ঢাকা ০৮:১৫ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১২ এপ্রিল ২০২৪, ২৯ চৈত্র ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম :
Logo সাস্টিয়ান ব্রাহ্মণবাড়িয়া এর ইফতার মাহফিল সম্পন্ন Logo কুবির চট্টগ্রাম স্টুডেন্টস ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশনের ইফতার ও পূর্নমিলনী Logo অধ্যাপক জহীর উদ্দিন আহমেদের মায়ের মৃত্যুতে শাবির মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও মুক্ত চিন্তা চর্চায় ঐক্যবদ্ধ শিক্ষকবৃন্দ পরিষদের শোক প্রকাশ Logo শাবির অধ্যাপক জহীর উদ্দিনের মায়ের মৃত্যুতে উপাচার্যের শোক প্রকাশ Logo বিশ কোটিতে গণপূর্তের প্রধান হওয়ার মিশনে ‘ছাত্রদল ক্যাডার প্রকৌশলী’! Logo দূর্নীতির রাক্ষস ফায়ার সার্ভিসের এডি আনোয়ার! Logo ঝড় ও শিলাবৃষ্টিতে ক্ষতি হওয়া শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয়ে অবকাঠামোর সংস্কার শুরু Logo বুয়েটে নিয়মতান্ত্রিক ছাত্র রাজনীতির দাবিতে শাবিপ্রবি ছাত্রলীগের মানববন্ধন Logo কুবি উপাচার্যের বক্তব্যের প্রমাণ দিতে শিক্ষক সমিতির সাত দিনের আল্টিমেটাম Logo কুবি বাংলা বিভাগের অ্যালামনাইদের ইফতার ও দোয়া মাহফিল




ধর্ষক আলী হোসেনের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি ভুক্তভোগী নারীর 

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০১:৩৩:১০ অপরাহ্ন, শনিবার, ২ জানুয়ারী ২০২১ ৯১ বার পড়া হয়েছে

সকালের সংবাদ ডেস্ক: পূর্বাশা টেক্সটাইল কোম্পানির কর্ণধার আলী হোসেনের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে সংবাদ সম্মেলন করেছেন ভুক্তভোগী নাহিদ পারভিন। তিনি একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে সেলস এন্ড মার্কেটিং কর্পোরেট নিয়ে এক্সিকিউটিভ পদে চাকরি করতেন।

চাকরি চলাকালীন সময়ে ভালুকাস্থ পূর্বাশা টেক্সটাইল লিমিটেডের একটি নতুন ফ্যাক্টরীর জন্য আমাদের কোম্পানি থেকে পণ্য ক্রয়ের আদেশ দেওয়া হয়। এসময় ওই কোম্পানির কর্ণধার আলী হোসেনের সাথে ভালুকা জেলা ময়মনসিংহ, বর্তমান ঠিকানা বাসা ১৩, রোড ১০ সেক্টর উত্তরায় কর্পোরেট গ্রাহক হিসাবে আমার সাথে পরিচয় ঘটে।

২০১৮ সালে ১৯ জানুয়ারি বিকেল ৫টায় আলী হোসেন তার উত্তরার অফিসে পণ্য ক্রয়ের আদেশ দেবেন বলে ডেকে নিয়ে যান ওই নারীকে,পরে জোরপূর্বক ধর্ষণ এবং গোপনে ভিডিও ও ছবি ধারণ করেন ।

শনিবার(২ জানুয়ারি২০২১) বাংলাদেশে ক্রাইম রিপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশন (ক্র্যাবে)
ধর্ষক আলী হোসেনের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে সংবাদ সম্মেলন করে নাহিদ পারভিন।

সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন,আলী হোসেন আমাকে ভয়-ভীতি দেখান এবং কাউকে এই ঘটনা বললে আমার সন্তানসহ আমাকে মেরে ফেলবেন। আমি লোকলজ্জা ও সন্তানের কথা ভেবে বিষয়টি গোপন রাখি এবং মানসিক বিপর্যয় হয়ে পড়লেও কাউকে কিছু বলার সাহস পাচ্ছিলাম না।

ধর্ষণের ঘটনার পরে অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়লে আলী হোসেন উত্তরা ১৩ নম্বর সেক্টরে অবস্থিত লুবানা হাসপাতালে নিয়ে গিয়ে ভয়-ভীতি দেখিয়ে আমার গর্ভপাত ঘটান।
পরে আত্মীয়-স্বজনদের পরামর্শে গত ১৯ অক্টোবর ২০২০ তারিখে উত্তরা পশ্চিম থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা করি যাহার নাম্বার(২৫)১০/২০২০।

মামলা করার পর তার লোকজন আমাকে এবং আমার সন্তানকে মেরে ফেলার জন্য ভয়-ভীতি দেখিয়ে আসছেন এবং মামলা তুলে নেওয়ার জন্য চাপ প্রয়োগ করছেন।
আমি ভয়ে সন্তানসহ নানা জায়গায় আত্মগোপন করে আছি।
আলী হোসেন উচ্চ আদালত থেকে জামিন নিয়ে আসেন প্রতিনিয়ত আমাকে বিভিন্নভাবে এবং পরিবারের সদস্যদের ভয়-ভীতি দেখাচ্ছেন।

তাদের ভয়ে আমার বৃদ্ধ মা-বাবা ও পরিবারের সদস্যরা অসহায় পড়েছেন।

আসামি এবং তার লোকজন এতটাই ক্ষমতাধর তাদের টাকার প্রভাব বিস্তার করে আমার দায়ের করা মামলাটি ভিন্নখাতে প্রবাহিত করার চেষ্টা চালাচ্ছে। এদিকে লুবানা হাসপাতাল আমাকে সঠিক তথ্য দিয়ে সাহায্য করছেন না। থানা পুলিশের কাছ থেকেও আমি আশানুরূপ কোন সাড়া পাচ্ছি না।

আলী হোসেনের লোকজন আমাকে টেলিফোন করে এই বলে হুমকি দিচ্ছে, পুলিশ কেনা হয়ে গেছে । মামলা ফাইনাল রিপোর্ট দেওয়ার পর তুই কেমনে বেঁচে থাকিস আমরা দেখে নেবো।

পুলিশ যাতে অভিযুক্তের বিরুদ্ধে চার্জশিট দেয়,আমি যাতে ন্যায় বিচার পাই। আমি আপনাদের মাধ্যমে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী,পুলিশের মহাপরিদর্শক,ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনারের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি আমি যাতে ন্যায় বিচার পাই।

আমি আমার সম্ভমহানীর বিচার চাই।আর বিচার না পেলে আত্মহননের পথ বেছে নেয়া ছাড়া আর কোন পথ খোলা থাকবেনা।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :




ধর্ষক আলী হোসেনের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি ভুক্তভোগী নারীর 

আপডেট সময় : ০১:৩৩:১০ অপরাহ্ন, শনিবার, ২ জানুয়ারী ২০২১

সকালের সংবাদ ডেস্ক: পূর্বাশা টেক্সটাইল কোম্পানির কর্ণধার আলী হোসেনের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে সংবাদ সম্মেলন করেছেন ভুক্তভোগী নাহিদ পারভিন। তিনি একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে সেলস এন্ড মার্কেটিং কর্পোরেট নিয়ে এক্সিকিউটিভ পদে চাকরি করতেন।

চাকরি চলাকালীন সময়ে ভালুকাস্থ পূর্বাশা টেক্সটাইল লিমিটেডের একটি নতুন ফ্যাক্টরীর জন্য আমাদের কোম্পানি থেকে পণ্য ক্রয়ের আদেশ দেওয়া হয়। এসময় ওই কোম্পানির কর্ণধার আলী হোসেনের সাথে ভালুকা জেলা ময়মনসিংহ, বর্তমান ঠিকানা বাসা ১৩, রোড ১০ সেক্টর উত্তরায় কর্পোরেট গ্রাহক হিসাবে আমার সাথে পরিচয় ঘটে।

২০১৮ সালে ১৯ জানুয়ারি বিকেল ৫টায় আলী হোসেন তার উত্তরার অফিসে পণ্য ক্রয়ের আদেশ দেবেন বলে ডেকে নিয়ে যান ওই নারীকে,পরে জোরপূর্বক ধর্ষণ এবং গোপনে ভিডিও ও ছবি ধারণ করেন ।

শনিবার(২ জানুয়ারি২০২১) বাংলাদেশে ক্রাইম রিপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশন (ক্র্যাবে)
ধর্ষক আলী হোসেনের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে সংবাদ সম্মেলন করে নাহিদ পারভিন।

সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন,আলী হোসেন আমাকে ভয়-ভীতি দেখান এবং কাউকে এই ঘটনা বললে আমার সন্তানসহ আমাকে মেরে ফেলবেন। আমি লোকলজ্জা ও সন্তানের কথা ভেবে বিষয়টি গোপন রাখি এবং মানসিক বিপর্যয় হয়ে পড়লেও কাউকে কিছু বলার সাহস পাচ্ছিলাম না।

ধর্ষণের ঘটনার পরে অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়লে আলী হোসেন উত্তরা ১৩ নম্বর সেক্টরে অবস্থিত লুবানা হাসপাতালে নিয়ে গিয়ে ভয়-ভীতি দেখিয়ে আমার গর্ভপাত ঘটান।
পরে আত্মীয়-স্বজনদের পরামর্শে গত ১৯ অক্টোবর ২০২০ তারিখে উত্তরা পশ্চিম থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা করি যাহার নাম্বার(২৫)১০/২০২০।

মামলা করার পর তার লোকজন আমাকে এবং আমার সন্তানকে মেরে ফেলার জন্য ভয়-ভীতি দেখিয়ে আসছেন এবং মামলা তুলে নেওয়ার জন্য চাপ প্রয়োগ করছেন।
আমি ভয়ে সন্তানসহ নানা জায়গায় আত্মগোপন করে আছি।
আলী হোসেন উচ্চ আদালত থেকে জামিন নিয়ে আসেন প্রতিনিয়ত আমাকে বিভিন্নভাবে এবং পরিবারের সদস্যদের ভয়-ভীতি দেখাচ্ছেন।

তাদের ভয়ে আমার বৃদ্ধ মা-বাবা ও পরিবারের সদস্যরা অসহায় পড়েছেন।

আসামি এবং তার লোকজন এতটাই ক্ষমতাধর তাদের টাকার প্রভাব বিস্তার করে আমার দায়ের করা মামলাটি ভিন্নখাতে প্রবাহিত করার চেষ্টা চালাচ্ছে। এদিকে লুবানা হাসপাতাল আমাকে সঠিক তথ্য দিয়ে সাহায্য করছেন না। থানা পুলিশের কাছ থেকেও আমি আশানুরূপ কোন সাড়া পাচ্ছি না।

আলী হোসেনের লোকজন আমাকে টেলিফোন করে এই বলে হুমকি দিচ্ছে, পুলিশ কেনা হয়ে গেছে । মামলা ফাইনাল রিপোর্ট দেওয়ার পর তুই কেমনে বেঁচে থাকিস আমরা দেখে নেবো।

পুলিশ যাতে অভিযুক্তের বিরুদ্ধে চার্জশিট দেয়,আমি যাতে ন্যায় বিচার পাই। আমি আপনাদের মাধ্যমে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী,পুলিশের মহাপরিদর্শক,ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনারের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি আমি যাতে ন্যায় বিচার পাই।

আমি আমার সম্ভমহানীর বিচার চাই।আর বিচার না পেলে আত্মহননের পথ বেছে নেয়া ছাড়া আর কোন পথ খোলা থাকবেনা।