন রোগীর ইমার্জেন্সি অপারেশনের দরকার হলে তো অপারেশন করতে হবে। না হলে রাস্তায় মারা যাবে। কিন্তু তারা তথ্য গোপন করলে এভাবে এক থেকে আরেকজন ছড়াবে।