ঢাকা ০৬:৫৫ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ২৪ জুলাই ২০২৪, ৯ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম :
Logo শাবি ক্যাম্পাসে আন্দোলনকারীদের ছড়ানো গুজবে সয়লাব Logo সিলেট-সুনামগঞ্জ মহাসড়কে আন্দোলনকারীরা পুলিশের উপর হামলা চালালে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে Logo জবিতে আজীবন ছাত্ররাজনীতি নিষিদ্ধ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ Logo শাবিতে হল প্রশাসনকে ভয়-ভীতি দেখিয়ে নোটিসে জোর পূর্বক সাইন আদায় Logo এবার সামনে আসছে ছাত্রলীগ কর্তৃক আন্দোলনকারীদের মারধরের আরো ঘটনা Logo আবাসিক হল ছাড়ছে শাবি শিক্ষার্থীরা Logo নিরাপত্তার স্বার্থে শাবি শিক্ষার্থীদের আইডিকার্ড সাথে রাখার আহবান বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের Logo জনস্বাস্থ্যের প্রধান সাধুর যত অসাধু কর্ম: দুর্নীতি ও অর্থ পাচারের অভিযোগ! Logo বিআইডব্লিউটিএ বন্দর শাখা যুগ্ম পরিচালক আলমগীরের দুর্নীতি ও ঘুষ বাণিজ্য  Logo রাজশাহীতে এটিএন বাংলার সাংবাদিক সুজাউদ্দিন ছোটনকে হয়রানিমূলক মামলায় বএিমইউজরে নিন্দা ও প্রতিবাদ




কি মধু আছে সিলেটে?

রাষ্ট্রপতির আদেশ অমান্য করে বহল তবিয়াতে সিলেট জনস্বাস্থ্য প্রকৌশলী আলমগী

নিজস্ব প্রতিবেদক:
  • আপডেট সময় : ০১:১৯:৫২ অপরাহ্ন, রবিবার, ৬ অগাস্ট ২০২৩ ২১০ বার পড়া হয়েছে

নিজস্ব প্রতিবেদক: সিলেটে জনস্বাস্থ্য অধিদপ্তরের প্রকৌশলী আলমগীর হোসেনের বদলি আদেশের পরও বহাল তবিয়তে অফিস করে যাচ্ছেন সিলেট কার্যালয়ে। রাষ্ট্রপতির আদেশের পরও সিলেট কার্যালয় ছেড়ে নতুন কর্মস্থল খাগড়াছড়িতে যোগ দিতে গড়িমসি করছেন। যার ফলে নতুন প্রকৌশলী আবুল কাশেম দায়িত্ব পালন করতে পারছেন না। তিনি গত ২৭ জুলাই থেকে অফিসে দায়িত্বভার গ্রহণের জন্য ধরণা দিয়ে আসছেন।

আবুল কাশেম একাদিক বার ফোনে ও স্ব-শরীরে নতুন কার্যালয়ে গেলেও তাকে দায়িত্বভার দেয়া হয়নি। এদিকে খাগড়াছড়িতে বদলি আদেশ পাওয়া আলমগীর হোসেন নানা মাধ্যমে এখানে থাকার অচেষ্টা করে যাচ্ছেন। এমনকি নতুন আদেশ প্রাপ্ত নির্বাহী প্রকৌশলীর বিরুদ্ধে অভিযোগ করে আসছেন। এতে বাধাগ্রস্থহচ্ছে সিলেট জনস্বাস্থ্য প্রকৌশলী অধিদপ্তরের কার্যক্রম।

জানা যায়, স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের জনস্বাস্থ্য অধিদপ্তরের ৭ প্রকৌশলীকে রাষ্ট্রপতির আদেশক্রমে উপসচিব মো. মুস্তাফিজুর রহমান স্বাক্ষরিত এক আদেশে ২৬ জুলাই দেশের বিভিন্ন জেলায় বদলি করা হয়।এ আদেশে বলা হয়, সিলেট জেলার পানি সরবরাহ শাখার নির্বাহী প্রকৌশলী (চলতি দায়িত্বে) আলমগীর হোসেনকে একই পদে খাগড়াছড়ি জেলায় বদলি করা হয়। সিলেটে বদলি করা হয় সুনামগঞ্জ জেলার নির্বাহী প্রকৌশলী আবুল কাশেমকে।

সংশ্লিষ্ট দপ্তর সূত্রে জানা যায়, বদলি আদেশের পর সাত কার্যদিবস পেরিয়ে গেলেও নিজ কর্মস্থল খাগড়াছড়িতে যোগদান না করে সিলেটেই অফিস করছেন আলমগির হোসেন। ফলে সিলেট ও খাগড়াছড়ি জেলায় এই পদে যথাযথ কর্মকর্তার অনুপস্থিতিতে আটকে আছে দাপ্তরিক কার্যক্রম।

এসব বিষয়ে জানতে চাইলে নির্বাহী প্রকৌশলী আলমগীর হোসেন বলেন, আমার বদলি আদেশ পেয়েছি। শারীরিক অসুস্থ থাকার কারণে নতুন কর্মস্থলে যোগদান করতে সময় লাগছে। নতুন বদলি হয়ে আসা প্রকৌশলীর দায়িত্ব প্রদান করা প্রসঙ্গে বলেন, আমি কাগজপত্র গোছাচ্ছি। সব কিছু গোছিয়ে আগামী ৯ আগস্ট নতুন কর্মস্থলে যোগদান করবো।

এ বিষয়ে জানতে জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তর সিলেট সার্কেলের তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশরী মুহাম্মদ শেখ সাদী রহমতউল্লাহ সংবাদ মাধ্যমকে বলেছেন, প্রকৌশলীদের বদলির আদেশক্রমে সিলেট জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের আলমগীর হোসেনকে খাগড়াছড়িতে বদলি করা হয়েছে। এবং সিলেটে নতুন প্রকৌশলী সুনামগঞ্জের আবুল কাশেমকে বদলি করে পাঠানো হয়েছে। কিন্তু এখনও নতুন দায়িত্ব বুঝিয়ে দেননি আলমগীর হোসেন। আগামী ৯ আগস্টের মধ্যে দায়িত্ব বুঝিয়ে দেয়ার জন্য ৩ আগষ্ট লিখিত ভাবে জানানো হয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :




কি মধু আছে সিলেটে?

রাষ্ট্রপতির আদেশ অমান্য করে বহল তবিয়াতে সিলেট জনস্বাস্থ্য প্রকৌশলী আলমগী

আপডেট সময় : ০১:১৯:৫২ অপরাহ্ন, রবিবার, ৬ অগাস্ট ২০২৩

নিজস্ব প্রতিবেদক: সিলেটে জনস্বাস্থ্য অধিদপ্তরের প্রকৌশলী আলমগীর হোসেনের বদলি আদেশের পরও বহাল তবিয়তে অফিস করে যাচ্ছেন সিলেট কার্যালয়ে। রাষ্ট্রপতির আদেশের পরও সিলেট কার্যালয় ছেড়ে নতুন কর্মস্থল খাগড়াছড়িতে যোগ দিতে গড়িমসি করছেন। যার ফলে নতুন প্রকৌশলী আবুল কাশেম দায়িত্ব পালন করতে পারছেন না। তিনি গত ২৭ জুলাই থেকে অফিসে দায়িত্বভার গ্রহণের জন্য ধরণা দিয়ে আসছেন।

আবুল কাশেম একাদিক বার ফোনে ও স্ব-শরীরে নতুন কার্যালয়ে গেলেও তাকে দায়িত্বভার দেয়া হয়নি। এদিকে খাগড়াছড়িতে বদলি আদেশ পাওয়া আলমগীর হোসেন নানা মাধ্যমে এখানে থাকার অচেষ্টা করে যাচ্ছেন। এমনকি নতুন আদেশ প্রাপ্ত নির্বাহী প্রকৌশলীর বিরুদ্ধে অভিযোগ করে আসছেন। এতে বাধাগ্রস্থহচ্ছে সিলেট জনস্বাস্থ্য প্রকৌশলী অধিদপ্তরের কার্যক্রম।

জানা যায়, স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের জনস্বাস্থ্য অধিদপ্তরের ৭ প্রকৌশলীকে রাষ্ট্রপতির আদেশক্রমে উপসচিব মো. মুস্তাফিজুর রহমান স্বাক্ষরিত এক আদেশে ২৬ জুলাই দেশের বিভিন্ন জেলায় বদলি করা হয়।এ আদেশে বলা হয়, সিলেট জেলার পানি সরবরাহ শাখার নির্বাহী প্রকৌশলী (চলতি দায়িত্বে) আলমগীর হোসেনকে একই পদে খাগড়াছড়ি জেলায় বদলি করা হয়। সিলেটে বদলি করা হয় সুনামগঞ্জ জেলার নির্বাহী প্রকৌশলী আবুল কাশেমকে।

সংশ্লিষ্ট দপ্তর সূত্রে জানা যায়, বদলি আদেশের পর সাত কার্যদিবস পেরিয়ে গেলেও নিজ কর্মস্থল খাগড়াছড়িতে যোগদান না করে সিলেটেই অফিস করছেন আলমগির হোসেন। ফলে সিলেট ও খাগড়াছড়ি জেলায় এই পদে যথাযথ কর্মকর্তার অনুপস্থিতিতে আটকে আছে দাপ্তরিক কার্যক্রম।

এসব বিষয়ে জানতে চাইলে নির্বাহী প্রকৌশলী আলমগীর হোসেন বলেন, আমার বদলি আদেশ পেয়েছি। শারীরিক অসুস্থ থাকার কারণে নতুন কর্মস্থলে যোগদান করতে সময় লাগছে। নতুন বদলি হয়ে আসা প্রকৌশলীর দায়িত্ব প্রদান করা প্রসঙ্গে বলেন, আমি কাগজপত্র গোছাচ্ছি। সব কিছু গোছিয়ে আগামী ৯ আগস্ট নতুন কর্মস্থলে যোগদান করবো।

এ বিষয়ে জানতে জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তর সিলেট সার্কেলের তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশরী মুহাম্মদ শেখ সাদী রহমতউল্লাহ সংবাদ মাধ্যমকে বলেছেন, প্রকৌশলীদের বদলির আদেশক্রমে সিলেট জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের আলমগীর হোসেনকে খাগড়াছড়িতে বদলি করা হয়েছে। এবং সিলেটে নতুন প্রকৌশলী সুনামগঞ্জের আবুল কাশেমকে বদলি করে পাঠানো হয়েছে। কিন্তু এখনও নতুন দায়িত্ব বুঝিয়ে দেননি আলমগীর হোসেন। আগামী ৯ আগস্টের মধ্যে দায়িত্ব বুঝিয়ে দেয়ার জন্য ৩ আগষ্ট লিখিত ভাবে জানানো হয়েছে।