ঢাকা ০৭:৪১ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১২ এপ্রিল ২০২৪, ২৯ চৈত্র ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম :
Logo সাস্টিয়ান ব্রাহ্মণবাড়িয়া এর ইফতার মাহফিল সম্পন্ন Logo কুবির চট্টগ্রাম স্টুডেন্টস ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশনের ইফতার ও পূর্নমিলনী Logo অধ্যাপক জহীর উদ্দিন আহমেদের মায়ের মৃত্যুতে শাবির মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও মুক্ত চিন্তা চর্চায় ঐক্যবদ্ধ শিক্ষকবৃন্দ পরিষদের শোক প্রকাশ Logo শাবির অধ্যাপক জহীর উদ্দিনের মায়ের মৃত্যুতে উপাচার্যের শোক প্রকাশ Logo বিশ কোটিতে গণপূর্তের প্রধান হওয়ার মিশনে ‘ছাত্রদল ক্যাডার প্রকৌশলী’! Logo দূর্নীতির রাক্ষস ফায়ার সার্ভিসের এডি আনোয়ার! Logo ঝড় ও শিলাবৃষ্টিতে ক্ষতি হওয়া শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয়ে অবকাঠামোর সংস্কার শুরু Logo বুয়েটে নিয়মতান্ত্রিক ছাত্র রাজনীতির দাবিতে শাবিপ্রবি ছাত্রলীগের মানববন্ধন Logo কুবি উপাচার্যের বক্তব্যের প্রমাণ দিতে শিক্ষক সমিতির সাত দিনের আল্টিমেটাম Logo কুবি বাংলা বিভাগের অ্যালামনাইদের ইফতার ও দোয়া মাহফিল




প্রভাবশালীদের ইশারায় সাততলা বস্তি গিলে খাচ্ছে আতর আলী-শামীম সিন্ডিকেট

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৭:২৪:৪২ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৪ নভেম্বর ২০২০ ১২৮ বার পড়া হয়েছে

অনলাইন ডেস্ক;
“আতর আলী” নামের আগে আতর লাগানো থাকলেও ঘ্রাণ নেই। কর্মকাণ্ড দুর্ধর্ষ ও দুর্গন্ধময়। রাজধানীর বনানী থানাধীন মহাখালী সাততলা বস্তিকে ঘিরে গড়ে তুলেছেন অপরাধের শক্তিশালী সামরাজ্য। অবৈধ গ্যাস, বিদ্যুৎ, পানি ও মাদক ব্যবসার নিয়ন্ত্রণ তার-ই হাতে। সিন্ডিকেটের মাধ্যমে গিলে খাচ্ছে সাততলা বস্তিসহ আশ পাশের পাড়া-মহল্লা। তার সিন্ডিকেটের অন্যান্য সদস্যরা হল, অটো শামীম, মহিলালীগ নেত্রী হেনা আফরিন, নাপিত সবুজ, বসন্তের কোকিল তথাকথিত নেত্রী জাহানারা।
দাম্ভীকতার সাথে আতর আলীর নিজের মুখের উক্তি “আমার নামে লেখা-লেখি করে কোন লাভ নাই” আমার হাত অনেক উপরে। এলাকার কাউন্সিলর, থানা-পুলিশ আমার পকেট। একা খাই না। সবাইকে দিয়ে খাই। আতর আলী হুংকার মামলা করে লাভ নেই। আমাদেরকে কিছু করার ক্ষমতা কারো নাই।
সুযোগ পেলেই স্থানীয় কাউন্সিলরের ইশারায় শারীরিক নির্যাতন, অস্ত্র ঠেকিয়ে সাংবাদিককে হত্যার চেষ্টা, মোবাইলে হুমকি ধামকী করেন আতর আলী ও তার সিন্ডিকেট। এমন ঘটনায় মামলা দায়ের হয়েছে।
বনানী, মহাখালী, কড়াইল, সাততলা বস্তি এলাকায় গোপন অনুসন্ধানে জানা যায়, বিদ্যুৎ, পানি, গ্যাস ও মাদক ব্যবসার মাসোয়ারা এলাকার রাজনৈতিক নেতা, কাউন্সিলর, থানা পুলিশসহ প্রত্যেকটি দপ্তরে সুষ্ঠু বন্টন করে দেন আতর আলী।
রাজধানী মহাখালী এলাকার অপরাধ চক্রের গডফাদার আতর আলি ও তার সিন্ডিকেটের অন্যান্য সদস্য (অটো শামীম, মহিলালীগ নেত্রী হেনা আফরিন, নাপিত সবুজ, বসন্তের কোকিল তথাকথিত নেত্রী জাহানারা) বাহিনীর অপকর্ম অব্যাহ্ত। ভুইফোর সংগঠন গুলোর প্লেট ও টোকেনে চলছে অবৈধ অটোরিক্সা বানিজ্য এবং প্লেট ও টোকেনে অবৈধ অটোরিক্সা থেকে চাদাবাজি করে হাতিয়ে নিচ্ছ লক্ষ লক্ষ টাকা।
মহাখালী, সাততলা বস্তি, দক্ষিণপাড়া, পোড়া বস্তি, মন্দিরপাড়া, লালমাটি, ঝিলপাড়, ওয়ারলেস গেট, নিকেতনসহ এলাকা জুড়ে গড়ে তুলেছেন কিশোর গ্যাং গুপ। তাদের নিয়ন্ত্রণ করছেন আতর আলীসহ তার সিন্ডিকেটের অটো শামীম, মহিলালীগ নেত্রী হেনা আফরিন, নাপিত সবুজ, বসন্তের কোকিল তথাকথিত নেত্রী জাহানারা। প্রত্যেককে যার যার এলাকা ভাগ করে দেওয়া আছে। রাত যত গভীর হয় এলাকায় ততোই মাদকের আনাগোনা, চুরি, ছিনতাই, ডাকাতি, বেড়ে যায়। নেতা, পাতিনেতা, পুলিশ, উকিল, আন্ডারগ্রাউন্ড পলাতক সন্ত্রাসী থেকে শুরু করে সব কিছুই তাদের হাতের মুঠোয় রেখে তারা তাদের অপকর্ম চালিয়ে যাচ্ছে।
উল্লেখ্য, গত ৩১.০৮.২০২০ইং তারিখ সাপ্তাহিক অপরাধ বিচিত্রায় অটো রিকসার টোকন বাণিজ্য, গ্যাস, বিদ্যুৎ, পানি, মাদকসহ বিভিন্ন অপকর্ম নিয়ে সংবাদ প্রকাশ করায় সাংবাদিক স্বাধীনরক কাউন্সিলরের কথা বলে ডেকে নিয়ে হত্যার চেষ্টা করে আতর আলীর সিন্ডিকেট। ইতি মধ্যে বিভিন্ন পত্র-পত্রিকায় সে সংবাদ প্রকাশ হয়েছে। বনানী থানার মহাখালী সাততলা ৫নং বিট ইনচার্জ বিশ্বজিতের ঘটনা স্থানে উপস্থিত থাকলেও সাংবাদিককে বাচাতে কোন প্রকার ভূমিকা নেয়নি। উল্টো অপরাধীদের পক্ষ নিয়ে প্রতিবেদক স্বাধীনকে শায়েস্তা করার জন্য পরামর্শ দেন এস আই বিশ্বজিৎ। সংবাদ প্রকাশে কারনে সংবাদকর্মী স্বাধীনের উপর নেমে আসে অমনবিক নির্যাতন এবং মাদক দিয়ে ফাষাতেও চেষ্টা করে আতর আলী ও শমিীম। পরিকল্পনা ব্যর্থ হলে শুরু হয় নতুন প্রক্রিয়া আতর আলী তার পালিত নারী সদস্য দিয়ে সংবাদ কর্মীদের বিরুদ্ধে কোটে মিথ্যা মামলা করেন প্রতিবেদকর বিরুদ্ধে। যার যথেষ্ট প্রমাণ প্রতিবেদকের কাছে রয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :




প্রভাবশালীদের ইশারায় সাততলা বস্তি গিলে খাচ্ছে আতর আলী-শামীম সিন্ডিকেট

আপডেট সময় : ০৭:২৪:৪২ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৪ নভেম্বর ২০২০

অনলাইন ডেস্ক;
“আতর আলী” নামের আগে আতর লাগানো থাকলেও ঘ্রাণ নেই। কর্মকাণ্ড দুর্ধর্ষ ও দুর্গন্ধময়। রাজধানীর বনানী থানাধীন মহাখালী সাততলা বস্তিকে ঘিরে গড়ে তুলেছেন অপরাধের শক্তিশালী সামরাজ্য। অবৈধ গ্যাস, বিদ্যুৎ, পানি ও মাদক ব্যবসার নিয়ন্ত্রণ তার-ই হাতে। সিন্ডিকেটের মাধ্যমে গিলে খাচ্ছে সাততলা বস্তিসহ আশ পাশের পাড়া-মহল্লা। তার সিন্ডিকেটের অন্যান্য সদস্যরা হল, অটো শামীম, মহিলালীগ নেত্রী হেনা আফরিন, নাপিত সবুজ, বসন্তের কোকিল তথাকথিত নেত্রী জাহানারা।
দাম্ভীকতার সাথে আতর আলীর নিজের মুখের উক্তি “আমার নামে লেখা-লেখি করে কোন লাভ নাই” আমার হাত অনেক উপরে। এলাকার কাউন্সিলর, থানা-পুলিশ আমার পকেট। একা খাই না। সবাইকে দিয়ে খাই। আতর আলী হুংকার মামলা করে লাভ নেই। আমাদেরকে কিছু করার ক্ষমতা কারো নাই।
সুযোগ পেলেই স্থানীয় কাউন্সিলরের ইশারায় শারীরিক নির্যাতন, অস্ত্র ঠেকিয়ে সাংবাদিককে হত্যার চেষ্টা, মোবাইলে হুমকি ধামকী করেন আতর আলী ও তার সিন্ডিকেট। এমন ঘটনায় মামলা দায়ের হয়েছে।
বনানী, মহাখালী, কড়াইল, সাততলা বস্তি এলাকায় গোপন অনুসন্ধানে জানা যায়, বিদ্যুৎ, পানি, গ্যাস ও মাদক ব্যবসার মাসোয়ারা এলাকার রাজনৈতিক নেতা, কাউন্সিলর, থানা পুলিশসহ প্রত্যেকটি দপ্তরে সুষ্ঠু বন্টন করে দেন আতর আলী।
রাজধানী মহাখালী এলাকার অপরাধ চক্রের গডফাদার আতর আলি ও তার সিন্ডিকেটের অন্যান্য সদস্য (অটো শামীম, মহিলালীগ নেত্রী হেনা আফরিন, নাপিত সবুজ, বসন্তের কোকিল তথাকথিত নেত্রী জাহানারা) বাহিনীর অপকর্ম অব্যাহ্ত। ভুইফোর সংগঠন গুলোর প্লেট ও টোকেনে চলছে অবৈধ অটোরিক্সা বানিজ্য এবং প্লেট ও টোকেনে অবৈধ অটোরিক্সা থেকে চাদাবাজি করে হাতিয়ে নিচ্ছ লক্ষ লক্ষ টাকা।
মহাখালী, সাততলা বস্তি, দক্ষিণপাড়া, পোড়া বস্তি, মন্দিরপাড়া, লালমাটি, ঝিলপাড়, ওয়ারলেস গেট, নিকেতনসহ এলাকা জুড়ে গড়ে তুলেছেন কিশোর গ্যাং গুপ। তাদের নিয়ন্ত্রণ করছেন আতর আলীসহ তার সিন্ডিকেটের অটো শামীম, মহিলালীগ নেত্রী হেনা আফরিন, নাপিত সবুজ, বসন্তের কোকিল তথাকথিত নেত্রী জাহানারা। প্রত্যেককে যার যার এলাকা ভাগ করে দেওয়া আছে। রাত যত গভীর হয় এলাকায় ততোই মাদকের আনাগোনা, চুরি, ছিনতাই, ডাকাতি, বেড়ে যায়। নেতা, পাতিনেতা, পুলিশ, উকিল, আন্ডারগ্রাউন্ড পলাতক সন্ত্রাসী থেকে শুরু করে সব কিছুই তাদের হাতের মুঠোয় রেখে তারা তাদের অপকর্ম চালিয়ে যাচ্ছে।
উল্লেখ্য, গত ৩১.০৮.২০২০ইং তারিখ সাপ্তাহিক অপরাধ বিচিত্রায় অটো রিকসার টোকন বাণিজ্য, গ্যাস, বিদ্যুৎ, পানি, মাদকসহ বিভিন্ন অপকর্ম নিয়ে সংবাদ প্রকাশ করায় সাংবাদিক স্বাধীনরক কাউন্সিলরের কথা বলে ডেকে নিয়ে হত্যার চেষ্টা করে আতর আলীর সিন্ডিকেট। ইতি মধ্যে বিভিন্ন পত্র-পত্রিকায় সে সংবাদ প্রকাশ হয়েছে। বনানী থানার মহাখালী সাততলা ৫নং বিট ইনচার্জ বিশ্বজিতের ঘটনা স্থানে উপস্থিত থাকলেও সাংবাদিককে বাচাতে কোন প্রকার ভূমিকা নেয়নি। উল্টো অপরাধীদের পক্ষ নিয়ে প্রতিবেদক স্বাধীনকে শায়েস্তা করার জন্য পরামর্শ দেন এস আই বিশ্বজিৎ। সংবাদ প্রকাশে কারনে সংবাদকর্মী স্বাধীনের উপর নেমে আসে অমনবিক নির্যাতন এবং মাদক দিয়ে ফাষাতেও চেষ্টা করে আতর আলী ও শমিীম। পরিকল্পনা ব্যর্থ হলে শুরু হয় নতুন প্রক্রিয়া আতর আলী তার পালিত নারী সদস্য দিয়ে সংবাদ কর্মীদের বিরুদ্ধে কোটে মিথ্যা মামলা করেন প্রতিবেদকর বিরুদ্ধে। যার যথেষ্ট প্রমাণ প্রতিবেদকের কাছে রয়েছে।