ঢাকা ০৭:২৯ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ০৫ মার্চ ২০২৪, ২২ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ




বঙ্গবন্ধুর আদর্শ ধারণ করে নতুন প্রজন্মকে স্মার্ট বাংলাদেশের দিকে এগিয়ে নিতে হবেঃ ভিসি প্রফেসর ড. মোহাম্মদ জহিরুল হক

প্রতিনিধি, সিলেট
  • আপডেট সময় : ০৪:০৬:১২ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৭ মার্চ ২০২৩ ১০২ বার পড়া হয়েছে

মেট্রোপলিটন ইউনিভার্সিটির ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মোহাম্মদ জহিরুল হক বলেছেন, “বাংলাদেশের স্বাধীনতা বিশ্বের বুকে এক বিষ্ময়। এর স্থপতি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান । ধর্ম, বর্ণ, পেশা, সামাজিক অবস্থান নির্বিশেষে দেশের সকল মানুষ নেতা ছিলেন তিনি। তিনি সঠিকভাবে গণতন্ত্র ও সমাজতন্ত্রের সম্মিলন ঘটিয়েছিলেন। বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন ছিল সুদূরপ্রসারী। বঙ্গবন্ধুর চিন্তাচেতনা ছিল দলমতের উর্ধ্বে। ১৯৬৬ সালের ছয়দফা কর্মসূচি ছিল অসাধারণ রাজনৈতিক প্রজ্ঞা ও একজন সফল রাষ্ট্রনায়কের চিন্তার প্রতিফলন। ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মোহাম্মদ জহিরুল হক আরও বলেন, বঙ্গবন্ধু শিশুদের বিষয়ে খুবই মনোযোগী ছিলেন। তিনি শিশুদের উন্নয়নে প্রভূত কাজ করেছেন। আমরা শিশদের ব্যাপারে আরও যত্নশীল হতে হবে। বঙ্গবন্ধুর আদর্শ ধারণ করে নতুন প্রজন্মকে স্মার্ট বাংলাদেশের দিকে এগিয়ে নিতে হবে।”

 

শুক্রবার (১৭ মার্চ) জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ১০৩তম জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশুদিবস ২০২৩ উদযাপন উপলক্ষ্যে মেট্রোপলিটন ইউনিভার্সিটি আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি উপর্যুক্ত কথাগুলো বলেন ।

 

এদিন সকাল সাড়ে নয়টায় প্রফেসর এম. হাবিবুর রহমান হলে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন প্রো-ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর শিব প্রসাদ সেন। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ১০৩তম জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশুদিবস ২০২৩ উদযাপন কমিটির সদস্য সচিব এবং আইন ও বিচার বিভাগের প্রধান গাজী সাইফুল হাসানের সঞ্চালনায় ও আহ্বায়ক এবং ব্যবসা ও অর্থনীতি অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. মো. তাহের বিল্লাল খলিফার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন ইউনিভার্সিটির রেজিস্ট্রার তারেক ইসলাম। আলোচনা সভায় মূখ্য আলোচক ছিলেন আইন অনুষদের ভারপ্রাপ্ত ডিন সহযোগী অধ্যাপক শেখ আশরাফুর রহমান। আরও বক্তব্য রাখেন বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. মো. নজরুল হক চৌধুরী, ছাত্রকল্যাণ উপদেষ্টা প্রফেসর চৌধুরী এম. মোকাম্মেল ওয়াহিদ, প্রক্টর প্রফেসর ড. মোহাম্মদ জামাল উদ্দিন ও ডেপুটি রেজিস্ট্রার মিহিরকান্তি চৌধুরী, প্রমূখ।

যথাযোগ্য মর্যাদায় বিভিন্ন কর্মসূচির মধ্য দিয়ে মেট্রোপলিটন ইউনিভার্সিটি দিবসটি পালন করেছে। ইউনিভার্সিটির জনসংযোগ দফতর থেকে পাঠানো সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়। সকাল নয়টায় বটেশ্বর স্থায়ী ক্যাম্পাসে জাতীয় পতাকা ও ইউনিভার্সিটির পতাকা উত্তোলন করেন যথাক্রমে ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মোহাম্মদ জহিরুল হক ও প্রো-ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর শিব প্রসাদ সেন। সকাল সোয়া নয়টায় ইউনিভার্সিটির স্থায়ী ক্যাম্পাসে ভাইস চ্যান্সেলরের নেতৃত্বে ছাত্রছাত্রী, শিক্ষক, কর্মকর্তা, কর্মচারীবৃন্দ জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন। জাতীয় পতাকা উত্তোলন ও পুষ্পস্তবক অর্পণ পর্ব পরিচালনা করেন ইউনিভার্সিটির রোভার স্কাউটস।

এছাড়া মেট্রোপলিটন ইউনিভার্সিটির ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মোহাম্মদ জহিরুল হক সকল অতিথি, শিক্ষক, কর্মকর্তা, শিক্ষার্থী, উপস্থিত শিশু ও কর্মচারীদের নিয়ে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ১০৩তম জন্মবার্ষিকী উপলষ্যে বিশাল কেক কাটেন। আলোচনাসভা শেষে শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহনে এক মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। সকালে ইউনিভার্সিটির শিক্ষক, কর্মকর্তা ও কর্মচারীবৃন্দের সন্তানদের মধ্যে চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা বিজয়ী প্রতিযোগীদের মধ্যে পুরষ্কার বিতরণ করেন প্রধান অতিথিসহ অন্য অতিথিবৃন্দ।

অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন বিভিন্ন বিভাগের প্রধান ও শিক্ষকবৃন্দ, পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক খন্দকার মকসুদ আহমেদ, আইকিউএসির অতিরিক্ত পরিচালক (ইএলটি) ও ইংরেজি বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. রমা ইসলাম, পরিচালক (অর্থ) মো. ইনামুল হক, ডেপুটি লাইব্রেরিয়ান মাশরুফ আহমেদ চৌধুরীসহ অন্য কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :




বঙ্গবন্ধুর আদর্শ ধারণ করে নতুন প্রজন্মকে স্মার্ট বাংলাদেশের দিকে এগিয়ে নিতে হবেঃ ভিসি প্রফেসর ড. মোহাম্মদ জহিরুল হক

আপডেট সময় : ০৪:০৬:১২ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৭ মার্চ ২০২৩

মেট্রোপলিটন ইউনিভার্সিটির ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মোহাম্মদ জহিরুল হক বলেছেন, “বাংলাদেশের স্বাধীনতা বিশ্বের বুকে এক বিষ্ময়। এর স্থপতি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান । ধর্ম, বর্ণ, পেশা, সামাজিক অবস্থান নির্বিশেষে দেশের সকল মানুষ নেতা ছিলেন তিনি। তিনি সঠিকভাবে গণতন্ত্র ও সমাজতন্ত্রের সম্মিলন ঘটিয়েছিলেন। বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন ছিল সুদূরপ্রসারী। বঙ্গবন্ধুর চিন্তাচেতনা ছিল দলমতের উর্ধ্বে। ১৯৬৬ সালের ছয়দফা কর্মসূচি ছিল অসাধারণ রাজনৈতিক প্রজ্ঞা ও একজন সফল রাষ্ট্রনায়কের চিন্তার প্রতিফলন। ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মোহাম্মদ জহিরুল হক আরও বলেন, বঙ্গবন্ধু শিশুদের বিষয়ে খুবই মনোযোগী ছিলেন। তিনি শিশুদের উন্নয়নে প্রভূত কাজ করেছেন। আমরা শিশদের ব্যাপারে আরও যত্নশীল হতে হবে। বঙ্গবন্ধুর আদর্শ ধারণ করে নতুন প্রজন্মকে স্মার্ট বাংলাদেশের দিকে এগিয়ে নিতে হবে।”

 

শুক্রবার (১৭ মার্চ) জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ১০৩তম জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশুদিবস ২০২৩ উদযাপন উপলক্ষ্যে মেট্রোপলিটন ইউনিভার্সিটি আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি উপর্যুক্ত কথাগুলো বলেন ।

 

এদিন সকাল সাড়ে নয়টায় প্রফেসর এম. হাবিবুর রহমান হলে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন প্রো-ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর শিব প্রসাদ সেন। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ১০৩তম জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশুদিবস ২০২৩ উদযাপন কমিটির সদস্য সচিব এবং আইন ও বিচার বিভাগের প্রধান গাজী সাইফুল হাসানের সঞ্চালনায় ও আহ্বায়ক এবং ব্যবসা ও অর্থনীতি অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. মো. তাহের বিল্লাল খলিফার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন ইউনিভার্সিটির রেজিস্ট্রার তারেক ইসলাম। আলোচনা সভায় মূখ্য আলোচক ছিলেন আইন অনুষদের ভারপ্রাপ্ত ডিন সহযোগী অধ্যাপক শেখ আশরাফুর রহমান। আরও বক্তব্য রাখেন বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. মো. নজরুল হক চৌধুরী, ছাত্রকল্যাণ উপদেষ্টা প্রফেসর চৌধুরী এম. মোকাম্মেল ওয়াহিদ, প্রক্টর প্রফেসর ড. মোহাম্মদ জামাল উদ্দিন ও ডেপুটি রেজিস্ট্রার মিহিরকান্তি চৌধুরী, প্রমূখ।

যথাযোগ্য মর্যাদায় বিভিন্ন কর্মসূচির মধ্য দিয়ে মেট্রোপলিটন ইউনিভার্সিটি দিবসটি পালন করেছে। ইউনিভার্সিটির জনসংযোগ দফতর থেকে পাঠানো সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়। সকাল নয়টায় বটেশ্বর স্থায়ী ক্যাম্পাসে জাতীয় পতাকা ও ইউনিভার্সিটির পতাকা উত্তোলন করেন যথাক্রমে ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মোহাম্মদ জহিরুল হক ও প্রো-ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর শিব প্রসাদ সেন। সকাল সোয়া নয়টায় ইউনিভার্সিটির স্থায়ী ক্যাম্পাসে ভাইস চ্যান্সেলরের নেতৃত্বে ছাত্রছাত্রী, শিক্ষক, কর্মকর্তা, কর্মচারীবৃন্দ জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন। জাতীয় পতাকা উত্তোলন ও পুষ্পস্তবক অর্পণ পর্ব পরিচালনা করেন ইউনিভার্সিটির রোভার স্কাউটস।

এছাড়া মেট্রোপলিটন ইউনিভার্সিটির ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মোহাম্মদ জহিরুল হক সকল অতিথি, শিক্ষক, কর্মকর্তা, শিক্ষার্থী, উপস্থিত শিশু ও কর্মচারীদের নিয়ে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ১০৩তম জন্মবার্ষিকী উপলষ্যে বিশাল কেক কাটেন। আলোচনাসভা শেষে শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহনে এক মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। সকালে ইউনিভার্সিটির শিক্ষক, কর্মকর্তা ও কর্মচারীবৃন্দের সন্তানদের মধ্যে চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা বিজয়ী প্রতিযোগীদের মধ্যে পুরষ্কার বিতরণ করেন প্রধান অতিথিসহ অন্য অতিথিবৃন্দ।

অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন বিভিন্ন বিভাগের প্রধান ও শিক্ষকবৃন্দ, পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক খন্দকার মকসুদ আহমেদ, আইকিউএসির অতিরিক্ত পরিচালক (ইএলটি) ও ইংরেজি বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. রমা ইসলাম, পরিচালক (অর্থ) মো. ইনামুল হক, ডেপুটি লাইব্রেরিয়ান মাশরুফ আহমেদ চৌধুরীসহ অন্য কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ।