ঢাকা ০৩:৫৪ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২৩ জুন ২০২৪, ৮ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম :




ভেজাল দুধের পুঙ্খানুপুঙ্খ প্রতিবেদন চেয়েছে হাইকোর্ট

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৪:০২:৩০ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৫ মে ২০১৯ ১২৭ বার পড়া হয়েছে

নিজস্ব প্রতিবেদক |
যেসব কোম্পানির তরল দুধে ভেজাল ও ক্ষতিকর ক্ষতিকর পদার্থ আছে সেগুলোর পুঙ্খানুপুঙ্খ প্রতিবেদন চেয়েছে হাইকোর্ট। এত বড় একটি জনস্বাস্থ্য বিষয় নিয়ে বিএসটিআইয়ের নীরবতায় বিস্ময় প্রকাশ করে আদালত।

কোম্পানি গুলোর নামসহ পরিপূর্ণ প্রতিবেদন দিতে বিএসটিআইকে নির্দেশ দেয়া হয়। বিএসটিআই পরিপূর্ণ প্রতিবেদন দিতে এক মাস সময় চেয়েছে। এ বিষয়ে পরবর্তী আদেশের জন্য ১৬ জুন সময় নির্ধারণ করেছে আদালত।

আদালত প্রশ্ন তুলে বলেছে কিভাবে ভেজাল দুধে বাজার সয়লাব হয় সে বিষয়ে বিএসটিআইয়ের বিবেক কি দংশন করে না!

গবেষণায় দেখা যায়, বাজারে কাঁচা দুধে ক্ষতিকর মাত্রায় টিপিসি ও কলিফরম রয়েছে। প্যাকেটের তরল দুধের ২১টি নমুনার মধ্যে ১৭টিতে ক্ষতিকর উপাদানের উপস্থিতি পাওয়া যায়। পরীক্ষা করা বিদেশি ১০টি প্যাকেটেরও একই অবস্থা। তবে কোন কোম্পানির দুধে এসব ক্ষতিকর পদার্থ পাওয়া গেছে তা প্রকাশ করা হয়নি।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :




ভেজাল দুধের পুঙ্খানুপুঙ্খ প্রতিবেদন চেয়েছে হাইকোর্ট

আপডেট সময় : ০৪:০২:৩০ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৫ মে ২০১৯

নিজস্ব প্রতিবেদক |
যেসব কোম্পানির তরল দুধে ভেজাল ও ক্ষতিকর ক্ষতিকর পদার্থ আছে সেগুলোর পুঙ্খানুপুঙ্খ প্রতিবেদন চেয়েছে হাইকোর্ট। এত বড় একটি জনস্বাস্থ্য বিষয় নিয়ে বিএসটিআইয়ের নীরবতায় বিস্ময় প্রকাশ করে আদালত।

কোম্পানি গুলোর নামসহ পরিপূর্ণ প্রতিবেদন দিতে বিএসটিআইকে নির্দেশ দেয়া হয়। বিএসটিআই পরিপূর্ণ প্রতিবেদন দিতে এক মাস সময় চেয়েছে। এ বিষয়ে পরবর্তী আদেশের জন্য ১৬ জুন সময় নির্ধারণ করেছে আদালত।

আদালত প্রশ্ন তুলে বলেছে কিভাবে ভেজাল দুধে বাজার সয়লাব হয় সে বিষয়ে বিএসটিআইয়ের বিবেক কি দংশন করে না!

গবেষণায় দেখা যায়, বাজারে কাঁচা দুধে ক্ষতিকর মাত্রায় টিপিসি ও কলিফরম রয়েছে। প্যাকেটের তরল দুধের ২১টি নমুনার মধ্যে ১৭টিতে ক্ষতিকর উপাদানের উপস্থিতি পাওয়া যায়। পরীক্ষা করা বিদেশি ১০টি প্যাকেটেরও একই অবস্থা। তবে কোন কোম্পানির দুধে এসব ক্ষতিকর পদার্থ পাওয়া গেছে তা প্রকাশ করা হয়নি।