চাঁদা না দেয়ায় নরসিংদীতে দোকানে তালা; প্রতিবাদে স্বর্ণ ব্যবসায়ীদের ধর্মঘট

সকালের সংবাদ ডেস্ক;সকালের সংবাদ ডেস্ক;
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ১০:৪২ পূর্বাহ্ণ, ২৪ নভেম্বর ২০২০

নরসিংদী প্রতিনিধি||

নরসিংদী জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আবদুল মতিন ভূইয়া’ র ছেলে খলিলুর রহমান শুভ’র বিরুদ্ধে স্বর্ণ ব্যবসায়িদের নিকট চাঁদা দাবি ও স্বর্ণ শিল্পী সমিতির সভাপতির দোকানে তালাবদ্ধ করার প্রতিবাদে শহর স্বর্ণ ব্যবসায়ীদের ধর্মঘট চলছে।

গত ২২ নভেম্বর সন্ধ্যা ৭টা থেকে নরসিংদী শহর স্বর্ণ ব্যবসায়ীরা তারা তাদের দোকান বন্ধ করে অপরাধীদের বিচার দাবী করছে।

এ বিষয়ে সমিতির সভাপতি নারায়ণ দত্ত নারু এবং সাধারণ সম্পাদক রতন চক্রবর্তীসহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ জানান, গত ২২ নভেম্বর সন্ধ্যা আনুমানিক সাড়ে ৬টায় মোঃ ওয়ালিউল্লাহ(সজিব)স্বাক্ষরিত “বাংলাদেশ জুয়েলার্স সমিতি” নামীয় সীল সম্বলিত একটি তালা দিয়ে সভাপতির “চৈতী গহনালয়” দোকানে তালা লাগিয়ে দেয়।

সমিতির নেতৃবৃন্দ সহ স্বর্ণ ব্যবসায়ীরা বিষয়টি নরসিংদী সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে লিখিতভাবে অবিহিত করেন। পরে রাাত আনুমানিক ৮টার দিকে ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা নরসিংদী বাজার বণিক সমিতির সভাপতি বাবুল সরকারের উপস্থিতিতে তালাবদ্ধ দোকানটি খুলে দেন।

ব্যবসায়ীরা জানান, “বাংলাদেশ জুয়েলার্স সমিতি” নাম দিয়ে এর সাধারণ সম্পাদক দাবীদার অলিউল্লাহ আমাদেরকে তাদের সমিতিতে অন্তর্ভূক্ত হওয়ার জন্য চাপ সৃিস্টি করে এবং সমিতিতে ৩০০০/০০ টাকা রেজিঃ ফি সহ মাসিক ২০০০/০০টাকা করে চাঁদা দাবী করে। আমরা এতে সম্মতি না দেয়ায় খলিলুর রহমান শুভ’র লোকজন ওয়ালিউল্লাহর নেতৃত্বে জনৈক হাসানকে নিয়ে সভাপতির দোকানে তালা ঝুলিয়ে দেয়।

এব্যাপারে আজ দুপুরে সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, স্বর্ণ ব্যবসায়ী সমিতির দোকান খুলে দিয়েছি এবং তারা আলাপ-আলোচনার মাধ্যমে বিরোধ মিমাংসা করবে বলে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে।

সমিতির সভাপতি জানান, নরসিংদী জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আব্দুল মতিন ভূইয়া সাহেব বাজারে উপস্থিত হয়ে ঘটনায় জড়িত দোষী ব্যক্তিদের বিচারের আশ্বাস দিয়েছেন।

এব্যাপারে জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আব্দুল মতিন ভূইয়ার সাথে যোগাযোগ করলে জানান, “আমি সমিতির সভাপতি নারুকে বলেছি আজকে আমি শারীরিকভাবে অসুস্থ্য। আগামী ২৪ নভেম্বর তোমরা যখন সময় দিবে, তখনই আমি নিজে বাজারে উপস্থিত হয়ে ঘটনার তদন্ত সাপেক্ষে উপযুক্ত বিচার করবো।

এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত স্বর্ণ ব্যবসায়ীদের দোকানপাট বন্ধ রয়েছে।

আপনার মতামত লিখুন :