ঢাকা ০৫:২০ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪, ৩০ চৈত্র ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম :
Logo সাস্টিয়ান ব্রাহ্মণবাড়িয়া এর ইফতার মাহফিল সম্পন্ন Logo কুবির চট্টগ্রাম স্টুডেন্টস ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশনের ইফতার ও পূর্নমিলনী Logo অধ্যাপক জহীর উদ্দিন আহমেদের মায়ের মৃত্যুতে শাবির মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও মুক্ত চিন্তা চর্চায় ঐক্যবদ্ধ শিক্ষকবৃন্দ পরিষদের শোক প্রকাশ Logo শাবির অধ্যাপক জহীর উদ্দিনের মায়ের মৃত্যুতে উপাচার্যের শোক প্রকাশ Logo বিশ কোটিতে গণপূর্তের প্রধান হওয়ার মিশনে ‘ছাত্রদল ক্যাডার প্রকৌশলী’! Logo দূর্নীতির রাক্ষস ফায়ার সার্ভিসের এডি আনোয়ার! Logo ঝড় ও শিলাবৃষ্টিতে ক্ষতি হওয়া শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয়ে অবকাঠামোর সংস্কার শুরু Logo বুয়েটে নিয়মতান্ত্রিক ছাত্র রাজনীতির দাবিতে শাবিপ্রবি ছাত্রলীগের মানববন্ধন Logo কুবি উপাচার্যের বক্তব্যের প্রমাণ দিতে শিক্ষক সমিতির সাত দিনের আল্টিমেটাম Logo কুবি বাংলা বিভাগের অ্যালামনাইদের ইফতার ও দোয়া মাহফিল




৯৯৯-এ ফোন, দুর্ঘটনা থেকে রক্ষা পেলেন শতাধিক পর্যটক

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১১:১২:৪৬ অপরাহ্ন, রবিবার, ২০ ডিসেম্বর ২০২০ ৫৭ বার পড়া হয়েছে

অনলাইন ডেস্ক;

সেন্টমার্টিন দ্বীপ থেকে টেকনাফ ফেরার পথে শতাধিক পর্যটক নিয়ে সাগরে বিকল হয় ‘এস টি ভাষা শহীদ সালাম’ নামের পর্যটকবাহী জাহাজ। জাহাজ চালুর পর ঘাট ত্যাগ করে অল্পদূর এগোতেই পাঁচ মিনিটের মাথায় ইঞ্জিন বিকল হয়ে ভাসতে থাকে। পরে ৯৯৯ থেকে ফোন পেয়ে জাহাজটিকে তীরে আনতে সক্ষম হয় পুলিশ, নৌবাহিনী ও কোস্টগার্ড।

রোববার (২০ ডিসেম্বর) বিকেলে সেন্টমার্টিন বঙ্গোপসাগরে এ ঘটনা ঘটে।

যাত্রীদের অভিযোগ, বিকল ইঞ্জিন ঠিক করার নামে প্রায় তিন ঘণ্টা ভাসিয়ে রাখা হয় জাহাজটি। জাহাজটি ধীরে ধীরে মিয়ানমার জলসীমার দিকে ভেসে যাচ্ছে দেখে আতঙ্কিত পর্যটকদের কয়েকজন জাতীয় সেবা ৯৯৯-এ কল করে সহযোগিতা চান। পরে সেন্টমার্টিন কোস্টগার্ড, পুলিশ ও নৌবাহিনীর যৌথ প্রচেষ্টায় সন্ধ্যার দিকে জাহাজটি তীরে আনা হয়।

দ্বীপে পরিবার-পরিজন নিয়ে বেড়াতে যাওয়া টেকনাফ পৌর ছাত্রলীগের সভাপতি মোহাম্মদ শাহীন বলেন, ‘টেকনাফ-সেন্টমার্টিন নৌপথে এস টি ভাষা শহীদ সালাম জাহাজটি চলতি মৌসুমে রোববারই প্রথম আড়াই শতাধিক পর্যটক নিয়ে সেন্টমার্টিন যাত্রা শুরু করে। শতাধিক পর্যটক রাত্রিযাপনের জন্য থেকে গেলে বাকি শতাধিক যাত্রী নিয়ে টেকনাফ ফেরার পথে এ দুর্ভোগে পড়েন তারা।’

এস টি ভাষা শহীদ সালাম জাহাজের আবাসিক সুপারভাইজার (টেকনিশিয়ান) মোহাম্মদ সাহেদ তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ‘মেশিনারি জিনিসের কোনো বিশ্বাস নেই। এই ভালো তো এই খারাপ হতেই পারে। আমি অন্যদের নিয়ে ত্রুটি সারার চেষ্টার কমতি করিনি। কিন্তু শেষমেশ পারিনি।’

সেন্টমার্টিন ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নুর আহমদ বলেন, ‘বিষয়টি জানার পর নৌবাহিনী, পুলিশ ও কোস্টগার্ড যৌথভাবে ভাসমান জাহাজ থেকে পর্যটকদের তীরে ফেরানোর ব্যবস্থা করে। যাদের জরুরি জাহাজ ত্যাগ করা প্রয়োজন তাদের স্পিডবোটে টেকনাফ পৌঁছানোর ব্যবস্থা করা হয়েছে। নারী-শিশুসহ পরিবারগুলোকে আবাসনের বিষয়টি তদারক করা হচ্ছে।’

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :




৯৯৯-এ ফোন, দুর্ঘটনা থেকে রক্ষা পেলেন শতাধিক পর্যটক

আপডেট সময় : ১১:১২:৪৬ অপরাহ্ন, রবিবার, ২০ ডিসেম্বর ২০২০

অনলাইন ডেস্ক;

সেন্টমার্টিন দ্বীপ থেকে টেকনাফ ফেরার পথে শতাধিক পর্যটক নিয়ে সাগরে বিকল হয় ‘এস টি ভাষা শহীদ সালাম’ নামের পর্যটকবাহী জাহাজ। জাহাজ চালুর পর ঘাট ত্যাগ করে অল্পদূর এগোতেই পাঁচ মিনিটের মাথায় ইঞ্জিন বিকল হয়ে ভাসতে থাকে। পরে ৯৯৯ থেকে ফোন পেয়ে জাহাজটিকে তীরে আনতে সক্ষম হয় পুলিশ, নৌবাহিনী ও কোস্টগার্ড।

রোববার (২০ ডিসেম্বর) বিকেলে সেন্টমার্টিন বঙ্গোপসাগরে এ ঘটনা ঘটে।

যাত্রীদের অভিযোগ, বিকল ইঞ্জিন ঠিক করার নামে প্রায় তিন ঘণ্টা ভাসিয়ে রাখা হয় জাহাজটি। জাহাজটি ধীরে ধীরে মিয়ানমার জলসীমার দিকে ভেসে যাচ্ছে দেখে আতঙ্কিত পর্যটকদের কয়েকজন জাতীয় সেবা ৯৯৯-এ কল করে সহযোগিতা চান। পরে সেন্টমার্টিন কোস্টগার্ড, পুলিশ ও নৌবাহিনীর যৌথ প্রচেষ্টায় সন্ধ্যার দিকে জাহাজটি তীরে আনা হয়।

দ্বীপে পরিবার-পরিজন নিয়ে বেড়াতে যাওয়া টেকনাফ পৌর ছাত্রলীগের সভাপতি মোহাম্মদ শাহীন বলেন, ‘টেকনাফ-সেন্টমার্টিন নৌপথে এস টি ভাষা শহীদ সালাম জাহাজটি চলতি মৌসুমে রোববারই প্রথম আড়াই শতাধিক পর্যটক নিয়ে সেন্টমার্টিন যাত্রা শুরু করে। শতাধিক পর্যটক রাত্রিযাপনের জন্য থেকে গেলে বাকি শতাধিক যাত্রী নিয়ে টেকনাফ ফেরার পথে এ দুর্ভোগে পড়েন তারা।’

এস টি ভাষা শহীদ সালাম জাহাজের আবাসিক সুপারভাইজার (টেকনিশিয়ান) মোহাম্মদ সাহেদ তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ‘মেশিনারি জিনিসের কোনো বিশ্বাস নেই। এই ভালো তো এই খারাপ হতেই পারে। আমি অন্যদের নিয়ে ত্রুটি সারার চেষ্টার কমতি করিনি। কিন্তু শেষমেশ পারিনি।’

সেন্টমার্টিন ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নুর আহমদ বলেন, ‘বিষয়টি জানার পর নৌবাহিনী, পুলিশ ও কোস্টগার্ড যৌথভাবে ভাসমান জাহাজ থেকে পর্যটকদের তীরে ফেরানোর ব্যবস্থা করে। যাদের জরুরি জাহাজ ত্যাগ করা প্রয়োজন তাদের স্পিডবোটে টেকনাফ পৌঁছানোর ব্যবস্থা করা হয়েছে। নারী-শিশুসহ পরিবারগুলোকে আবাসনের বিষয়টি তদারক করা হচ্ছে।’