ঢাকা ০৮:৩১ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১২ এপ্রিল ২০২৪, ২৯ চৈত্র ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম :
Logo সাস্টিয়ান ব্রাহ্মণবাড়িয়া এর ইফতার মাহফিল সম্পন্ন Logo কুবির চট্টগ্রাম স্টুডেন্টস ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশনের ইফতার ও পূর্নমিলনী Logo অধ্যাপক জহীর উদ্দিন আহমেদের মায়ের মৃত্যুতে শাবির মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও মুক্ত চিন্তা চর্চায় ঐক্যবদ্ধ শিক্ষকবৃন্দ পরিষদের শোক প্রকাশ Logo শাবির অধ্যাপক জহীর উদ্দিনের মায়ের মৃত্যুতে উপাচার্যের শোক প্রকাশ Logo বিশ কোটিতে গণপূর্তের প্রধান হওয়ার মিশনে ‘ছাত্রদল ক্যাডার প্রকৌশলী’! Logo দূর্নীতির রাক্ষস ফায়ার সার্ভিসের এডি আনোয়ার! Logo ঝড় ও শিলাবৃষ্টিতে ক্ষতি হওয়া শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয়ে অবকাঠামোর সংস্কার শুরু Logo বুয়েটে নিয়মতান্ত্রিক ছাত্র রাজনীতির দাবিতে শাবিপ্রবি ছাত্রলীগের মানববন্ধন Logo কুবি উপাচার্যের বক্তব্যের প্রমাণ দিতে শিক্ষক সমিতির সাত দিনের আল্টিমেটাম Logo কুবি বাংলা বিভাগের অ্যালামনাইদের ইফতার ও দোয়া মাহফিল




সালমান-ক্যাটরিনার কণ্ঠে ‌‌‘জয় বাংলা, জয় বঙ্গবন্ধু’

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৯:০০:২০ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ৯ ডিসেম্বর ২০১৯ ৯৯ বার পড়া হয়েছে

বিশেষ সংবাদদাতা

তার জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষেই এবারের বিপিএলের আসরের নামকরণ করা হয়েছে ‘বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ (বিবিপিএল)’। খুব স্বাভাবিকভাবেই উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক সন্ধ্যার অনেকটা জুড়েই ছিলেন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান।

এ আসরের জমকালো উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে স্বাধীন বাংলাদেশের স্থপতি ও রূপকার বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে মহান মুক্তিযুদ্ধের সময় শ্রী গৌরী প্রসন্ন মজুমদারের লেখা কালজয়ী ‘শোনো একটি মুজিবুরের থেকে’ গানটি গেয়ে সবার মন জয় করেন ভারতীয় সঙ্গীতশিল্পী সনু নিগাম। তারপর বঙ্গবন্ধুর প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন আরেক ভারতীয় শিল্পী কৈলাশ খেরও।

আর সবশেষে হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধা প্রদর্শন করেন উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের দুই মূল আকর্ষণ সালমান খান ও ক্যাটরিনা কাইফ।

অনুষ্ঠান শেষ হওয়ার ঠিক আগে দিয়ে ক্যাটরিনা ও সালমানের শেষ দ্বৈত পারফরম্যান্স মঞ্চস্থ হওয়ার আগে, বঙ্গবন্ধুর প্রতি শ্রদ্ধার্ঘ্য অর্পণ করেন। সালমান ও ক্যাটরিনা দুজনই বলেন কোটি বাঙালির প্রাণের স্লোগান, ‘জয় বাংলা, জয় বঙ্গবন্ধু’। এ সময় পুরো শেরে বাংলায় আকাশ বাতাস কাঁপিয়ে রব ওঠে ‘জয় বাংলা, জয় বঙ্গবন্ধু’।

সালমান-ক্যাটরিনার এ শ্রদ্ধা অর্পণের পুরো বিষয়টি স্বচক্ষে দেখেছেন বঙ্গবন্ধুকন্যা ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। শেরে বাংলার প্রেসিডেন্ট বক্সে বসে সন্ধ্যা ৬টা ৫০ থেকে পুরো অনুষ্ঠানই দেখেছেন তিনি।

এ সময় বঙ্গবন্ধুর প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদনপূর্বক তার জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানের সফলতা কামনা করেন সালমান ও ক্যাটরিনা। সালমানের মুখ থেকে শোনা যায়, বাংলাদেশের স্বাধীনতা অর্জনে বঙ্গবন্ধুর অবদানের কথাও।

এছাড়া সালমান খান নিজের বাবার কথা রাখতে গিয়ে বাংলাদেশের প্রাণের কবি, জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের প্রতিও শ্রদ্ধা প্রদর্শন করেন। কথাপ্রসঙ্গে সালমান জানিয়ে দেন, তার পিতা কাজী নজরুল ইসলামের একনিষ্ঠ ভক্ত এবং তার অনেক কবিতাও পড়েছেন।

সে কারণেই ঢাকা আসার আগে তার বাবা বলেছিলেন, একবার হলেও সালমান যেন কাজী নজরুলের নাম স্মরণ করেন। বাবার কথা রাখতেই নিজের বক্তব্যের শেষাংশে কাজী নজরুল ইসলামের নাম বলেন এবং জানান যে, বাবার মুখে শুনেছেন কাজী নজরুল ইসলাম অনেক বড় কবি।

এ শ্রদ্ধা নিবেদন পর্ব শেষে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের সমাপনী পারফরম্যান্স নিয়ে মঞ্চে আসেন সালমান ও ক্যাটরিনা। তাদের পারফরম্যান্সের মধ্য দিয়েই শেষ হয় প্রায় পাঁচ ঘণ্টার উদ্বোধনী অনুষ্ঠান।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :




সালমান-ক্যাটরিনার কণ্ঠে ‌‌‘জয় বাংলা, জয় বঙ্গবন্ধু’

আপডেট সময় : ০৯:০০:২০ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ৯ ডিসেম্বর ২০১৯

বিশেষ সংবাদদাতা

তার জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষেই এবারের বিপিএলের আসরের নামকরণ করা হয়েছে ‘বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ (বিবিপিএল)’। খুব স্বাভাবিকভাবেই উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক সন্ধ্যার অনেকটা জুড়েই ছিলেন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান।

এ আসরের জমকালো উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে স্বাধীন বাংলাদেশের স্থপতি ও রূপকার বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে মহান মুক্তিযুদ্ধের সময় শ্রী গৌরী প্রসন্ন মজুমদারের লেখা কালজয়ী ‘শোনো একটি মুজিবুরের থেকে’ গানটি গেয়ে সবার মন জয় করেন ভারতীয় সঙ্গীতশিল্পী সনু নিগাম। তারপর বঙ্গবন্ধুর প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন আরেক ভারতীয় শিল্পী কৈলাশ খেরও।

আর সবশেষে হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধা প্রদর্শন করেন উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের দুই মূল আকর্ষণ সালমান খান ও ক্যাটরিনা কাইফ।

অনুষ্ঠান শেষ হওয়ার ঠিক আগে দিয়ে ক্যাটরিনা ও সালমানের শেষ দ্বৈত পারফরম্যান্স মঞ্চস্থ হওয়ার আগে, বঙ্গবন্ধুর প্রতি শ্রদ্ধার্ঘ্য অর্পণ করেন। সালমান ও ক্যাটরিনা দুজনই বলেন কোটি বাঙালির প্রাণের স্লোগান, ‘জয় বাংলা, জয় বঙ্গবন্ধু’। এ সময় পুরো শেরে বাংলায় আকাশ বাতাস কাঁপিয়ে রব ওঠে ‘জয় বাংলা, জয় বঙ্গবন্ধু’।

সালমান-ক্যাটরিনার এ শ্রদ্ধা অর্পণের পুরো বিষয়টি স্বচক্ষে দেখেছেন বঙ্গবন্ধুকন্যা ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। শেরে বাংলার প্রেসিডেন্ট বক্সে বসে সন্ধ্যা ৬টা ৫০ থেকে পুরো অনুষ্ঠানই দেখেছেন তিনি।

এ সময় বঙ্গবন্ধুর প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদনপূর্বক তার জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানের সফলতা কামনা করেন সালমান ও ক্যাটরিনা। সালমানের মুখ থেকে শোনা যায়, বাংলাদেশের স্বাধীনতা অর্জনে বঙ্গবন্ধুর অবদানের কথাও।

এছাড়া সালমান খান নিজের বাবার কথা রাখতে গিয়ে বাংলাদেশের প্রাণের কবি, জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের প্রতিও শ্রদ্ধা প্রদর্শন করেন। কথাপ্রসঙ্গে সালমান জানিয়ে দেন, তার পিতা কাজী নজরুল ইসলামের একনিষ্ঠ ভক্ত এবং তার অনেক কবিতাও পড়েছেন।

সে কারণেই ঢাকা আসার আগে তার বাবা বলেছিলেন, একবার হলেও সালমান যেন কাজী নজরুলের নাম স্মরণ করেন। বাবার কথা রাখতেই নিজের বক্তব্যের শেষাংশে কাজী নজরুল ইসলামের নাম বলেন এবং জানান যে, বাবার মুখে শুনেছেন কাজী নজরুল ইসলাম অনেক বড় কবি।

এ শ্রদ্ধা নিবেদন পর্ব শেষে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের সমাপনী পারফরম্যান্স নিয়ে মঞ্চে আসেন সালমান ও ক্যাটরিনা। তাদের পারফরম্যান্সের মধ্য দিয়েই শেষ হয় প্রায় পাঁচ ঘণ্টার উদ্বোধনী অনুষ্ঠান।