ঢাকা ১১:৩৪ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম :
Logo রূপালী ব্যাংকের ডিজিএম কর্তৃক সহকর্মী নারীকে যৌন হয়রানি: ধামাচাপা দিতে মরিয়া তদন্ত কমিটি Logo প্রতিবন্ধী ভাতার টাকা হাতিয়ে বহাল তবিয়তে মাদারীপুরের দুই সহকারী সমাজসেবা অফিসারl Logo যমুনা লাইফের গ্রাহক প্রতারণায় ‘জড়িতরা’ কে কোথায় Logo ঢাকাস্থ ভোলা সাংবাদিক ফোরামের সভাপতি আহসান কামরুল, সম্পাদক জিয়াউর রহমান Logo টাটা মটরস বাংলাদেশে উদ্বোধন করলো টাটা যোদ্ধা Logo আশা শিক্ষা কর্মসূচী কর্তৃক অভিভাবক মতবিনিময় সভা Logo গণপূর্ত প্রধান প্রকৌশলীর গাড়ি চাপায় পিষ্ট সহকারী প্রকৌশলী -উত্তাল গণপূর্ত Logo শাবিপ্রবির বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হলের উদ্যোগে বৃক্ষরোপণ Logo সওজের উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী নাহিনুরের সীমাহীন সম্পদ ও অনিয়ম -পর্ব-০১ Logo তামাক সেবনের আলাদা কক্ষ বানালেন গণপূর্তের নির্বাহী প্রকৌশলী: রয়েছে দুর্নীতির পাহাড়সম অভিযোগ!




দুই স্বামীর সঙ্গে সংসার করেন শিক্ষিকা!

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৯:১৯:৩৩ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২৬ মে ২০১৯ ৭৮ বার পড়া হয়েছে

ময়মনসিংহের গফরগাঁও উপজেলার রেজবীন নাহার (৩১) নামের এক স্কুল শিক্ষিকা স্ত্রীর বিরুদ্ধে প্রতারণার অভিযোগ এনে সংবাদ সম্মেলন করেছেন স্বামী আল আমিন রনি। শনিবার সকালে গফরগাঁও প্রেসক্লাবে এ সংবাদ সম্মেলন করেন তিনি।

রেজবীন নাহার লামকাইন মধ্যপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষিকা।

আল আমিন রনি অভিযোগ করে বলেন, ২০১৩ সালে ১৪ নভেম্বর উপজেলার পাগলা থানাধীন দত্তেরবাজার ইউনিয়নের বিরই গ্রামের রফিকুল ইসলামের মেয়ে রেজবীন নাহারের সঙ্গে কাবিন রেজিস্ট্রিমূলে তার বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকেই স্ত্রী রেজবীন নাহার পৌরশহরের শিলাসী গ্রামে আমার বাড়িতে বসবাস করে আসছিলেন।

তিনি বলেন, পরে রেজবীন নাহার আমাদের বিয়ের তথ্য গোপন রেখে প্রতারণার আশ্রয় নিয়ে ২০১৬ সালে ৮ জুলাই একই উপজেলার উস্থি ইউনিয়নের নয়াবাড়ি গ্রামের মো. নূরুল ইসলামের ছেলে জহিরুল ইসলামকে বিয়ে করেন। এরপর থেকেই স্ত্রী রেজবীন নাহার গোপনে দুই স্বামীর সঙ্গে সংসার করতে থাকেন।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, প্রতারণা করে বিয়ে এবং গোপনে দুই স্বামী সঙ্গে সংসার করার বিষয়টি প্রকাশ পেলে ঘটনাটি চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়। পরে প্রথম স্বামী আল আমিন রনি স্ত্রী রেজবীনকে আনতে গেলে তার বাবা রফিকুল ইসলাম তাতে বাধা দেন। উল্টো প্রথম স্বামী আল আমিন রনির বিরুদ্ধে গত ৩ মে পাগলা থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করেন রেজবীন নাহারের বাবা রফিকুল ইসলাম।

স্বামী আল আমিন রনি প্রতারক স্ত্রী ও তার বাবার দায়ের করা মিথ্যা মামলার সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে প্রশাসনের সহযোগিতা দাবি করেন।

এ ঘটনায় রেজবীন নাহারের মোবাইলে যোগাযোগ করা হলে ফোন বন্ধ থাকায় কথা বলা সম্ভব হয়নি।

সংবাদ সম্মেলনে আল আমিন রনির বাবা নূরুল আমিন, চাচা আবুল কাশেম, স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যাক্তি মো. বদর উদ্দিন, আবুল কাশেম উজ্জল, মো. পাভেল, মো. শামছুদ্দিন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :




দুই স্বামীর সঙ্গে সংসার করেন শিক্ষিকা!

আপডেট সময় : ০৯:১৯:৩৩ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২৬ মে ২০১৯

ময়মনসিংহের গফরগাঁও উপজেলার রেজবীন নাহার (৩১) নামের এক স্কুল শিক্ষিকা স্ত্রীর বিরুদ্ধে প্রতারণার অভিযোগ এনে সংবাদ সম্মেলন করেছেন স্বামী আল আমিন রনি। শনিবার সকালে গফরগাঁও প্রেসক্লাবে এ সংবাদ সম্মেলন করেন তিনি।

রেজবীন নাহার লামকাইন মধ্যপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষিকা।

আল আমিন রনি অভিযোগ করে বলেন, ২০১৩ সালে ১৪ নভেম্বর উপজেলার পাগলা থানাধীন দত্তেরবাজার ইউনিয়নের বিরই গ্রামের রফিকুল ইসলামের মেয়ে রেজবীন নাহারের সঙ্গে কাবিন রেজিস্ট্রিমূলে তার বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকেই স্ত্রী রেজবীন নাহার পৌরশহরের শিলাসী গ্রামে আমার বাড়িতে বসবাস করে আসছিলেন।

তিনি বলেন, পরে রেজবীন নাহার আমাদের বিয়ের তথ্য গোপন রেখে প্রতারণার আশ্রয় নিয়ে ২০১৬ সালে ৮ জুলাই একই উপজেলার উস্থি ইউনিয়নের নয়াবাড়ি গ্রামের মো. নূরুল ইসলামের ছেলে জহিরুল ইসলামকে বিয়ে করেন। এরপর থেকেই স্ত্রী রেজবীন নাহার গোপনে দুই স্বামীর সঙ্গে সংসার করতে থাকেন।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, প্রতারণা করে বিয়ে এবং গোপনে দুই স্বামী সঙ্গে সংসার করার বিষয়টি প্রকাশ পেলে ঘটনাটি চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়। পরে প্রথম স্বামী আল আমিন রনি স্ত্রী রেজবীনকে আনতে গেলে তার বাবা রফিকুল ইসলাম তাতে বাধা দেন। উল্টো প্রথম স্বামী আল আমিন রনির বিরুদ্ধে গত ৩ মে পাগলা থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করেন রেজবীন নাহারের বাবা রফিকুল ইসলাম।

স্বামী আল আমিন রনি প্রতারক স্ত্রী ও তার বাবার দায়ের করা মিথ্যা মামলার সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে প্রশাসনের সহযোগিতা দাবি করেন।

এ ঘটনায় রেজবীন নাহারের মোবাইলে যোগাযোগ করা হলে ফোন বন্ধ থাকায় কথা বলা সম্ভব হয়নি।

সংবাদ সম্মেলনে আল আমিন রনির বাবা নূরুল আমিন, চাচা আবুল কাশেম, স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যাক্তি মো. বদর উদ্দিন, আবুল কাশেম উজ্জল, মো. পাভেল, মো. শামছুদ্দিন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।