ঢাকা ০৪:৪৮ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২৩ জুন ২০২৪, ৮ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম :




বিয়ের ১১ বছর পর এক সঙ্গে ৪ সন্তান!

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৯:৩৯:২৬ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২৬ মে ২০১৯ ৬৩ বার পড়া হয়েছে

নাটোরে একসঙ্গে ৪ সন্তানের জন্ম দিয়েছেন শাহিদা বেগম (৩০) নামে এক মা। আজ শনিবার (২৫ মে) দুপুর ১টা ৫৫ মিনিটের দিকে নাটোর আধুনিক সদর হাসপাতালে এই চার সন্তানের জন্ম দেন তিনি। চার সন্তানের মধ্যে একজন ছেলে ও তিনজন কন্যা সন্তান।

এদিকে এক মা একসাথে চার সন্তান জন্ম দেওয়ার খবর ছড়িয়ে পড়লে বিভিন্ন বয়সের শত শত নারী পুরুষ হাসপাতালে গিয়ে ভিড় করেন নবজাতকদের এক নজর দেখার জন্য।

শাহিদা আক্তারের স্বামী মিলন জানান, প্রায় ১১ বছর আগে তাদের বিয়ে হলেও দীর্ঘদিন তার স্ত্রীর কোনো সন্তান হয়নি। বিয়ে দীর্ঘদিন পর প্রথম তাদের ঘরে এক সঙ্গে চার সন্তান এসেছে।

মিলন আরও জানান, সকালে তার স্ত্রীর প্রসব ব্যাথা উঠলে তাকে নাটোর সদর হাসপাতালে নিয়ে এসে ভর্তি করেন তারা। পরে দুপুর ২টার দিকে হাসাপাতালের চিকিৎসক ফজলুল কাদিরের তত্বাবধানে শাহিদা একে একে চার সন্তানের জন্ম দেন। পরে সদ্য প্রসূত চার সন্তান ও মা শাহিদাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়।

সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার মাহবুবুর রহমান জানান, শাহিদা বেগম শনিবার বেলা ১টা ৪৬ মিনিটের সময় প্রসব বেদনা নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়। গাইনী ওয়ার্ডে নেওয়ার পরপরই দুপুর ১টা ৫৫ মিনিটের সময় প্রথম সন্তান জন্ম নেয়। এরপর একে একে আরও তিন সন্তানের জন্ম হয়। পরপর তিন কন্যা সন্তানের পর শেষে ছেলে সন্তান ভূমিষ্ঠ হয়।

মাহবুবুর রহমান আরও জানান, জন্ম নেওয়া চার শিশুর মধ্যে দুজনের অবস্থা আশঙ্কাজন। তাই চার সন্তান ও মা শাহিদাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :




বিয়ের ১১ বছর পর এক সঙ্গে ৪ সন্তান!

আপডেট সময় : ০৯:৩৯:২৬ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২৬ মে ২০১৯

নাটোরে একসঙ্গে ৪ সন্তানের জন্ম দিয়েছেন শাহিদা বেগম (৩০) নামে এক মা। আজ শনিবার (২৫ মে) দুপুর ১টা ৫৫ মিনিটের দিকে নাটোর আধুনিক সদর হাসপাতালে এই চার সন্তানের জন্ম দেন তিনি। চার সন্তানের মধ্যে একজন ছেলে ও তিনজন কন্যা সন্তান।

এদিকে এক মা একসাথে চার সন্তান জন্ম দেওয়ার খবর ছড়িয়ে পড়লে বিভিন্ন বয়সের শত শত নারী পুরুষ হাসপাতালে গিয়ে ভিড় করেন নবজাতকদের এক নজর দেখার জন্য।

শাহিদা আক্তারের স্বামী মিলন জানান, প্রায় ১১ বছর আগে তাদের বিয়ে হলেও দীর্ঘদিন তার স্ত্রীর কোনো সন্তান হয়নি। বিয়ে দীর্ঘদিন পর প্রথম তাদের ঘরে এক সঙ্গে চার সন্তান এসেছে।

মিলন আরও জানান, সকালে তার স্ত্রীর প্রসব ব্যাথা উঠলে তাকে নাটোর সদর হাসপাতালে নিয়ে এসে ভর্তি করেন তারা। পরে দুপুর ২টার দিকে হাসাপাতালের চিকিৎসক ফজলুল কাদিরের তত্বাবধানে শাহিদা একে একে চার সন্তানের জন্ম দেন। পরে সদ্য প্রসূত চার সন্তান ও মা শাহিদাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়।

সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার মাহবুবুর রহমান জানান, শাহিদা বেগম শনিবার বেলা ১টা ৪৬ মিনিটের সময় প্রসব বেদনা নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়। গাইনী ওয়ার্ডে নেওয়ার পরপরই দুপুর ১টা ৫৫ মিনিটের সময় প্রথম সন্তান জন্ম নেয়। এরপর একে একে আরও তিন সন্তানের জন্ম হয়। পরপর তিন কন্যা সন্তানের পর শেষে ছেলে সন্তান ভূমিষ্ঠ হয়।

মাহবুবুর রহমান আরও জানান, জন্ম নেওয়া চার শিশুর মধ্যে দুজনের অবস্থা আশঙ্কাজন। তাই চার সন্তান ও মা শাহিদাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।