ঢাকা ০৮:৫৫ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০২৪, ১ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম :
Logo নিরাপত্তার স্বার্থে শাবি শিক্ষার্থীদের আইডিকার্ড সাথে রাখার আহবান বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের Logo জনস্বাস্থ্যের প্রধান সাধুর যত অসাধু কর্ম: দুর্নীতি ও অর্থ পাচারের অভিযোগ! Logo বিআইডব্লিউটিএ বন্দর শাখা যুগ্ম পরিচালক আলমগীরের দুর্নীতি ও ঘুষ বাণিজ্য  Logo রাজশাহীতে এটিএন বাংলার সাংবাদিক সুজাউদ্দিন ছোটনকে হয়রানিমূলক মামলায় বএিমইউজরে নিন্দা ও প্রতিবাদ Logo শিক্ষার্থীদের তথ্য প্রযুক্তিতে দক্ষ হয়ে স্মার্ট বাংলাদেশ গড়ায় অবদান রাখতে হবেঃ ড. তৌফিক রহমান চৌধুরী Logo ‘কানামাছি শিশুসাহিত্য পুরস্কার ২০২৪’ পেলেন লেখক Logo মধ্যরাতে শাবি ছাত্রলীগের ‘ তুমি কে, আমি কে- বাঙ্গালী, বাঙ্গালী’ শ্লোগানে উত্তাল ক্যাম্পাস Logo আম নিয়ে কষ্টগাঁথা Logo ঘুমান্ত বিবেক মাতাল আবেগ’ – আকাশমণি Logo পুলিশের হামলার পরও ৬ ঘন্টা ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক অবরোধে কুবি শিক্ষার্থীর




সওজ’ র সিবিএ নেতা ফারুকের লালসার শিকার তরুণী: বিচারের আশায় ঘুরছে রাস্তায়! 

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১২:৪৪:১১ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ৩ জুলাই ২০২৪ ৮০ বার পড়া হয়েছে

সকালের সংবাদ, ঢাকা: এতিমখানায় থেকে বড় হয়েছেন ঈশিতা স্বপ্ন ছিল গানের মধ্যে নিজের প্রতিভা ফুটিয়ে তুলবেন। গান গেয়ে যে অর্থ উপার্জন করবে মা পরিবারকে একটু সহযোগিতা করবেন কিন্তু এই গান তার জন্য কাল হলো।

মিরপুরে মাজারে গান গাইতে গিয়ে ঘটনার সূত্রপাত, ঈশিতা ওপর খারাপ নজর পরে সড়ক-জনপথের সিবিএ নেতা আকতার ফারুকের। কৌশলে গানের প্রোগ্রাম দেওয়ার কথা বলে তার নাম্বার নেন, ঈশিতা সরল মনেতার পরিবারের আর্থিক সমস্যা ও বাবা নেই দুই বোন এক ভাই, ভাইটিও প্রতিবন্ধী কথা জানান।

সিবিএ নেতা ফারুক তার ঈশিতার বড় বোন এবং ঈশিতাকে সরকারি চাকরি প্রতিশ্রুতি দেন এবং বিটিভিতে গান গাওয়া ব্যবস্থা করে দিবেন মিথ্যা প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন জানান ঈশিত।

ঈশিতা আরও জানান ,ফারুক তাকে ফোন করেন এবং তার বড় বোনের খোঁজখবর নেন। যখনি ঈশিতা বলেন তার বোন হাসপাতালে গিয়েছেলেন তখনই ফারুক দ্রুত বাসায় এসে তাকে ধর্ষণ করে কয়েকদিন পর সে জানতে পারে গর্ভবতী। ঈশিতা সন্তানের বাবার পরিচয় দিতে ফারুক জানালেন তাকে গর্বের সন্তান নষ্ট করতে নির্দেশ দেন। সন্তান নষ্ট করবেন না পরিষ্কার জানিয়ে দেয় ঈশিতা। কয়েকদিন পর সে জানতে পারে তাকে তালাক দেওয়া হয়েছে।

ঈশিতা বলেন, আমার তো বিয়েই হয়নি তালাক দেওয়া হয়েছে কিভাবে?

এদিকে সন্তানের পিতৃতের পরিচয় দিতে স্থানীয় কাউন্সিলর গেছে তিনি ঢাকা ১৪ আসনের সংসদ সদস্য মাইনুল হোসেন খানের কাছে যাওয়ার পরামর্শ দেন স্থানীয় কাউন্সিলর। এবং ঈশিতা সংসদ সদস্য গিয়ে তার কথাগুলো বলেন এবং সংসদ এতিম অসহায় ইশিতার কথাগুলো গুরুত্ব সহকারে শুনে দ্রুত ১০ লাখ টাকা কাবিন বিয়ে করার নির্দেশ দেন। যাদেরকে বিয়ের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে  তারা ৫ লাখ টাকার কাবিনে ঈশিতা সাথে সিবিএ নেতা আকতার ফারুক বিয়ে দেওয়া হয়। ঈশিতা তার সন্তানের বাবার পরিচয় পেলেও তারও সন্তানের টাকা খাওয়া কোন ব্যবস্থা করেননি সিবিএ নেতা ফারুক।

এদিকে কয়েকদিন পর ইশিতা জানতে পারে তাকে আবারও দেওয়া হয়েছে কাবিনের টাকা না দিয়ে তালাক। ন্যায় বিচার পাওয়ার আশায় এখনো ধারে ধারে ঘুরছেন ঈশিতা। বিষয়টা নিয়ে বেশি বাড়াবাড়ি করলে মিথ্যা মামলা তাকে হয়রানি করা হবে এবং দেওয়া হচ্ছে হুমকি ধামকি জানান ঈশিতা।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :




সওজ’ র সিবিএ নেতা ফারুকের লালসার শিকার তরুণী: বিচারের আশায় ঘুরছে রাস্তায়! 

আপডেট সময় : ১২:৪৪:১১ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ৩ জুলাই ২০২৪

সকালের সংবাদ, ঢাকা: এতিমখানায় থেকে বড় হয়েছেন ঈশিতা স্বপ্ন ছিল গানের মধ্যে নিজের প্রতিভা ফুটিয়ে তুলবেন। গান গেয়ে যে অর্থ উপার্জন করবে মা পরিবারকে একটু সহযোগিতা করবেন কিন্তু এই গান তার জন্য কাল হলো।

মিরপুরে মাজারে গান গাইতে গিয়ে ঘটনার সূত্রপাত, ঈশিতা ওপর খারাপ নজর পরে সড়ক-জনপথের সিবিএ নেতা আকতার ফারুকের। কৌশলে গানের প্রোগ্রাম দেওয়ার কথা বলে তার নাম্বার নেন, ঈশিতা সরল মনেতার পরিবারের আর্থিক সমস্যা ও বাবা নেই দুই বোন এক ভাই, ভাইটিও প্রতিবন্ধী কথা জানান।

সিবিএ নেতা ফারুক তার ঈশিতার বড় বোন এবং ঈশিতাকে সরকারি চাকরি প্রতিশ্রুতি দেন এবং বিটিভিতে গান গাওয়া ব্যবস্থা করে দিবেন মিথ্যা প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন জানান ঈশিত।

ঈশিতা আরও জানান ,ফারুক তাকে ফোন করেন এবং তার বড় বোনের খোঁজখবর নেন। যখনি ঈশিতা বলেন তার বোন হাসপাতালে গিয়েছেলেন তখনই ফারুক দ্রুত বাসায় এসে তাকে ধর্ষণ করে কয়েকদিন পর সে জানতে পারে গর্ভবতী। ঈশিতা সন্তানের বাবার পরিচয় দিতে ফারুক জানালেন তাকে গর্বের সন্তান নষ্ট করতে নির্দেশ দেন। সন্তান নষ্ট করবেন না পরিষ্কার জানিয়ে দেয় ঈশিতা। কয়েকদিন পর সে জানতে পারে তাকে তালাক দেওয়া হয়েছে।

ঈশিতা বলেন, আমার তো বিয়েই হয়নি তালাক দেওয়া হয়েছে কিভাবে?

এদিকে সন্তানের পিতৃতের পরিচয় দিতে স্থানীয় কাউন্সিলর গেছে তিনি ঢাকা ১৪ আসনের সংসদ সদস্য মাইনুল হোসেন খানের কাছে যাওয়ার পরামর্শ দেন স্থানীয় কাউন্সিলর। এবং ঈশিতা সংসদ সদস্য গিয়ে তার কথাগুলো বলেন এবং সংসদ এতিম অসহায় ইশিতার কথাগুলো গুরুত্ব সহকারে শুনে দ্রুত ১০ লাখ টাকা কাবিন বিয়ে করার নির্দেশ দেন। যাদেরকে বিয়ের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে  তারা ৫ লাখ টাকার কাবিনে ঈশিতা সাথে সিবিএ নেতা আকতার ফারুক বিয়ে দেওয়া হয়। ঈশিতা তার সন্তানের বাবার পরিচয় পেলেও তারও সন্তানের টাকা খাওয়া কোন ব্যবস্থা করেননি সিবিএ নেতা ফারুক।

এদিকে কয়েকদিন পর ইশিতা জানতে পারে তাকে আবারও দেওয়া হয়েছে কাবিনের টাকা না দিয়ে তালাক। ন্যায় বিচার পাওয়ার আশায় এখনো ধারে ধারে ঘুরছেন ঈশিতা। বিষয়টা নিয়ে বেশি বাড়াবাড়ি করলে মিথ্যা মামলা তাকে হয়রানি করা হবে এবং দেওয়া হচ্ছে হুমকি ধামকি জানান ঈশিতা।