ঢাকা ০৯:১৯ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৬ জুন ২০২৪, ২ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ




বিধবাকে গলা কেটে হত্যার চেষ্টা

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১১:২৫:৪৪ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২১ জুলাই ২০১৯ ৮৪ বার পড়া হয়েছে

জেলা প্রতিনিধি  ময়মনসিংহ; ময়মনসিংহের গফরগাঁওয়ে এক বিধবাকে গলা কেটে হত্যা চেষ্টার অভিযোগ পাওয়া গেছে। শনিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে উপজেলার দীঘা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। তাকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ (মমেক) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে দুই সন্তানের জননী নিলুফা আক্তার (৩৫) ওই গ্রামের মৃত ইব্রাহীম কাজলের স্ত্রী। তবে কী কারণে তাকে হত্যার চেষ্টা করা হয়েছে- তা কেউ জানাতে পারেনি।

মেয়ে প্রীমা আক্তার জানিয়েছে, সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে তার মা বাথরুমে যায়। বাথরুম বসত ঘর থেকে একটু দূরে, জঙ্গলের দিকে। এ সময় মায়ের চিৎকার শুনে তারা দৌড়ে সেখানে পৌঁছে দেখেন মায়ের সারা শরীর রক্তাক্ত। গলার কাছে ধারালো অস্ত্রের দুটি আঘাত রয়েছে। তিনি (নিলুফা আক্তার) বলেন অজ্ঞাত পরিচয় এক মহিলা তাকে পেছন থেকে জড়িয়ে ধরে ছুরি দিয়ে গলা কাটতে চেয়েছিল।

এরপর বাড়ির লোকেরা তাকে প্রথমে ভালুকা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও পরে মমেক হাসপাতালে ভর্তি করেন। রাত সাড়ে ১১টার দিকে সেখানে তার অস্ত্রোপচার করা হয়।

গফরগাঁও থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ আব্দুল আহাদ খাঁন গণমাধ্যমকে জানান, খবর পাওয়ার পরপরই পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে। ঘটনার বিভিন্ন বিষয় খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :




বিধবাকে গলা কেটে হত্যার চেষ্টা

আপডেট সময় : ১১:২৫:৪৪ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২১ জুলাই ২০১৯

জেলা প্রতিনিধি  ময়মনসিংহ; ময়মনসিংহের গফরগাঁওয়ে এক বিধবাকে গলা কেটে হত্যা চেষ্টার অভিযোগ পাওয়া গেছে। শনিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে উপজেলার দীঘা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। তাকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ (মমেক) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে দুই সন্তানের জননী নিলুফা আক্তার (৩৫) ওই গ্রামের মৃত ইব্রাহীম কাজলের স্ত্রী। তবে কী কারণে তাকে হত্যার চেষ্টা করা হয়েছে- তা কেউ জানাতে পারেনি।

মেয়ে প্রীমা আক্তার জানিয়েছে, সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে তার মা বাথরুমে যায়। বাথরুম বসত ঘর থেকে একটু দূরে, জঙ্গলের দিকে। এ সময় মায়ের চিৎকার শুনে তারা দৌড়ে সেখানে পৌঁছে দেখেন মায়ের সারা শরীর রক্তাক্ত। গলার কাছে ধারালো অস্ত্রের দুটি আঘাত রয়েছে। তিনি (নিলুফা আক্তার) বলেন অজ্ঞাত পরিচয় এক মহিলা তাকে পেছন থেকে জড়িয়ে ধরে ছুরি দিয়ে গলা কাটতে চেয়েছিল।

এরপর বাড়ির লোকেরা তাকে প্রথমে ভালুকা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও পরে মমেক হাসপাতালে ভর্তি করেন। রাত সাড়ে ১১টার দিকে সেখানে তার অস্ত্রোপচার করা হয়।

গফরগাঁও থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ আব্দুল আহাদ খাঁন গণমাধ্যমকে জানান, খবর পাওয়ার পরপরই পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে। ঘটনার বিভিন্ন বিষয় খতিয়ে দেখা হচ্ছে।