মাস্ক দুর্নীতি: ঢাবির সহকারি রেজিস্ট্রারকে সাময়িক বরখাস্ত

সকালের সংবাদ ডেস্ক;সকালের সংবাদ ডেস্ক;
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ১১:৫৭ অপরাহ্ণ, ২৬ জুলাই ২০২০

বিএসএমএমইউ’তে নকল মাস্ক সরবরাহে ঢাবির সহকারি রেজিস্ট্রারকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যালে বিশ্ববিদ্যালয়ে (বিএসএমএমইউ) নকল মাস্ক সরবরাহের ঘটনায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারি রেজিস্ট্রার শারমিন জাহানকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। একইসাথে তাকে সাত কার্যদিবসের মধ্যে কারণ দর্শানোর জন্য নোটিশ দিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ দপ্তর থেকে পাঠানো এক নোটিশে জানানো হয়, সহকারি রেজিস্ট্রার শারমিন জাহান শিক্ষা ছুটিতে থাকা অবস্থায় বিশ্ববিদ্যালয়ের অনুমতি ছাড়া ব্যবসা প্রতিষ্ঠান পরিচালনা করেছেন, যা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিধি-বিধান ও শৃঙ্খলা পরিপন্থি। সেইসাথে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ে নকল মাস্ক সরবরাহের অভিযোগে তার বিরুদ্ধে মামলা ও রিমান্ডে থাকায় তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের মর্যাদা ও ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন করেছেন বলে উল্লেখ করা হয়েছে।

গেল শুক্রবার (২৪ জুলাই) নকল এন-৯৫ মাস্ক সরবরাহের অভিযোগে সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান অপরাজিতা ইন্টারন্যাশনালের স্বত্তাধিকারী ও ঢাবির সহকারি রেজিস্ট্রার শারমিন জাহানের বিরুদ্ধে মামলা করে বিএসএমএমইউ কর্তৃপক্ষ।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে এন-৯৫ এর চারটি চালানে প্রায় ৯০ লাখ টাকার মাস্ক সরবরাহ করে অপরাজিতা ইন্টারন্যাশনাল। প্রতিষ্ঠানটি চীনের থ্রি এম কোম্পানির লোগো বসিয়ে যেসব মাস্ক সরবরাহ করেছে, সেখানে নকল মাস্ক পাওয়া গেছে বলে জানায় মেডিক্যাল কর্তৃপক্ষ।

হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানায়, অপরাজিতা ইন্টারন্যাশনাল থেকে প্রথম দুই লটে দেয়া মাস্কে কোনো সমস্যা ছিলো না। তবে গত ১৮ই জুলাই তৃতীয় লটে দেয়া মাস্কের ব্যবহার শুরু হলে হাসপাতালের চিকিৎসকরা জানান, মাস্ক নকল। পরে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ মাস্ক ফেরত দেয়। নকল মাস্কগুলোর গায়ে ইংরেজি বানানও ভুল ছিলো।

আপনার মতামত লিখুন :