ঢাকা ০৯:৩৫ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০২৪, ১ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম :
Logo নিরাপত্তার স্বার্থে শাবি শিক্ষার্থীদের আইডিকার্ড সাথে রাখার আহবান বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের Logo জনস্বাস্থ্যের প্রধান সাধুর যত অসাধু কর্ম: দুর্নীতি ও অর্থ পাচারের অভিযোগ! Logo বিআইডব্লিউটিএ বন্দর শাখা যুগ্ম পরিচালক আলমগীরের দুর্নীতি ও ঘুষ বাণিজ্য  Logo রাজশাহীতে এটিএন বাংলার সাংবাদিক সুজাউদ্দিন ছোটনকে হয়রানিমূলক মামলায় বএিমইউজরে নিন্দা ও প্রতিবাদ Logo শিক্ষার্থীদের তথ্য প্রযুক্তিতে দক্ষ হয়ে স্মার্ট বাংলাদেশ গড়ায় অবদান রাখতে হবেঃ ড. তৌফিক রহমান চৌধুরী Logo ‘কানামাছি শিশুসাহিত্য পুরস্কার ২০২৪’ পেলেন লেখক Logo মধ্যরাতে শাবি ছাত্রলীগের ‘ তুমি কে, আমি কে- বাঙ্গালী, বাঙ্গালী’ শ্লোগানে উত্তাল ক্যাম্পাস Logo আম নিয়ে কষ্টগাঁথা Logo ঘুমান্ত বিবেক মাতাল আবেগ’ – আকাশমণি Logo পুলিশের হামলার পরও ৬ ঘন্টা ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক অবরোধে কুবি শিক্ষার্থীর




সারাদেশে ডেঙ্গু পরিস্থিতি ভয়াবহ, স্বাস্থ্যমন্ত্রী কোথায়?

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০১:৫০:১৪ অপরাহ্ন, বুধবার, ৩১ জুলাই ২০১৯ ১৫১ বার পড়া হয়েছে

হাফিজুর রাহমান শফিক;
রাজধানীসহ সারাদেশে ছড়িয়ে পড়েছে অ্যাডিস মশাবাহিত ডেঙ্গু জ্বর। সরকারী হাসপাতাল গুলোতে প্রতি মিনিটে ১ জন রোগী আসছে চিকিৎসা দিতে হিমশিম খাচ্ছে সরকারী বেসরকারী সব হাসপাতাল। ৬৪টি জেলার মধ্যে ৬১ টিতেই ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় আরো ১ হাজার ৩৩৫ জন ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়ে দেশের বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। এমন সংকটকালে কিন্তু এই অস্থিরতার মধ্যে খোঁজ নেই স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালিকের।

রাষ্ট্রের সর্বোচ্চ পর্যায় থেকে নির্দেশনা দেয়া হচ্ছে পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা অভিযানের। ছুটি বাতিল করা হয়েছে স্বাস্থ্য বিভাগের সকল কর্মকর্তা-কর্মচারীদের। এদিকে রোগে আক্রান্ত হয়ে মানুষের মৃত্যুর খবর আসছে প্রতিদিনই। এমন এক মুহূর্তে স্বাস্থ্যমন্ত্রী সপরিবারে বিদেশ ভ্রমণে।

এনিয়ে নানা মহলে কানাঘুষা শুরু হওয়ার পর জানা গেছে তিনি দেশে নেই। পরিবারের সদস্যদের নিয়ে ভ্রমণে গেছেন মালয়েশিয়ায়।

এদিকে দেশের এই পরিস্থিতিতে স্বাস্থ্যমন্ত্রীর লাপাত্তা হওয়া কিংবা বিদেশ ভ্রমণের ঘটনায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমসহ বিভিন্ন মহলে কঠোর সমালোচনার ঝড় বইছে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সারাদেশের সাধারণ মানুষ ইতিমধ্যেই তার পদত্যাগ দাবি করেন। খোদ আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরও তাকে ব্যর্থ বলে আখ্যায়িত করেছেন।

মন্ত্রীর এই ব্যক্তিগত বিদেশ ভ্রমণ স্বাস্থ্যমন্ত্রণালয়ের একাধিক কর্মকর্তা নিশ্চিত করেছেন। তবে তার ব্যক্তিগত সহকারী জানিয়েছেন, তিনি বর্তমানে তার নির্বাচনী এলাকা মানিকগঞ্জে রয়েছেন। সেখানে তিনি বন্যার্তদের সহায়তায় কাজ করছেন। অথচ মানিকগঞ্জের জেলা প্রশাসক অফিস জানে না মন্ত্রী জেলায় আছেন!

বর্তমানে কোথায় স্বাস্থ্যমন্ত্রী ? দেশে নাকি দেশের বাইরে, এ নিয়ে ধোঁয়াশা সৃষ্টি হওয়ার মাঝেই প্রকাশ পেল মন্ত্রীর ছুটিতে যাওয়ার সময়সূচি।

স্বাস্থ্যমন্ত্রীর ব্যক্তিগত সচিব মো. ওয়াহাদুর রহমানের সই করা স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের ২৫ জুলাই তারিখের একটি সময়সূচির বিজ্ঞপ্তিতে দেখা গেছে, স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক ব্যক্তিগত সফরে ২৮ জুলাই ঢাকা থেকে কুয়ালালামপুরের উদ্দেশে রওনা করেছেন।

আগামী ৩ আগস্ট সেখান থেকে বাংলাদেশের পথে রওনা হয়ে ৪ আগস্ট হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে তার পৌঁছানোর কথা রয়েছে। বিজ্ঞপ্তিতে আরও লেখা আছে, মন্ত্রীর সঙ্গে তার স্ত্রী শাবানা মালেক এবং মেয়ে সাদেকা মালেকও ওই সফরে থাকছেন। তাদের জন্য ২৭ জুলাই থেকে দ্য ওয়েস্টিন কুয়ালালামপুর হোটেলে কক্ষ বুক করাও হয়েছে।

স্বাস্থ্য অধিদফতরের নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক কর্মকর্তাও বিস্ময় প্রকাশ করে সকালের সংবাদকে বলেন, পুরো দেশ যখন ডেঙ্গু নিয়ে অস্থিরতায় আক্রান্ত, তখন স্বাস্থ্য বিভাগের সর্বোচ্চ ব্যক্তি কী করে দেশের বাইরে যান। একইসঙ্গে তারা একে চরম অপেশাদারিত্বমূলক আচরণ বলেও মন্তব্য করেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :




সারাদেশে ডেঙ্গু পরিস্থিতি ভয়াবহ, স্বাস্থ্যমন্ত্রী কোথায়?

আপডেট সময় : ০১:৫০:১৪ অপরাহ্ন, বুধবার, ৩১ জুলাই ২০১৯

হাফিজুর রাহমান শফিক;
রাজধানীসহ সারাদেশে ছড়িয়ে পড়েছে অ্যাডিস মশাবাহিত ডেঙ্গু জ্বর। সরকারী হাসপাতাল গুলোতে প্রতি মিনিটে ১ জন রোগী আসছে চিকিৎসা দিতে হিমশিম খাচ্ছে সরকারী বেসরকারী সব হাসপাতাল। ৬৪টি জেলার মধ্যে ৬১ টিতেই ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় আরো ১ হাজার ৩৩৫ জন ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়ে দেশের বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। এমন সংকটকালে কিন্তু এই অস্থিরতার মধ্যে খোঁজ নেই স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালিকের।

রাষ্ট্রের সর্বোচ্চ পর্যায় থেকে নির্দেশনা দেয়া হচ্ছে পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা অভিযানের। ছুটি বাতিল করা হয়েছে স্বাস্থ্য বিভাগের সকল কর্মকর্তা-কর্মচারীদের। এদিকে রোগে আক্রান্ত হয়ে মানুষের মৃত্যুর খবর আসছে প্রতিদিনই। এমন এক মুহূর্তে স্বাস্থ্যমন্ত্রী সপরিবারে বিদেশ ভ্রমণে।

এনিয়ে নানা মহলে কানাঘুষা শুরু হওয়ার পর জানা গেছে তিনি দেশে নেই। পরিবারের সদস্যদের নিয়ে ভ্রমণে গেছেন মালয়েশিয়ায়।

এদিকে দেশের এই পরিস্থিতিতে স্বাস্থ্যমন্ত্রীর লাপাত্তা হওয়া কিংবা বিদেশ ভ্রমণের ঘটনায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমসহ বিভিন্ন মহলে কঠোর সমালোচনার ঝড় বইছে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সারাদেশের সাধারণ মানুষ ইতিমধ্যেই তার পদত্যাগ দাবি করেন। খোদ আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরও তাকে ব্যর্থ বলে আখ্যায়িত করেছেন।

মন্ত্রীর এই ব্যক্তিগত বিদেশ ভ্রমণ স্বাস্থ্যমন্ত্রণালয়ের একাধিক কর্মকর্তা নিশ্চিত করেছেন। তবে তার ব্যক্তিগত সহকারী জানিয়েছেন, তিনি বর্তমানে তার নির্বাচনী এলাকা মানিকগঞ্জে রয়েছেন। সেখানে তিনি বন্যার্তদের সহায়তায় কাজ করছেন। অথচ মানিকগঞ্জের জেলা প্রশাসক অফিস জানে না মন্ত্রী জেলায় আছেন!

বর্তমানে কোথায় স্বাস্থ্যমন্ত্রী ? দেশে নাকি দেশের বাইরে, এ নিয়ে ধোঁয়াশা সৃষ্টি হওয়ার মাঝেই প্রকাশ পেল মন্ত্রীর ছুটিতে যাওয়ার সময়সূচি।

স্বাস্থ্যমন্ত্রীর ব্যক্তিগত সচিব মো. ওয়াহাদুর রহমানের সই করা স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের ২৫ জুলাই তারিখের একটি সময়সূচির বিজ্ঞপ্তিতে দেখা গেছে, স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক ব্যক্তিগত সফরে ২৮ জুলাই ঢাকা থেকে কুয়ালালামপুরের উদ্দেশে রওনা করেছেন।

আগামী ৩ আগস্ট সেখান থেকে বাংলাদেশের পথে রওনা হয়ে ৪ আগস্ট হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে তার পৌঁছানোর কথা রয়েছে। বিজ্ঞপ্তিতে আরও লেখা আছে, মন্ত্রীর সঙ্গে তার স্ত্রী শাবানা মালেক এবং মেয়ে সাদেকা মালেকও ওই সফরে থাকছেন। তাদের জন্য ২৭ জুলাই থেকে দ্য ওয়েস্টিন কুয়ালালামপুর হোটেলে কক্ষ বুক করাও হয়েছে।

স্বাস্থ্য অধিদফতরের নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক কর্মকর্তাও বিস্ময় প্রকাশ করে সকালের সংবাদকে বলেন, পুরো দেশ যখন ডেঙ্গু নিয়ে অস্থিরতায় আক্রান্ত, তখন স্বাস্থ্য বিভাগের সর্বোচ্চ ব্যক্তি কী করে দেশের বাইরে যান। একইসঙ্গে তারা একে চরম অপেশাদারিত্বমূলক আচরণ বলেও মন্তব্য করেন।