ঢাকা ০৭:৪৩ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৩ জুন ২০২৪, ৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ




শ্যালকের হাতের বোন জামাই খুন

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১০:১০:৩৯ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২০ ৬১ বার পড়া হয়েছে

নিকলী (কিশোরগঞ্জ) সংবাদদাতা; কিশোরগঞ্জের নিকলীতে শ্যালকের ধারোলো অস্ত্র আঘাতে প্রাণ গেলো বোন জামাইয়ের। শনিবার দুপুরে বাজিতপুর উপজেলার ইলচিয়া ইউনিয়নের জ্ঞানপুর নামক স্থানে তাকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়।

নিহত জামাইয়ের নাম আহাম্মদ (৬২)। তিনি জারইতলা ইউনিয়নের সিঙ্গারপাড় গ্রামের আমির হোসেনের ছেলে।

অভিযুক্তের নাম ইসহাক (৫৩)। তিনি একই ইউনিয়নের আঠারবাড়িয়া গ্রামের মৃত কাছুম আলীর ছেলে। সম্পর্কে আহাম্মদের তিনি শ্যালক।

এলাকাবাসীরা জানায়, উপজেলার জারইতলা ইউনিয়নের আঠারবাড়িয়া ও সিঙ্গারপাড়সহ আশপাশের গ্রামগুলির মধ্যে প্রভাব প্রতিপত্তি নিয়ে এলাকা ভিত্তিক দ্বন্দ্ব চলমান। দুই দলের মধ্যে একাধিক মামলাও রয়েছে। নিহত ইসহাক ও আহাম্মদ পরষ্পর প্রতিপক্ষের লোক। নিজেদের মধ্যেও পারিবারিক কলহ চলছিল। শনিবার সকালে ইসহাক গরুর খাদ্য ও পরিবারের জন্য চাল কিনতে পাশের বাজিতপুর উপজেলার সরারচর বাজারে যান। তিনি ভ্যান ভাড়া করে মালামাল নিয়ে বাড়িতে ফিরছিলেন। পথে ওত পেতে থাকা আহাম্মদ আলী ও সঙ্গীরা ইসহাকের অটো টেম্পুটি আটক করেন। পড়ে টেম্পু থেকে নামিয়ে ধারালো অস্ত্র দিয়ে উপর্য়ুপরি কুপিয়ে মৃত্যু নিশ্চিত করে চলে যায়। খবর পেয়ে বাজিতপুর থানা পুলিশ লাশ উদ্ধার করে বাজিতপুর থানায় নিয়ে যান।

বাজিতপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা খলিলুর রহমান পাটাহারী বলেন, ময়না তদন্তের জন্য কিশোরগঞ্জ মর্গে পাঠানো হয়েছে। থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে। আসামিদের গ্রেপ্তার করতে পুলিশি অভিযান চলছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :




শ্যালকের হাতের বোন জামাই খুন

আপডেট সময় : ১০:১০:৩৯ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২০

নিকলী (কিশোরগঞ্জ) সংবাদদাতা; কিশোরগঞ্জের নিকলীতে শ্যালকের ধারোলো অস্ত্র আঘাতে প্রাণ গেলো বোন জামাইয়ের। শনিবার দুপুরে বাজিতপুর উপজেলার ইলচিয়া ইউনিয়নের জ্ঞানপুর নামক স্থানে তাকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়।

নিহত জামাইয়ের নাম আহাম্মদ (৬২)। তিনি জারইতলা ইউনিয়নের সিঙ্গারপাড় গ্রামের আমির হোসেনের ছেলে।

অভিযুক্তের নাম ইসহাক (৫৩)। তিনি একই ইউনিয়নের আঠারবাড়িয়া গ্রামের মৃত কাছুম আলীর ছেলে। সম্পর্কে আহাম্মদের তিনি শ্যালক।

এলাকাবাসীরা জানায়, উপজেলার জারইতলা ইউনিয়নের আঠারবাড়িয়া ও সিঙ্গারপাড়সহ আশপাশের গ্রামগুলির মধ্যে প্রভাব প্রতিপত্তি নিয়ে এলাকা ভিত্তিক দ্বন্দ্ব চলমান। দুই দলের মধ্যে একাধিক মামলাও রয়েছে। নিহত ইসহাক ও আহাম্মদ পরষ্পর প্রতিপক্ষের লোক। নিজেদের মধ্যেও পারিবারিক কলহ চলছিল। শনিবার সকালে ইসহাক গরুর খাদ্য ও পরিবারের জন্য চাল কিনতে পাশের বাজিতপুর উপজেলার সরারচর বাজারে যান। তিনি ভ্যান ভাড়া করে মালামাল নিয়ে বাড়িতে ফিরছিলেন। পথে ওত পেতে থাকা আহাম্মদ আলী ও সঙ্গীরা ইসহাকের অটো টেম্পুটি আটক করেন। পড়ে টেম্পু থেকে নামিয়ে ধারালো অস্ত্র দিয়ে উপর্য়ুপরি কুপিয়ে মৃত্যু নিশ্চিত করে চলে যায়। খবর পেয়ে বাজিতপুর থানা পুলিশ লাশ উদ্ধার করে বাজিতপুর থানায় নিয়ে যান।

বাজিতপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা খলিলুর রহমান পাটাহারী বলেন, ময়না তদন্তের জন্য কিশোরগঞ্জ মর্গে পাঠানো হয়েছে। থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে। আসামিদের গ্রেপ্তার করতে পুলিশি অভিযান চলছে।