ঢাকা ০৭:২৪ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৫ এপ্রিল ২০২৪, ২ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম :
Logo মঙ্গল শোভাযাত্রা – তাসফিয়া ফারহানা ঐশী Logo সাস্টিয়ান ব্রাহ্মণবাড়িয়া এর ইফতার মাহফিল সম্পন্ন Logo কুবির চট্টগ্রাম স্টুডেন্টস ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশনের ইফতার ও পূর্নমিলনী Logo অধ্যাপক জহীর উদ্দিন আহমেদের মায়ের মৃত্যুতে শাবির মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও মুক্ত চিন্তা চর্চায় ঐক্যবদ্ধ শিক্ষকবৃন্দ পরিষদের শোক প্রকাশ Logo শাবির অধ্যাপক জহীর উদ্দিনের মায়ের মৃত্যুতে উপাচার্যের শোক প্রকাশ Logo বিশ কোটিতে গণপূর্তের প্রধান হওয়ার মিশনে ‘ছাত্রদল ক্যাডার প্রকৌশলী’! Logo দূর্নীতির রাক্ষস ফায়ার সার্ভিসের এডি আনোয়ার! Logo ঝড় ও শিলাবৃষ্টিতে ক্ষতি হওয়া শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয়ে অবকাঠামোর সংস্কার শুরু Logo বুয়েটে নিয়মতান্ত্রিক ছাত্র রাজনীতির দাবিতে শাবিপ্রবি ছাত্রলীগের মানববন্ধন Logo কুবি উপাচার্যের বক্তব্যের প্রমাণ দিতে শিক্ষক সমিতির সাত দিনের আল্টিমেটাম




মদ্যপ সন্দেহ হলেই চালককে পাঠানো হবে হাসপাতালে

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৯:৩৭:১৪ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২২ ডিসেম্বর ২০২০ ১০৪ বার পড়া হয়েছে

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

মদ্যপ অবস্থায় গাড়ি চালানোর কারণে দুর্ঘটনা বেড়ে গেছে ভারতের কলকাতার লালবাজারে। আবার পুলিশের অভিযানেও ঢিলেঢালা ভাব চলে এসেছে। তবে দুর্ঘটনা রোধে আবারও তৎপর হয়েছে পুলিশ। কোনো চালককে মদ্যপ মনে হলেই আটক করে হাসপাতালে পাঠানোর উদ্যোগ নিচ্ছে। করোনার কারণে ব্রেথ অ্যানালাইজার ব্যবহার বন্ধ থাকায় পুলিশ এ ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে।

ভারতের সংবাদমাধ্যমগুলো জানায়, চলতি সপ্তাহে বড়দিনের উৎসবের আগেই মদ্যপ চালকদের বিরুদ্ধে রাতের এই বিশেষ অভিযান শুরু হবে। কারণ, বড়দিন এবং বর্ষবরণের উৎসবের এই সময়ে গাড়ি ও মোটরবাইক চালকদের একটি বড় অংশই মদ্যপ অবস্থায় রাস্তায় বের হন। এ ছাড়া গত কয়েক দিনের কয়েকটি দুর্ঘটনা থেকেও তা অনুমান করছে পুলিশ।

পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, গত সপ্তাহে দক্ষিণ কলকাতার গরফায় মদ্যপ অবস্থায় গাড়ি চালাতে গিয়ে এক পথচারীকে চাপা দেন এক চালক। কয়েক দিনের মধ্যেই মদ্যপ অবস্থায় মোটরসাইকেল চালাতে গিয়ে দুর্ঘটনায় মারা যান দু’জন। এ অবস্থায় তৎপরতা বাড়ানো হবে বলে জানিয়েছেন পুলিশের এক কর্মকর্তা। তিনি জানান, শহরের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ স্থানে রাতভর এই বিশেষ অভিযান চালানো হবে।

করোনা সংক্রমণের আশঙ্কায় গত মার্চ থেকে সন্দেহভাজন চালকদের ব্রেথ অ্যানালাইজার দিয়ে পরীক্ষা বন্ধ রয়েছে। এ কারণে থমকে গেছে মদ্যপ চালক শনাক্তের অভিযান। আবার বিভিন্ন হাসপাতাল করোনা চিকিৎসার জন্য নির্দিষ্ট হওয়ায় চালকরা সংক্রমণের ভয়ে সেখানে যেতে চান না। সে কারণেও পুলিশি অভিযান ঢিলেঢালা হয়ে পড়ে। তবে দুর্ঘটনা বাড়তে থাকায় আবার অভিযান শুরু করছে পুলিশ।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :




মদ্যপ সন্দেহ হলেই চালককে পাঠানো হবে হাসপাতালে

আপডেট সময় : ০৯:৩৭:১৪ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২২ ডিসেম্বর ২০২০

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

মদ্যপ অবস্থায় গাড়ি চালানোর কারণে দুর্ঘটনা বেড়ে গেছে ভারতের কলকাতার লালবাজারে। আবার পুলিশের অভিযানেও ঢিলেঢালা ভাব চলে এসেছে। তবে দুর্ঘটনা রোধে আবারও তৎপর হয়েছে পুলিশ। কোনো চালককে মদ্যপ মনে হলেই আটক করে হাসপাতালে পাঠানোর উদ্যোগ নিচ্ছে। করোনার কারণে ব্রেথ অ্যানালাইজার ব্যবহার বন্ধ থাকায় পুলিশ এ ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে।

ভারতের সংবাদমাধ্যমগুলো জানায়, চলতি সপ্তাহে বড়দিনের উৎসবের আগেই মদ্যপ চালকদের বিরুদ্ধে রাতের এই বিশেষ অভিযান শুরু হবে। কারণ, বড়দিন এবং বর্ষবরণের উৎসবের এই সময়ে গাড়ি ও মোটরবাইক চালকদের একটি বড় অংশই মদ্যপ অবস্থায় রাস্তায় বের হন। এ ছাড়া গত কয়েক দিনের কয়েকটি দুর্ঘটনা থেকেও তা অনুমান করছে পুলিশ।

পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, গত সপ্তাহে দক্ষিণ কলকাতার গরফায় মদ্যপ অবস্থায় গাড়ি চালাতে গিয়ে এক পথচারীকে চাপা দেন এক চালক। কয়েক দিনের মধ্যেই মদ্যপ অবস্থায় মোটরসাইকেল চালাতে গিয়ে দুর্ঘটনায় মারা যান দু’জন। এ অবস্থায় তৎপরতা বাড়ানো হবে বলে জানিয়েছেন পুলিশের এক কর্মকর্তা। তিনি জানান, শহরের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ স্থানে রাতভর এই বিশেষ অভিযান চালানো হবে।

করোনা সংক্রমণের আশঙ্কায় গত মার্চ থেকে সন্দেহভাজন চালকদের ব্রেথ অ্যানালাইজার দিয়ে পরীক্ষা বন্ধ রয়েছে। এ কারণে থমকে গেছে মদ্যপ চালক শনাক্তের অভিযান। আবার বিভিন্ন হাসপাতাল করোনা চিকিৎসার জন্য নির্দিষ্ট হওয়ায় চালকরা সংক্রমণের ভয়ে সেখানে যেতে চান না। সে কারণেও পুলিশি অভিযান ঢিলেঢালা হয়ে পড়ে। তবে দুর্ঘটনা বাড়তে থাকায় আবার অভিযান শুরু করছে পুলিশ।