ঢাকা ০২:৫৭ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৭ নভেম্বর ২০২২, ১৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম :




ফায়ার সার্ভিসকে আধুনিক ও উন্নত বাহিনীতে পরিণত করা হবে: প্রধানমন্ত্রী

সকালের সংবাদ:
  • আপডেট সময় : ০৬:৪২:০৪ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৫ নভেম্বর ২০২২ ৫৫ বার পড়া হয়েছে

ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স সপ্তাহ ২০২২-এর শুভ উদ্বোধন অনুষ্ঠানে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, ফায়ার সার্ভিসকে একটি আধুনিক ও উন্নত সেবা বাহিনীতে পরিণত করা হবে। ১৫ নভেম্বর মঙ্গলবার ঢাকার মিরপুরে ফায়ার সার্ভিস ট্রেনিং কমপ্লেক্সে ফায়ার সপ্তাহের শুভ উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির ভাষণে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, এমপি এসব কথা বলেন।

সকাল সাড়ে ৯টায় শুরু হওয়া মিরপুর ট্রেনিং কমপ্লেক্সের এই অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মাননীয় মন্ত্রী জনাব আসাদুজ্জামান খান এমপি, সুরক্ষা সেবা বিভাগের সচিব জনাব মোঃ আবদুল্লাহ আল মাসুদ চৌধুরী এবং স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির মাননীয় সভাপতি জনাব বেনজীর আহমেদ এমপি। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোহাম্মদ মাইন উদ্দিন, বিএসপি (বার), এনডিসি, পিএসসি, জি, এম ফিল।

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এমপি গণভবন প্রান্ত থেকে সকাল ১০টায় ভার্চুয়ালি সংযুক্ত হলে প্রথমে অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোঃ মাইন উদ্দিন তাঁকে সালাম প্রদান করেন। এরপর প্যারেড কমান্ডার আনোয়ারুল হকের নেতৃত্বে কন্টিনজেন্ট-এর সদস্যরা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে রাষ্ট্রীয় সালাম প্রদান করেন। এরপর মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর অনুমতিক্রমে কুচকাওয়াজ শুরু হয়। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী কুচকাওয়াজে অভিবাদন গ্রহণ করেন। এরপর স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মাননীয় মন্ত্রী মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর অনুমতিক্রমে পদকপ্রাপ্তদের পদক পরিয়ে দেন। মোট ১৬ জনকে পদক পরানো হয়। সেবা কাজে অনন্য অবদানের স্বীকৃতি হিসেবে এ বছর মোট ৪৫ জনকে ৪টি ক্যাটাগরিতে পদক প্রদান করা হয়েছে। এর মধ্য থেকে ৩ জন কর্মকর্তা এবং বিএম কন্টেইনার ডিপোর ভয়াবহ অগ্নিদুর্ঘটনায় নির্মম মৃত্যুর শিকার ফায়ার সার্ভিসের ১৩ জন অগ্নি বীরের স্বজনদের হাতে পদক তুলে দেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। পদকপ্রাপ্তরা ক্যাটাগরি ভেদে এককালীন ১ লাখ, ৭৫ হাজার ও ৫০ হাজার টাকা এবং আজীবন প্রতিমাসে ১৫০০ টাকা ও ১ হাজার টাকা করে মাসিক ভাতা প্রাপ্ত হবেন।

অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোঃ মাইন উদ্দিন। বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন সুরক্ষা সেবা বিভাগের সচিব জনাব মোঃ আবদুল্লাহ আল মাসুদ চৌধুরী এবং স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মাননীয় মন্ত্রী জনাব আসাদুজ্জামান খান এমপি।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, “ফায়ার সার্ভিসের মানোন্নয়ন, সেবার সক্ষমতা বৃদ্ধি এবং সেবার ক্ষেত্র সম্প্রসারণে আমরা বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করেছি। দেশের সাধারণ জনগণ এখন তার সুবিধা ভোগ করছে।” বর্তমান সময়ে ফায়ার সার্ভিসের বিভিন্ন উন্নয়নে সরকারের গৃহীত কার্যক্রমের সংক্ষিপ্ত বিবরণ তুলে ধরে প্রধানমন্ত্রী বলেন, এই প্রতিষ্ঠানকে আধুনিক ও উন্নত বাহিনীতে পরিণত করা হবে। তিনি আরো উল্লেখ করেন, “আমি জানি, সারা জীবন আগুন ও ধোঁয়ায় কাজ করতে হয় বিধায় এই প্রতিষ্ঠানের কর্মীদের অনেকেই অবসর বয়সে নানা রকম রোগ-ব্যাধিতে আক্রান্ত হন। এ কারণে আমরা ফায়ার সার্ভিসের কর্মীদের আজীবন রেশন প্রদানের পরিকল্পনা গ্রহণ করেছি।”

মাননীয় প্রধান অতিথির সানুগ্রহ সম্মতিক্রমে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান এমপি বেলুন উড়ানোর মাধ্যমে অনুষ্ঠানকে বর্ণিল করে তোলেন। এরপর মাননীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী কেক কাটেন। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে পুনরায় রাষ্ট্রীয় সালাম প্রদানের মধ্য দিয়ে সমাপ্ত হয় ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স সপ্তাহের শুভ উদ্বোধন অনুষ্ঠান।

 

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :




error: Content is protected !!

ফায়ার সার্ভিসকে আধুনিক ও উন্নত বাহিনীতে পরিণত করা হবে: প্রধানমন্ত্রী

আপডেট সময় : ০৬:৪২:০৪ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৫ নভেম্বর ২০২২

ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স সপ্তাহ ২০২২-এর শুভ উদ্বোধন অনুষ্ঠানে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, ফায়ার সার্ভিসকে একটি আধুনিক ও উন্নত সেবা বাহিনীতে পরিণত করা হবে। ১৫ নভেম্বর মঙ্গলবার ঢাকার মিরপুরে ফায়ার সার্ভিস ট্রেনিং কমপ্লেক্সে ফায়ার সপ্তাহের শুভ উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির ভাষণে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, এমপি এসব কথা বলেন।

সকাল সাড়ে ৯টায় শুরু হওয়া মিরপুর ট্রেনিং কমপ্লেক্সের এই অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মাননীয় মন্ত্রী জনাব আসাদুজ্জামান খান এমপি, সুরক্ষা সেবা বিভাগের সচিব জনাব মোঃ আবদুল্লাহ আল মাসুদ চৌধুরী এবং স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির মাননীয় সভাপতি জনাব বেনজীর আহমেদ এমপি। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোহাম্মদ মাইন উদ্দিন, বিএসপি (বার), এনডিসি, পিএসসি, জি, এম ফিল।

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এমপি গণভবন প্রান্ত থেকে সকাল ১০টায় ভার্চুয়ালি সংযুক্ত হলে প্রথমে অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোঃ মাইন উদ্দিন তাঁকে সালাম প্রদান করেন। এরপর প্যারেড কমান্ডার আনোয়ারুল হকের নেতৃত্বে কন্টিনজেন্ট-এর সদস্যরা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে রাষ্ট্রীয় সালাম প্রদান করেন। এরপর মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর অনুমতিক্রমে কুচকাওয়াজ শুরু হয়। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী কুচকাওয়াজে অভিবাদন গ্রহণ করেন। এরপর স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মাননীয় মন্ত্রী মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর অনুমতিক্রমে পদকপ্রাপ্তদের পদক পরিয়ে দেন। মোট ১৬ জনকে পদক পরানো হয়। সেবা কাজে অনন্য অবদানের স্বীকৃতি হিসেবে এ বছর মোট ৪৫ জনকে ৪টি ক্যাটাগরিতে পদক প্রদান করা হয়েছে। এর মধ্য থেকে ৩ জন কর্মকর্তা এবং বিএম কন্টেইনার ডিপোর ভয়াবহ অগ্নিদুর্ঘটনায় নির্মম মৃত্যুর শিকার ফায়ার সার্ভিসের ১৩ জন অগ্নি বীরের স্বজনদের হাতে পদক তুলে দেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। পদকপ্রাপ্তরা ক্যাটাগরি ভেদে এককালীন ১ লাখ, ৭৫ হাজার ও ৫০ হাজার টাকা এবং আজীবন প্রতিমাসে ১৫০০ টাকা ও ১ হাজার টাকা করে মাসিক ভাতা প্রাপ্ত হবেন।

অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোঃ মাইন উদ্দিন। বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন সুরক্ষা সেবা বিভাগের সচিব জনাব মোঃ আবদুল্লাহ আল মাসুদ চৌধুরী এবং স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মাননীয় মন্ত্রী জনাব আসাদুজ্জামান খান এমপি।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, “ফায়ার সার্ভিসের মানোন্নয়ন, সেবার সক্ষমতা বৃদ্ধি এবং সেবার ক্ষেত্র সম্প্রসারণে আমরা বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করেছি। দেশের সাধারণ জনগণ এখন তার সুবিধা ভোগ করছে।” বর্তমান সময়ে ফায়ার সার্ভিসের বিভিন্ন উন্নয়নে সরকারের গৃহীত কার্যক্রমের সংক্ষিপ্ত বিবরণ তুলে ধরে প্রধানমন্ত্রী বলেন, এই প্রতিষ্ঠানকে আধুনিক ও উন্নত বাহিনীতে পরিণত করা হবে। তিনি আরো উল্লেখ করেন, “আমি জানি, সারা জীবন আগুন ও ধোঁয়ায় কাজ করতে হয় বিধায় এই প্রতিষ্ঠানের কর্মীদের অনেকেই অবসর বয়সে নানা রকম রোগ-ব্যাধিতে আক্রান্ত হন। এ কারণে আমরা ফায়ার সার্ভিসের কর্মীদের আজীবন রেশন প্রদানের পরিকল্পনা গ্রহণ করেছি।”

মাননীয় প্রধান অতিথির সানুগ্রহ সম্মতিক্রমে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান এমপি বেলুন উড়ানোর মাধ্যমে অনুষ্ঠানকে বর্ণিল করে তোলেন। এরপর মাননীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী কেক কাটেন। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে পুনরায় রাষ্ট্রীয় সালাম প্রদানের মধ্য দিয়ে সমাপ্ত হয় ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স সপ্তাহের শুভ উদ্বোধন অনুষ্ঠান।