ঢাকা ০৬:০৪ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ২৪ জুলাই ২০২৪, ৯ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম :
Logo শাবি ক্যাম্পাসে আন্দোলনকারীদের ছড়ানো গুজবে সয়লাব Logo সিলেট-সুনামগঞ্জ মহাসড়কে আন্দোলনকারীরা পুলিশের উপর হামলা চালালে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে Logo জবিতে আজীবন ছাত্ররাজনীতি নিষিদ্ধ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ Logo শাবিতে হল প্রশাসনকে ভয়-ভীতি দেখিয়ে নোটিসে জোর পূর্বক সাইন আদায় Logo এবার সামনে আসছে ছাত্রলীগ কর্তৃক আন্দোলনকারীদের মারধরের আরো ঘটনা Logo আবাসিক হল ছাড়ছে শাবি শিক্ষার্থীরা Logo নিরাপত্তার স্বার্থে শাবি শিক্ষার্থীদের আইডিকার্ড সাথে রাখার আহবান বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের Logo জনস্বাস্থ্যের প্রধান সাধুর যত অসাধু কর্ম: দুর্নীতি ও অর্থ পাচারের অভিযোগ! Logo বিআইডব্লিউটিএ বন্দর শাখা যুগ্ম পরিচালক আলমগীরের দুর্নীতি ও ঘুষ বাণিজ্য  Logo রাজশাহীতে এটিএন বাংলার সাংবাদিক সুজাউদ্দিন ছোটনকে হয়রানিমূলক মামলায় বএিমইউজরে নিন্দা ও প্রতিবাদ




মুরগীর খামার থেকে ৮৬৯ বস্তা ত্রাণের চাল উদ্ধার

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১১:৫৬:৩৬ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৯ এপ্রিল ২০২০ ৬৭ বার পড়া হয়েছে

হিলি প্রতিনিধি, 

দিনাজপুরের ঘোড়াঘাটে খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির (পুষ্টি) ৮৬৯ বস্তা চাল উদ্ধার করেছে পুলিশ। পরে তা ডিলারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। আগামীকাল সোমবার (২০ এপ্রিল) এসব চাল পুষ্টি কার্ডধারীদের মাঝে প্রশাসনের উপস্থিতিতে বিতরণ করা হবে।

আজ রোববার (১৯ এপ্রিল) দুপুরে ঘোড়াঘাট উপজেলার সিংড়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আব্দুল মান্নানের স্ত্রী ও চালের ডিলার রহিমা বেগমের বাগান বাড়ি মুরগীর খামার থেকে এই চালগুলো উদ্ধার করা হয়। এই সময় সেখানে ঘোড়াঘাট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ওয়াহিদা খানম এবং থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আমিরুল ইসলাম উপস্থিত ছিলেন।

হাকিমপুর সার্কেলের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার আখিউল ইসলাম জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সিংড়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আব্দুল মান্নানের বাগান বাড়িতে অভিযান চালানো হয়। এই সময় সেখান থেকে বেশ কিছু সরকারি চাল জব্দ করি। এগুলো ডিলারের জিম্মায় রেখে দিয়েছি। তবে তারা বলছে এগুলো ‘পুষ্টি কর্মসূচির চাল’। আমরা তথ্যগুলো যাচাই করছি। তবে পুষ্টি কার্ডধারী যারা রয়েছেন তারাই যেন এই চাল পায় তাই আগামীকাল প্রশাসনের উপস্থিতিতে তা বিতরণ করা হবে।

তিনি আরও জানান, ত্রাণ নিয়ে বিভিন্ন স্থানে নানারকম অনিয়ম হচ্ছে। এটি যাতে ঘোড়াঘাট এলাকায় না ঘটে এবং সঠিক মানুষগুলো যেন সরকারি সহযোগিতা পায় তাই এই পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে।

ঘোড়াঘাট উপজেলা নির্বাহী অফিসার ওয়াহীদা খানম জানান, আমি সহকারী পুলিশ সুপারের ফোনে খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে এসেছি। দেখতে পেলাম খাদ্যবান্ধব কর্মসূচীর বেশ কিছু চাল প্যাকেট অবস্থায় রয়েছে। এই চালগুলো ১০ টাকা কেজি দরে ৩০ কেজি করে কার্ডধারীদের দেয়া হয় বছরে পাঁচ মাস ডিলারের মাধ্যমে।

তিনি আরও জানান, আজকের চালগুলো আমরা আগামীকাল কাগজপত্র পরীক্ষা করে কার্ডধারীদের মাঝে বিতরণ করব। ঘোড়াঘাট উপজেলাতে মোট ৮টি ডিলার রয়েছে। তাদের মাধ্যমেই খাদ্যবান্ধবের চালগুলো বিতরণ করা হয়।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :




মুরগীর খামার থেকে ৮৬৯ বস্তা ত্রাণের চাল উদ্ধার

আপডেট সময় : ১১:৫৬:৩৬ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৯ এপ্রিল ২০২০

হিলি প্রতিনিধি, 

দিনাজপুরের ঘোড়াঘাটে খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির (পুষ্টি) ৮৬৯ বস্তা চাল উদ্ধার করেছে পুলিশ। পরে তা ডিলারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। আগামীকাল সোমবার (২০ এপ্রিল) এসব চাল পুষ্টি কার্ডধারীদের মাঝে প্রশাসনের উপস্থিতিতে বিতরণ করা হবে।

আজ রোববার (১৯ এপ্রিল) দুপুরে ঘোড়াঘাট উপজেলার সিংড়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আব্দুল মান্নানের স্ত্রী ও চালের ডিলার রহিমা বেগমের বাগান বাড়ি মুরগীর খামার থেকে এই চালগুলো উদ্ধার করা হয়। এই সময় সেখানে ঘোড়াঘাট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ওয়াহিদা খানম এবং থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আমিরুল ইসলাম উপস্থিত ছিলেন।

হাকিমপুর সার্কেলের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার আখিউল ইসলাম জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সিংড়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আব্দুল মান্নানের বাগান বাড়িতে অভিযান চালানো হয়। এই সময় সেখান থেকে বেশ কিছু সরকারি চাল জব্দ করি। এগুলো ডিলারের জিম্মায় রেখে দিয়েছি। তবে তারা বলছে এগুলো ‘পুষ্টি কর্মসূচির চাল’। আমরা তথ্যগুলো যাচাই করছি। তবে পুষ্টি কার্ডধারী যারা রয়েছেন তারাই যেন এই চাল পায় তাই আগামীকাল প্রশাসনের উপস্থিতিতে তা বিতরণ করা হবে।

তিনি আরও জানান, ত্রাণ নিয়ে বিভিন্ন স্থানে নানারকম অনিয়ম হচ্ছে। এটি যাতে ঘোড়াঘাট এলাকায় না ঘটে এবং সঠিক মানুষগুলো যেন সরকারি সহযোগিতা পায় তাই এই পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে।

ঘোড়াঘাট উপজেলা নির্বাহী অফিসার ওয়াহীদা খানম জানান, আমি সহকারী পুলিশ সুপারের ফোনে খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে এসেছি। দেখতে পেলাম খাদ্যবান্ধব কর্মসূচীর বেশ কিছু চাল প্যাকেট অবস্থায় রয়েছে। এই চালগুলো ১০ টাকা কেজি দরে ৩০ কেজি করে কার্ডধারীদের দেয়া হয় বছরে পাঁচ মাস ডিলারের মাধ্যমে।

তিনি আরও জানান, আজকের চালগুলো আমরা আগামীকাল কাগজপত্র পরীক্ষা করে কার্ডধারীদের মাঝে বিতরণ করব। ঘোড়াঘাট উপজেলাতে মোট ৮টি ডিলার রয়েছে। তাদের মাধ্যমেই খাদ্যবান্ধবের চালগুলো বিতরণ করা হয়।