ঢাকা ১০:১৮ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১২ জুলাই ২০২৪, ২৮ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম :
Logo পুলিশের হামলার পরও ৬ ঘন্টা ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক অবরোধে কুবি শিক্ষার্থীর Logo শাবিপ্রবির প্রো-ভিসি অধ্যাপক ড. কবির হোসেনের সফলতার একবছর পূর্তি Logo এবার আলোচনায় আওয়ামী লীগের থানা ওয়ার্ড কমিটিতে পদ বাণিজ্যে! Logo প্রত্যয় স্কিম প্রত্যাহার দাবি Logo শাবি উপাচার্যের কৃতিত্ব; মাত্র ৪বছরেই আয়োজন করছেন ২ বার কনভোকেশন Logo কুবিতে সমাপ্ত হলো আন্তর্জাতিক নাট্য উৎসব Logo পর্দা নামলো থিয়েটার কুবি আয়োজিত দুই দিনের আন্তর্জাতিক নাট্য উৎসব Logo রেলওয়ের নিরাপত্তা বাহিনীর কমান্ড্যান্ট শহীদ উল্লাহর সম্পদের খনি  Logo সাবরেজিস্ট্রার অফিসের হিসেবে ৬৭৭ কোটি টাকার নয় ছয় Logo সাংবাদিকদের নিয়ে মতিউরের স্ত্রীর বিতর্কিত বক্তব্যের প্রতিবাদ: হাজার কোটি টাকা মানহানী মামলার হুমকি বিএমইউজে’ র




খালেদা জিয়ার জন্য কেরানীগঞ্জে কারাগারের প্রস্তুত ভিআইপি কক্ষ

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০১:১১:২৩ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৪ জুলাই ২০১৯ ১০৮ বার পড়া হয়েছে

প্রধান প্রতিবেদক;

বিএনপির চেয়ারপারসন কারাবন্দী খালেদা জিয়ার জন্য কেরানীগঞ্জের দীঘলিয়ায় অবস্থিত ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারের নারী ওয়ার্ডে একটি ভিআইপি কক্ষ প্রস্তুত করা হয়েছে। হাসপাতাল থেকে ছাড়া পেলে তাকে সেখানেই রাখা হবে বলে সংশ্লিষ্ট উচ্চপর্যায়ের একটি সূত্র জানিয়েছে।

খালেদা জিয়া এখন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। গত বছরের ৮ ফেব্রুয়ারি জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতির মামলার রায়ে সাজা হওয়ার পর খালেদা জিয়াকে কারাগারে নেওয়া হয়। পরিত্যক্ত ঘোষিত নাজিমুদ্দিন রোডের কেন্দ্রীয় কারাগারের জ্যেষ্ঠ কারা তত্ত্বাবধায়কের দপ্তরকে তাঁর থাকার উপযুক্ত করে সেখানে রাখা হয়। সেখান থেকে তাঁকে চিকিৎসার জন গত ১ এপ্রিল বিএসএমএমইউতে ভর্তি করা হয়।

কারা অধিদপ্তরের একটি সূত্র দাবি করছে, গত ২০ ফেব্রুয়ারি পুরান ঢাকার কেন্দ্রীয় কারাগারের পাশে চকবাজারের চুড়িহাট্টায় ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের পর কেরানীগঞ্জ কেন্দ্রীয় কারাগারে খালেদা জিয়াকে স্থানান্তরের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। এরপর ওই কারাগারের একটি কক্ষ খালেদা জিয়াকে রাখার জন্য প্রস্তত করা হয়। ওই কক্ষে জানালার পর্দা লাগানো হয়েছে। তাঁর কক্ষে খাট, টেবিল, চেয়ার, টেলিভিশনসহ প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র দেওয়া হবে। কেরানীগঞ্জ কারাগারের প্রধান ফটক দিয়ে ঢুকে দক্ষিণ–পশ্চিম পাশে একতলা ভবনে এই কক্ষটি প্রস্তুত করা হয়েছে। এই একতলা ভবন তৈরিই করা হয়েছে ডিভিশন পাওয়া ভিআইপি বন্দীদের রাখার জন্য।

কারা কর্তৃপক্ষ সূত্র বলছে, কেরানীগঞ্জে এখন পর্যন্ত কোনো নারী বন্দীকে রাখা হয়নি। কবে নাগাদ নারী বন্দীদের সেখানে রাখা হবে, সেটাও ঠিক হয়নি এখনো। নিরাপত্তা থেকে শুরু করে বন্দীদের রাখার সব ধরনের সুযোগ-সুবিধা এখানে রয়েছে। তবে এখানে গ্যাস–সংযোগ নেই। তাই খালেদা জিয়ার রান্নার জন্য লাকড়ির চুলা বা গ্যাস সিলিন্ডার (এলপিজি) ব্যবহার করতে হবে।

শারীরিকভাবে অসুস্থ খালেদা জিয়াকে তার পছন্দ অনুযায়ী বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসার অনুমতি পেতে বারবার চেষ্টা চালিয়েছেন তাঁর আইনজীবী ও বিএনপির নেতারা। কিন্তু শেষ পর্যন্ত তাঁকে বিএসএমএমইউতেই স্বাস্থ্য পরীক্ষা করানো হয়। বর্তমানে সেখানে ভর্তি রেখেই তাঁকে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। প্রথম আলো

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :




খালেদা জিয়ার জন্য কেরানীগঞ্জে কারাগারের প্রস্তুত ভিআইপি কক্ষ

আপডেট সময় : ০১:১১:২৩ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৪ জুলাই ২০১৯

প্রধান প্রতিবেদক;

বিএনপির চেয়ারপারসন কারাবন্দী খালেদা জিয়ার জন্য কেরানীগঞ্জের দীঘলিয়ায় অবস্থিত ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারের নারী ওয়ার্ডে একটি ভিআইপি কক্ষ প্রস্তুত করা হয়েছে। হাসপাতাল থেকে ছাড়া পেলে তাকে সেখানেই রাখা হবে বলে সংশ্লিষ্ট উচ্চপর্যায়ের একটি সূত্র জানিয়েছে।

খালেদা জিয়া এখন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। গত বছরের ৮ ফেব্রুয়ারি জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতির মামলার রায়ে সাজা হওয়ার পর খালেদা জিয়াকে কারাগারে নেওয়া হয়। পরিত্যক্ত ঘোষিত নাজিমুদ্দিন রোডের কেন্দ্রীয় কারাগারের জ্যেষ্ঠ কারা তত্ত্বাবধায়কের দপ্তরকে তাঁর থাকার উপযুক্ত করে সেখানে রাখা হয়। সেখান থেকে তাঁকে চিকিৎসার জন গত ১ এপ্রিল বিএসএমএমইউতে ভর্তি করা হয়।

কারা অধিদপ্তরের একটি সূত্র দাবি করছে, গত ২০ ফেব্রুয়ারি পুরান ঢাকার কেন্দ্রীয় কারাগারের পাশে চকবাজারের চুড়িহাট্টায় ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের পর কেরানীগঞ্জ কেন্দ্রীয় কারাগারে খালেদা জিয়াকে স্থানান্তরের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। এরপর ওই কারাগারের একটি কক্ষ খালেদা জিয়াকে রাখার জন্য প্রস্তত করা হয়। ওই কক্ষে জানালার পর্দা লাগানো হয়েছে। তাঁর কক্ষে খাট, টেবিল, চেয়ার, টেলিভিশনসহ প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র দেওয়া হবে। কেরানীগঞ্জ কারাগারের প্রধান ফটক দিয়ে ঢুকে দক্ষিণ–পশ্চিম পাশে একতলা ভবনে এই কক্ষটি প্রস্তুত করা হয়েছে। এই একতলা ভবন তৈরিই করা হয়েছে ডিভিশন পাওয়া ভিআইপি বন্দীদের রাখার জন্য।

কারা কর্তৃপক্ষ সূত্র বলছে, কেরানীগঞ্জে এখন পর্যন্ত কোনো নারী বন্দীকে রাখা হয়নি। কবে নাগাদ নারী বন্দীদের সেখানে রাখা হবে, সেটাও ঠিক হয়নি এখনো। নিরাপত্তা থেকে শুরু করে বন্দীদের রাখার সব ধরনের সুযোগ-সুবিধা এখানে রয়েছে। তবে এখানে গ্যাস–সংযোগ নেই। তাই খালেদা জিয়ার রান্নার জন্য লাকড়ির চুলা বা গ্যাস সিলিন্ডার (এলপিজি) ব্যবহার করতে হবে।

শারীরিকভাবে অসুস্থ খালেদা জিয়াকে তার পছন্দ অনুযায়ী বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসার অনুমতি পেতে বারবার চেষ্টা চালিয়েছেন তাঁর আইনজীবী ও বিএনপির নেতারা। কিন্তু শেষ পর্যন্ত তাঁকে বিএসএমএমইউতেই স্বাস্থ্য পরীক্ষা করানো হয়। বর্তমানে সেখানে ভর্তি রেখেই তাঁকে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। প্রথম আলো