ঢাকা ০৩:৫১ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪, ৩০ চৈত্র ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম :
Logo সাস্টিয়ান ব্রাহ্মণবাড়িয়া এর ইফতার মাহফিল সম্পন্ন Logo কুবির চট্টগ্রাম স্টুডেন্টস ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশনের ইফতার ও পূর্নমিলনী Logo অধ্যাপক জহীর উদ্দিন আহমেদের মায়ের মৃত্যুতে শাবির মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও মুক্ত চিন্তা চর্চায় ঐক্যবদ্ধ শিক্ষকবৃন্দ পরিষদের শোক প্রকাশ Logo শাবির অধ্যাপক জহীর উদ্দিনের মায়ের মৃত্যুতে উপাচার্যের শোক প্রকাশ Logo বিশ কোটিতে গণপূর্তের প্রধান হওয়ার মিশনে ‘ছাত্রদল ক্যাডার প্রকৌশলী’! Logo দূর্নীতির রাক্ষস ফায়ার সার্ভিসের এডি আনোয়ার! Logo ঝড় ও শিলাবৃষ্টিতে ক্ষতি হওয়া শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয়ে অবকাঠামোর সংস্কার শুরু Logo বুয়েটে নিয়মতান্ত্রিক ছাত্র রাজনীতির দাবিতে শাবিপ্রবি ছাত্রলীগের মানববন্ধন Logo কুবি উপাচার্যের বক্তব্যের প্রমাণ দিতে শিক্ষক সমিতির সাত দিনের আল্টিমেটাম Logo কুবি বাংলা বিভাগের অ্যালামনাইদের ইফতার ও দোয়া মাহফিল




আ.লীগের দু’গ্রুপে সংঘর্ষ: ‘কিশোর গ্যাং লিডার’ গ্রেফতার

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১২:৪০:১০ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১৮ জানুয়ারী ২০২১ ৯৩ বার পড়া হয়েছে

চট্টগ্রাম ব্যুরো: চট্টগ্রাম নগরীর লালখান বাজারে মেয়র প্রার্থী এম রেজাউল করিম চৌধুরীর গণসংযোগে অংশ নিতে অপেক্ষমান আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের দু’গ্রুপে সংঘর্ষের ঘটনায় পাল্টাপাল্টি মামলা দায়ের হয়েছে। গ্রেফতার করা হয়েছে পুলিশের তালিকাভুক্ত ‘কিশোর গ্যাং লিডার’ মো. শরীফকে।

শনিবার (১৬ জানুয়ারি) বিকেলে নগরীর খুলশী থানার টাইগারপাস বটতল এলাকায় এই সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এতে ১০ জন আহত হয়। রাতে নগর গোয়েন্দা পুলিশের একটি টিম লালখান বাজারে অভিযান চালিয়ে সংঘর্ষে একপক্ষের নেতৃত্বদাতা হিসেবে অভিযুক্ত শরীফকে গ্রেফতার করে।

লালখান বাজার ওয়ার্ডের দলীয় কাউন্সিলর প্রার্থী আবুল হাসনাত মো. বেলাল এবং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক দিদারুল আলম মাসুমের অনুসারীদের মধ্যে এই সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। সংঘর্ষের খবর পেয়ে রেজাউল আর ওই এলাকায় গণসংযোগে যাননি।

খুলশী থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. আফতাব হোসেন সারাবাংলাকে জানান, সংঘর্ষের ঘটনায় আবুল হাসনাত বেলালের পক্ষে মোহাম্মদ আলী এবং দিদারুল আলম মাসুমের পক্ষে মো. মাঈনুদ্দিন হাবিব বাদি হয়ে পৃথক মামলা দায়ের করেছেন। এর আগেই নগর গোয়েন্দা পুলিশ শরীফকে আটক করে।

জানতে চাইলে নগর গোয়েন্দা পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (দক্ষিণ) শাহ মো. আব্দুর রউফ বলেন, ‘শরীফকে আটক করে খুলশী থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।’

গ্রেফতার মো. শরীফ (২৮) লালখান বাজারের বাঘঘোনা সড়কের এম আর সিদ্দিক গেইট এলাকার মো. রহিমের ছেলে। এলাকায় শরীফ ‘ডেকচি শরীফ’ নামে পরিচিত এবং প্রায় ৫০ জনের একটি শিশু-কিশোরদের সংঘবদ্ধ দলের ‘প্রধান নেতা’ হিসেবে পুলিশের তালিকাভুক্ত। শরীফ আওয়ামী লীগ নেতা দিদারুল আলম মাসুমের অনুসারী হিসেবে পরিচিত।

২০১৭ সালের ১৮ এপ্রিল লালখান বাজারে যুবলীগ নেতা শরীফ আহমেদকে হত্যা মামলার প্রধান আসামি গ্রেফতার শরীফ। এছাড়া ছাত্রলীগ নেতা সুদীপ্ত বিশ্বাস হত্যা মামলার আসামিদের ওপর গত বছরের ১২ অক্টোবর আদালতে হামলার অভিযোগে দায়ের হওয়া একটি মামলারও আসামি শরীফ। ওই মামলায় ১৫ অক্টোবর তাকে খুলশী থানা পুলিশ গ্রেফতার করেছিল। পরে জামিনে বের হয়ে লালখান বাজারে এসে শরীফ আবারও সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডে জড়িয়ে পড়ে বলে পুলিশ জানিয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :




আ.লীগের দু’গ্রুপে সংঘর্ষ: ‘কিশোর গ্যাং লিডার’ গ্রেফতার

আপডেট সময় : ১২:৪০:১০ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১৮ জানুয়ারী ২০২১

চট্টগ্রাম ব্যুরো: চট্টগ্রাম নগরীর লালখান বাজারে মেয়র প্রার্থী এম রেজাউল করিম চৌধুরীর গণসংযোগে অংশ নিতে অপেক্ষমান আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের দু’গ্রুপে সংঘর্ষের ঘটনায় পাল্টাপাল্টি মামলা দায়ের হয়েছে। গ্রেফতার করা হয়েছে পুলিশের তালিকাভুক্ত ‘কিশোর গ্যাং লিডার’ মো. শরীফকে।

শনিবার (১৬ জানুয়ারি) বিকেলে নগরীর খুলশী থানার টাইগারপাস বটতল এলাকায় এই সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এতে ১০ জন আহত হয়। রাতে নগর গোয়েন্দা পুলিশের একটি টিম লালখান বাজারে অভিযান চালিয়ে সংঘর্ষে একপক্ষের নেতৃত্বদাতা হিসেবে অভিযুক্ত শরীফকে গ্রেফতার করে।

লালখান বাজার ওয়ার্ডের দলীয় কাউন্সিলর প্রার্থী আবুল হাসনাত মো. বেলাল এবং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক দিদারুল আলম মাসুমের অনুসারীদের মধ্যে এই সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। সংঘর্ষের খবর পেয়ে রেজাউল আর ওই এলাকায় গণসংযোগে যাননি।

খুলশী থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. আফতাব হোসেন সারাবাংলাকে জানান, সংঘর্ষের ঘটনায় আবুল হাসনাত বেলালের পক্ষে মোহাম্মদ আলী এবং দিদারুল আলম মাসুমের পক্ষে মো. মাঈনুদ্দিন হাবিব বাদি হয়ে পৃথক মামলা দায়ের করেছেন। এর আগেই নগর গোয়েন্দা পুলিশ শরীফকে আটক করে।

জানতে চাইলে নগর গোয়েন্দা পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (দক্ষিণ) শাহ মো. আব্দুর রউফ বলেন, ‘শরীফকে আটক করে খুলশী থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।’

গ্রেফতার মো. শরীফ (২৮) লালখান বাজারের বাঘঘোনা সড়কের এম আর সিদ্দিক গেইট এলাকার মো. রহিমের ছেলে। এলাকায় শরীফ ‘ডেকচি শরীফ’ নামে পরিচিত এবং প্রায় ৫০ জনের একটি শিশু-কিশোরদের সংঘবদ্ধ দলের ‘প্রধান নেতা’ হিসেবে পুলিশের তালিকাভুক্ত। শরীফ আওয়ামী লীগ নেতা দিদারুল আলম মাসুমের অনুসারী হিসেবে পরিচিত।

২০১৭ সালের ১৮ এপ্রিল লালখান বাজারে যুবলীগ নেতা শরীফ আহমেদকে হত্যা মামলার প্রধান আসামি গ্রেফতার শরীফ। এছাড়া ছাত্রলীগ নেতা সুদীপ্ত বিশ্বাস হত্যা মামলার আসামিদের ওপর গত বছরের ১২ অক্টোবর আদালতে হামলার অভিযোগে দায়ের হওয়া একটি মামলারও আসামি শরীফ। ওই মামলায় ১৫ অক্টোবর তাকে খুলশী থানা পুলিশ গ্রেফতার করেছিল। পরে জামিনে বের হয়ে লালখান বাজারে এসে শরীফ আবারও সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডে জড়িয়ে পড়ে বলে পুলিশ জানিয়েছে।