ঢাকা ০৩:৫৬ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল ২০২৪, ১১ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম :
Logo মানসম্পন্ন শিক্ষা নিশ্চিত করা আমাদের অঙ্গীকারঃ ড. তৌফিক রহমান চৌধুরী  Logo মেট্রোপলিটন ইউনিভার্সিটির নতুন বাসের উদ্বোধন Logo মানসম্পন্ন শিক্ষা নিশ্চিত করতে শিক্ষকদের ভূমিকা অগ্রগণ্য: ভিসি প্রফেসর ড. মোহাম্মদ জহিরুল হক Logo মঙ্গল শোভাযাত্রা – তাসফিয়া ফারহানা ঐশী Logo সাস্টিয়ান ব্রাহ্মণবাড়িয়া এর ইফতার মাহফিল সম্পন্ন Logo কুবির চট্টগ্রাম স্টুডেন্টস ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশনের ইফতার ও পূর্নমিলনী Logo অধ্যাপক জহীর উদ্দিন আহমেদের মায়ের মৃত্যুতে শাবির মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও মুক্ত চিন্তা চর্চায় ঐক্যবদ্ধ শিক্ষকবৃন্দ পরিষদের শোক প্রকাশ Logo শাবির অধ্যাপক জহীর উদ্দিনের মায়ের মৃত্যুতে উপাচার্যের শোক প্রকাশ Logo বিশ কোটিতে গণপূর্তের প্রধান হওয়ার মিশনে ‘ছাত্রদল ক্যাডার প্রকৌশলী’! Logo দূর্নীতির রাক্ষস ফায়ার সার্ভিসের এডি আনোয়ার!




বিয়ের ‘প্রলোভনে’ গৃহবধূকে ৮ বছর ধরে ‘ধর্ষণ’

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১০:২০:৪৯ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১০ ডিসেম্বর ২০২১ ১১৫ বার পড়া হয়েছে

বগুড়া ব্যুরো: বগুড়ার ধুনটে বিয়ের প্রলোভনে এক গৃহবধূকে (৪৫) আট বছর ধরে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় জড়িত থাকায় পুলিশ বৃহস্পতিবার রাতে তার প্রতিবেশী উপজেলার মথুরাপুর ইউনিয়নের খাদুলী সাতানীপাড়া গ্রামের সানোয়ার হোসেনকে (৫০) গ্রেফতার করেছে।

এর আগে প্রতারণার শিকার ওই গৃহবধূ তার বিরুদ্ধে ধুনট থানায় মামলা করেন। শুক্রবার তাকে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে। ওসি কৃপা সিন্ধু বালা ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

এজাহার সূত্র ও স্থানীয়রা জানান, ধুনট উপজেলার চৌকিবাড়ী ইউনিয়নের বিষ্ণুপুর গ্রামের জনৈক ব্যক্তির মেয়ের পার্শ্ববর্তী মথুরাপুর ইউনিয়নের খাদুলী সাতানীপাড়া গ্রামে বিয়ে হয়। তাদের সংসারে তিন ছেলের মধ্যে একজন অন্ধ। স্বামী জীবিকার তাগিদে অন্য দুই ছেলেকে নিয়ে ঢাকায় থাকেন। এ সুযোগে প্রতিবেশী দুই সন্তানের জনক সানোয়ার হোসেন গৃহবধূকে বিয়ের প্রলোভন দেন। একপর্যায়ে রাজি হওয়ায় স্বামী ও সন্তানদের অগোচরে গত আট বছর ধরে তাকে ধর্ষণ করে আসছে।

গৃহবধূ এজাহারে উল্লেখ করেছেন, গত ৮ ডিসেম্বর অন্ধ ছেলে বাড়িতে না থাকায় সানোয়ার বাড়িতে ঢুকে শারীরিক সম্পর্ক করতে চায়। বিয়ে করতে বললে সানোয়ার অস্বীকৃতি জানায় ও ধর্ষণ করে কৌশলে সটকে পড়ে। পরে গৃহবধূ গ্রামের মাতবরদের কাছে নালিশ করে বিচার না পাওয়ায় বৃহস্পতিবার বিকালে ধুনট থানায় প্রতিবেশী মৃত আলতাব হোসেনের ছেলে সানোয়ারের বিরুদ্ধে মামলা করেন।

ধুনট থানার ওসি কৃপা সিন্ধু বালা জানান, মামলাটি রেকর্ড ও বৃহস্পতিবার রাত ১০টার পর বাড়িতে অভিযান চালিয়ে আসামি সানোয়ার হোসেনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। শুক্রবার তাকে আদালতের মাধ্যমে বগুড়া জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে। ভিকটিমের ডাক্তারি পরীক্ষা ও অন্যান্য আইনি কার্যক্রম চলছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :




বিয়ের ‘প্রলোভনে’ গৃহবধূকে ৮ বছর ধরে ‘ধর্ষণ’

আপডেট সময় : ১০:২০:৪৯ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১০ ডিসেম্বর ২০২১

বগুড়া ব্যুরো: বগুড়ার ধুনটে বিয়ের প্রলোভনে এক গৃহবধূকে (৪৫) আট বছর ধরে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় জড়িত থাকায় পুলিশ বৃহস্পতিবার রাতে তার প্রতিবেশী উপজেলার মথুরাপুর ইউনিয়নের খাদুলী সাতানীপাড়া গ্রামের সানোয়ার হোসেনকে (৫০) গ্রেফতার করেছে।

এর আগে প্রতারণার শিকার ওই গৃহবধূ তার বিরুদ্ধে ধুনট থানায় মামলা করেন। শুক্রবার তাকে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে। ওসি কৃপা সিন্ধু বালা ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

এজাহার সূত্র ও স্থানীয়রা জানান, ধুনট উপজেলার চৌকিবাড়ী ইউনিয়নের বিষ্ণুপুর গ্রামের জনৈক ব্যক্তির মেয়ের পার্শ্ববর্তী মথুরাপুর ইউনিয়নের খাদুলী সাতানীপাড়া গ্রামে বিয়ে হয়। তাদের সংসারে তিন ছেলের মধ্যে একজন অন্ধ। স্বামী জীবিকার তাগিদে অন্য দুই ছেলেকে নিয়ে ঢাকায় থাকেন। এ সুযোগে প্রতিবেশী দুই সন্তানের জনক সানোয়ার হোসেন গৃহবধূকে বিয়ের প্রলোভন দেন। একপর্যায়ে রাজি হওয়ায় স্বামী ও সন্তানদের অগোচরে গত আট বছর ধরে তাকে ধর্ষণ করে আসছে।

গৃহবধূ এজাহারে উল্লেখ করেছেন, গত ৮ ডিসেম্বর অন্ধ ছেলে বাড়িতে না থাকায় সানোয়ার বাড়িতে ঢুকে শারীরিক সম্পর্ক করতে চায়। বিয়ে করতে বললে সানোয়ার অস্বীকৃতি জানায় ও ধর্ষণ করে কৌশলে সটকে পড়ে। পরে গৃহবধূ গ্রামের মাতবরদের কাছে নালিশ করে বিচার না পাওয়ায় বৃহস্পতিবার বিকালে ধুনট থানায় প্রতিবেশী মৃত আলতাব হোসেনের ছেলে সানোয়ারের বিরুদ্ধে মামলা করেন।

ধুনট থানার ওসি কৃপা সিন্ধু বালা জানান, মামলাটি রেকর্ড ও বৃহস্পতিবার রাত ১০টার পর বাড়িতে অভিযান চালিয়ে আসামি সানোয়ার হোসেনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। শুক্রবার তাকে আদালতের মাধ্যমে বগুড়া জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে। ভিকটিমের ডাক্তারি পরীক্ষা ও অন্যান্য আইনি কার্যক্রম চলছে।