ঢাকা ১২:১০ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২৩ জুন ২০২৪, ৮ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম :




ভৈরবে গেল ২৪ ঘণ্টায় চিকিৎসক, নার্স ও পুলিশসহ করোনায় আক্রান্ত ৫ জন

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১০:০৮:২৯ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২০ ৬৬ বার পড়া হয়েছে

ভৈরব প্রতিনিধি | 

কিশোরগঞ্জের ভৈরবে গেল এক সপ্তাহে ১০ জনের দেহে করোনা শনাক্ত হয়েছে। অর্থাৎ গেল ১০ এপ্রিল এক পুলিশ সদস্যের দেহে করোনা শনাক্তের পর থেকে এ পর্যন্ত ১০ জনের দেহে করোনা ধরা পড়েছে। আর গেল ২৪ ঘণ্টায় এক চিকিৎসক, নার্স ও তিন পুলিশ সদস্য ৫ জনের দেহে করোনা শনাক্ত হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (১৬ এপ্রিল) উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে ছয়জনের নমুনা সংগ্রহ করে ঢাকায় পাঠানো হয়। শুক্রবার বিকেলে একজনের করোনা নেগেটিভ এলেও পাঁচজনের পজিটিভ আসে।

শুক্রবার (১৭ এপ্রিল) বিকেলে এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের টিএইচও ডা. বুলবুল আহমেদ। জানা গেছে, ভৈরবে সর্বপ্রথম এক পুলিশ সদস্যের দেহে করোনা শনাক্ত হয়। পরে তার সংস্পর্শে আসা এক ফার্মেসি মালিকের দেহে করোনা ধরা পড়ে। এরপর এই দুজনের সংস্পর্শে আসা আরও ৩ জনের দেহে করোনা শনাক্ত হয়েছে। ফলে শুক্রবার আরও ৫ জনের দেহে করোনা ধরা পড়েছে। আক্রান্তরা সবাই শহরের বসবাস করেন।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও করোনা প্রতিরোধ কমিটির সভাপতি লুবনা ফারজানা বলেন, নতুন করে পুলিশ, চিকিৎসক ও নার্সসহ পাঁচজন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। এ নিয়ে ভৈরবে করোনায় আক্রান্ত হলেন ১০ জন।

এছাড়াও কিশোরগঞ্জ জেলায় গেল ২৪ ঘণ্টায় আরও ১৮ জনের দেহে করোনা শনাক্ত হয়েছে। ফলে জেলায় সর্বমোট ৫২ জনের দেহে করোনা ভাইরাস ধরা পড়েছে। এরমধ্যে ১১ জনই চিকিৎসক। যদিও করোনার সংক্রামণ ঠেকাতে গেল ১০ এপ্রিল শুক্রবার রাতে গণবিজ্ঞপ্তি জারি করে কিশোরগঞ্জ জেলাকে লকডাউন (অবরুদ্ধ) হিসেবে ঘোষণা করেছে জেলা প্রশাসন।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :




ভৈরবে গেল ২৪ ঘণ্টায় চিকিৎসক, নার্স ও পুলিশসহ করোনায় আক্রান্ত ৫ জন

আপডেট সময় : ১০:০৮:২৯ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২০

ভৈরব প্রতিনিধি | 

কিশোরগঞ্জের ভৈরবে গেল এক সপ্তাহে ১০ জনের দেহে করোনা শনাক্ত হয়েছে। অর্থাৎ গেল ১০ এপ্রিল এক পুলিশ সদস্যের দেহে করোনা শনাক্তের পর থেকে এ পর্যন্ত ১০ জনের দেহে করোনা ধরা পড়েছে। আর গেল ২৪ ঘণ্টায় এক চিকিৎসক, নার্স ও তিন পুলিশ সদস্য ৫ জনের দেহে করোনা শনাক্ত হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (১৬ এপ্রিল) উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে ছয়জনের নমুনা সংগ্রহ করে ঢাকায় পাঠানো হয়। শুক্রবার বিকেলে একজনের করোনা নেগেটিভ এলেও পাঁচজনের পজিটিভ আসে।

শুক্রবার (১৭ এপ্রিল) বিকেলে এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের টিএইচও ডা. বুলবুল আহমেদ। জানা গেছে, ভৈরবে সর্বপ্রথম এক পুলিশ সদস্যের দেহে করোনা শনাক্ত হয়। পরে তার সংস্পর্শে আসা এক ফার্মেসি মালিকের দেহে করোনা ধরা পড়ে। এরপর এই দুজনের সংস্পর্শে আসা আরও ৩ জনের দেহে করোনা শনাক্ত হয়েছে। ফলে শুক্রবার আরও ৫ জনের দেহে করোনা ধরা পড়েছে। আক্রান্তরা সবাই শহরের বসবাস করেন।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও করোনা প্রতিরোধ কমিটির সভাপতি লুবনা ফারজানা বলেন, নতুন করে পুলিশ, চিকিৎসক ও নার্সসহ পাঁচজন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। এ নিয়ে ভৈরবে করোনায় আক্রান্ত হলেন ১০ জন।

এছাড়াও কিশোরগঞ্জ জেলায় গেল ২৪ ঘণ্টায় আরও ১৮ জনের দেহে করোনা শনাক্ত হয়েছে। ফলে জেলায় সর্বমোট ৫২ জনের দেহে করোনা ভাইরাস ধরা পড়েছে। এরমধ্যে ১১ জনই চিকিৎসক। যদিও করোনার সংক্রামণ ঠেকাতে গেল ১০ এপ্রিল শুক্রবার রাতে গণবিজ্ঞপ্তি জারি করে কিশোরগঞ্জ জেলাকে লকডাউন (অবরুদ্ধ) হিসেবে ঘোষণা করেছে জেলা প্রশাসন।