ঢাকা ১১:০৭ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৬ নভেম্বর ২০২২, ১২ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম :




কাগজের আইনে কোনো সম্পর্কের ভিত্তি গড়তে সক্ষম নয়

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৮:৫০:৫৪ অপরাহ্ন, বুধবার, ১ সেপ্টেম্বর ২০২১ ২২ বার পড়া হয়েছে

এইচ আর শফিক: ভূমিষ্ঠ হওয়ার পরে মা বাবার সাথে যে সম্পর্ক সেটা কোনো কাগজে অথবা রাষ্ট্রীয় আইনি সম্পর্ক নয়। খেলার মাঠে সৃতির পটে যেই বন্দু নামক দুষ্টুরা সম্পর্ক ও সৃতির মাধুরিতে মিশে থাকে সেসব কোনো সম্পর্কই কাগজে বা আইনি গড়ে ওঠেনি।

কোন সংবিধান বা কাগজে আইনে কখনই সম্পর্কের ভিত্তি গড়তে সক্ষম নয়। তাই প্রতিটি সম্পর্ক হতে হবে চিন্তা থেকে চিন্তার সমঝোতার ভিত্তিতে। একে অপরের প্রতি সহানুভূতি প্রকাশ, চিন্তাধরার প্রতি শ্রদ্ধা প্রকাশ এর মাধ্যমেই সম্পর্কের শক্তিশালী ভিত্তি গড়ে উঠতে সক্ষম।

অন্যদিকে কাগজের আইনের পারিবারিক বন্ধনে ভাই, বোন, আত্মীয়-স্বজন প্রতিবেশীর যে সম্পর্কের সুতোয় জন্ম থেকে মৃত্যু পর্যন্ত মানুষ গেঁথে থাকে অসংখ্য সম্পর্ক সামাজিক রীতিতে।

এমন যেসব সম্পর্ক প্রতিনিয়ত আমাদের চারপাশের গড়ে উঠেছে সেগুলোকে ভেঙে যেতো দেখি আইনের ধারা গুনে গুনে। পারিবারিক সামাজিক রীতিতে গেঁথে থাকা সম্পর্ক ভেঙ্গে পড়তে দেখি স্বার্থের টানাটানিতে।

পৃথিবীর সকল সম্পর্ক সম্পর্কের ধরন পেরিয়ে এমন কিছু আত্মিক সম্পর্ক গড়ে ওঠে মানুষে মানুষে যেগুলো শুধুই আত্মায় আত্মার সূত্র মেলানো। চলতে চলতে মৃত্যু পর্যন্ত, স্বার্থ, সিদ্বান্ত, হাসি, আনন্দ চাওয়া পাওয়া কিছুতেই ভেঙ্গে পড়ে না আমলিন রয়ে সেসব সম্পর্ক।

এমন সম্পর্কের আত্মীয় থাকে চিন্তায়, চেতনায় আর অগাঁধ বিশ্বাসের সুতোয় বাঁধা। পক্ষ বা পক্ষান্তরের নানান রঙ্গে নানান মায়ায়।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :




error: Content is protected !!

কাগজের আইনে কোনো সম্পর্কের ভিত্তি গড়তে সক্ষম নয়

আপডেট সময় : ০৮:৫০:৫৪ অপরাহ্ন, বুধবার, ১ সেপ্টেম্বর ২০২১

এইচ আর শফিক: ভূমিষ্ঠ হওয়ার পরে মা বাবার সাথে যে সম্পর্ক সেটা কোনো কাগজে অথবা রাষ্ট্রীয় আইনি সম্পর্ক নয়। খেলার মাঠে সৃতির পটে যেই বন্দু নামক দুষ্টুরা সম্পর্ক ও সৃতির মাধুরিতে মিশে থাকে সেসব কোনো সম্পর্কই কাগজে বা আইনি গড়ে ওঠেনি।

কোন সংবিধান বা কাগজে আইনে কখনই সম্পর্কের ভিত্তি গড়তে সক্ষম নয়। তাই প্রতিটি সম্পর্ক হতে হবে চিন্তা থেকে চিন্তার সমঝোতার ভিত্তিতে। একে অপরের প্রতি সহানুভূতি প্রকাশ, চিন্তাধরার প্রতি শ্রদ্ধা প্রকাশ এর মাধ্যমেই সম্পর্কের শক্তিশালী ভিত্তি গড়ে উঠতে সক্ষম।

অন্যদিকে কাগজের আইনের পারিবারিক বন্ধনে ভাই, বোন, আত্মীয়-স্বজন প্রতিবেশীর যে সম্পর্কের সুতোয় জন্ম থেকে মৃত্যু পর্যন্ত মানুষ গেঁথে থাকে অসংখ্য সম্পর্ক সামাজিক রীতিতে।

এমন যেসব সম্পর্ক প্রতিনিয়ত আমাদের চারপাশের গড়ে উঠেছে সেগুলোকে ভেঙে যেতো দেখি আইনের ধারা গুনে গুনে। পারিবারিক সামাজিক রীতিতে গেঁথে থাকা সম্পর্ক ভেঙ্গে পড়তে দেখি স্বার্থের টানাটানিতে।

পৃথিবীর সকল সম্পর্ক সম্পর্কের ধরন পেরিয়ে এমন কিছু আত্মিক সম্পর্ক গড়ে ওঠে মানুষে মানুষে যেগুলো শুধুই আত্মায় আত্মার সূত্র মেলানো। চলতে চলতে মৃত্যু পর্যন্ত, স্বার্থ, সিদ্বান্ত, হাসি, আনন্দ চাওয়া পাওয়া কিছুতেই ভেঙ্গে পড়ে না আমলিন রয়ে সেসব সম্পর্ক।

এমন সম্পর্কের আত্মীয় থাকে চিন্তায়, চেতনায় আর অগাঁধ বিশ্বাসের সুতোয় বাঁধা। পক্ষ বা পক্ষান্তরের নানান রঙ্গে নানান মায়ায়।