ঢাকা ০৬:২৩ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ২৪ জুলাই ২০২৪, ৯ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম :
Logo শাবি ক্যাম্পাসে আন্দোলনকারীদের ছড়ানো গুজবে সয়লাব Logo সিলেট-সুনামগঞ্জ মহাসড়কে আন্দোলনকারীরা পুলিশের উপর হামলা চালালে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে Logo জবিতে আজীবন ছাত্ররাজনীতি নিষিদ্ধ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ Logo শাবিতে হল প্রশাসনকে ভয়-ভীতি দেখিয়ে নোটিসে জোর পূর্বক সাইন আদায় Logo এবার সামনে আসছে ছাত্রলীগ কর্তৃক আন্দোলনকারীদের মারধরের আরো ঘটনা Logo আবাসিক হল ছাড়ছে শাবি শিক্ষার্থীরা Logo নিরাপত্তার স্বার্থে শাবি শিক্ষার্থীদের আইডিকার্ড সাথে রাখার আহবান বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের Logo জনস্বাস্থ্যের প্রধান সাধুর যত অসাধু কর্ম: দুর্নীতি ও অর্থ পাচারের অভিযোগ! Logo বিআইডব্লিউটিএ বন্দর শাখা যুগ্ম পরিচালক আলমগীরের দুর্নীতি ও ঘুষ বাণিজ্য  Logo রাজশাহীতে এটিএন বাংলার সাংবাদিক সুজাউদ্দিন ছোটনকে হয়রানিমূলক মামলায় বএিমইউজরে নিন্দা ও প্রতিবাদ




ইচ্ছে ছিল ভারতকে হারিয়ে হিরো হওয়ার: সাইফউদ্দিন

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১১:৪০:৪৩ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ৩ জুলাই ২০১৯ ১০৫ বার পড়া হয়েছে

স্পোর্টস ডেস্ক;
ইনজুরির কারণে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে খেলতে পারেননি মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন। তবে ম্যাচ শেষে গুজব রটে, আসলে কারণ সেটা নয়; ‘ভয়ে’ বড় দলের বিপক্ষে নামতে সাহস পাননি তিনি। খামাখা ইনজুরির অযুহাত দেখিয়ে নিজেকে ম্যাচ থেকে বয়কট করেছেন।

সেই খবর কানে পৌঁছেছিল সাইফেরও। তখনই পণ করেন তিনি, বড় ম্যাচ জিতিয়ে এ সমালোচনার জবাব দেবেন। মোক্ষম সময়ও পেয়ে গিয়েছিলেন এ অলরাউন্ডার।

মঙ্গলবার এজবাস্টনে ৩১৪ রানের বিশাল লক্ষ্য ছুড়ে দিয়েছিল ভারত। সেটা পাড়ি দিতে নেমে তীরে প্রায় পৌঁছেই গিয়েছিল বাংলাদেশ। তবে শেষ পর্যন্ত ২৮৬ রানে থেমে যায় লাল-সবুজ জার্সিধারীদের ইনিংস। সঙ্গে ধূলিসাৎ হয়ে যায় বিশ্বকাপ স্বপ্নও।

কিন্তু এ পর্যন্ত লড়াইয়ের কারিগর ছিলেন সাইফউদ্দিন। দলকে জেতাতে শেষ পর্যন্ত লড়ে গেছেন তিনি। আট নম্বরে নেমে খেলেন ৩৮ বলে ৯ চারে ৫১ রানের হার না মানা ইনিংস। তাকে সঙ্গ দিতে চরম ব্যর্থ হন বাকি ব্যাটসম্যানরা। যে কারণে ৪৮ ওভারেই থামতে হয় মাশরাফিদের।

এ ম্যাচের প্রথম বল থেকেই সাইফের ইচ্ছে ছিল বাংলাদেশকে ম্যাচ জিতিয়ে মাঠ ছাড়া। মনের মধ্যে তীব্র বাসনা ছিল ভারতকে হারিয়ে হিরো হওয়ার। তবে সেই সুপ্ত কামনা পূরণ না হওয়ার হতাশ তিনি।

ম্যাচ শেষে সাইফউদ্দিন বলেন, কয়েক দিন আগেও আমাকে নিয়ে গুঞ্জন ছড়ায়; আমি বড় দলের বিপক্ষে ভয়ে খেলিনি। ইনজুরির অযুহাত দেখিয়েছি। তাই আমার মধ্যে কাজ করছিল, বিগ ম্যাচ জিতিয়ে আমি হিরো হবো। যখন ভারতের বিপক্ষে মাঠে নেমেছিলাম, প্রথম থেকেই আমার ইচ্ছে ছিল ম্যাচ জেতানোর।

সমালোচকদের ভুল প্রমাণ করতে ম্যাচের প্রথম বল থেকেই কিছু করে দেখানোর লক্ষ্য ছিল সাইফউদ্দিনের। তিনি খুব ভালো করেই জানেন, খেলোয়াড়দের মুখে জবাব দিতে নেই। মাঠে পারফরম্যান্স দিয়ে সমুচিত উত্তর দিতে হয়। সেটাই চেয়েছিলে এ অলরাউন্ডার।

সাইফ বলেন, আমাকে নিয়ে যা হয়েছে, সেটা ভুল প্রমাণ করতে প্রথম বল থেকেই চেষ্টা করছিলাম। তবে দুর্ভাগ্যবশত তা হয়নি। আমরা যারা খেলোয়াড়, তাদের আসলে কিছু বলার থাকে না। জবাব দিতে হয় মাঠে। এর কোনো রাস্তা নেই। তাই ময়দানি লড়াইয়েই চেষ্টা করেছি।

বিশ্বকাপের শুরু থেকেই বল হাতে দুর্দান্ত ফর্মে আছেন সাইফউদ্দিন। ৬ ম্যাচে দখলে নিয়েছেন ১০ উইকেট। বল হাতে ছন্দে থাকলেও ব্যাটিংয়ে সেরকম কিছু করে দেখাতে পারছিলেন না। শেষদিকে হেসেছে তার ব্যাট। তাতেই উৎফুল্ল তিনি।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :




ইচ্ছে ছিল ভারতকে হারিয়ে হিরো হওয়ার: সাইফউদ্দিন

আপডেট সময় : ১১:৪০:৪৩ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ৩ জুলাই ২০১৯

স্পোর্টস ডেস্ক;
ইনজুরির কারণে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে খেলতে পারেননি মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন। তবে ম্যাচ শেষে গুজব রটে, আসলে কারণ সেটা নয়; ‘ভয়ে’ বড় দলের বিপক্ষে নামতে সাহস পাননি তিনি। খামাখা ইনজুরির অযুহাত দেখিয়ে নিজেকে ম্যাচ থেকে বয়কট করেছেন।

সেই খবর কানে পৌঁছেছিল সাইফেরও। তখনই পণ করেন তিনি, বড় ম্যাচ জিতিয়ে এ সমালোচনার জবাব দেবেন। মোক্ষম সময়ও পেয়ে গিয়েছিলেন এ অলরাউন্ডার।

মঙ্গলবার এজবাস্টনে ৩১৪ রানের বিশাল লক্ষ্য ছুড়ে দিয়েছিল ভারত। সেটা পাড়ি দিতে নেমে তীরে প্রায় পৌঁছেই গিয়েছিল বাংলাদেশ। তবে শেষ পর্যন্ত ২৮৬ রানে থেমে যায় লাল-সবুজ জার্সিধারীদের ইনিংস। সঙ্গে ধূলিসাৎ হয়ে যায় বিশ্বকাপ স্বপ্নও।

কিন্তু এ পর্যন্ত লড়াইয়ের কারিগর ছিলেন সাইফউদ্দিন। দলকে জেতাতে শেষ পর্যন্ত লড়ে গেছেন তিনি। আট নম্বরে নেমে খেলেন ৩৮ বলে ৯ চারে ৫১ রানের হার না মানা ইনিংস। তাকে সঙ্গ দিতে চরম ব্যর্থ হন বাকি ব্যাটসম্যানরা। যে কারণে ৪৮ ওভারেই থামতে হয় মাশরাফিদের।

এ ম্যাচের প্রথম বল থেকেই সাইফের ইচ্ছে ছিল বাংলাদেশকে ম্যাচ জিতিয়ে মাঠ ছাড়া। মনের মধ্যে তীব্র বাসনা ছিল ভারতকে হারিয়ে হিরো হওয়ার। তবে সেই সুপ্ত কামনা পূরণ না হওয়ার হতাশ তিনি।

ম্যাচ শেষে সাইফউদ্দিন বলেন, কয়েক দিন আগেও আমাকে নিয়ে গুঞ্জন ছড়ায়; আমি বড় দলের বিপক্ষে ভয়ে খেলিনি। ইনজুরির অযুহাত দেখিয়েছি। তাই আমার মধ্যে কাজ করছিল, বিগ ম্যাচ জিতিয়ে আমি হিরো হবো। যখন ভারতের বিপক্ষে মাঠে নেমেছিলাম, প্রথম থেকেই আমার ইচ্ছে ছিল ম্যাচ জেতানোর।

সমালোচকদের ভুল প্রমাণ করতে ম্যাচের প্রথম বল থেকেই কিছু করে দেখানোর লক্ষ্য ছিল সাইফউদ্দিনের। তিনি খুব ভালো করেই জানেন, খেলোয়াড়দের মুখে জবাব দিতে নেই। মাঠে পারফরম্যান্স দিয়ে সমুচিত উত্তর দিতে হয়। সেটাই চেয়েছিলে এ অলরাউন্ডার।

সাইফ বলেন, আমাকে নিয়ে যা হয়েছে, সেটা ভুল প্রমাণ করতে প্রথম বল থেকেই চেষ্টা করছিলাম। তবে দুর্ভাগ্যবশত তা হয়নি। আমরা যারা খেলোয়াড়, তাদের আসলে কিছু বলার থাকে না। জবাব দিতে হয় মাঠে। এর কোনো রাস্তা নেই। তাই ময়দানি লড়াইয়েই চেষ্টা করেছি।

বিশ্বকাপের শুরু থেকেই বল হাতে দুর্দান্ত ফর্মে আছেন সাইফউদ্দিন। ৬ ম্যাচে দখলে নিয়েছেন ১০ উইকেট। বল হাতে ছন্দে থাকলেও ব্যাটিংয়ে সেরকম কিছু করে দেখাতে পারছিলেন না। শেষদিকে হেসেছে তার ব্যাট। তাতেই উৎফুল্ল তিনি।