ঢাকা ০৪:৫০ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২২, ১৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম :




থানার বাথরুমে ঢুকে হারপিক খেলেন তরুণী

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১০:৩৬:১৯ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ১৮ জানুয়ারী ২০১৯ ১০ বার পড়া হয়েছে

 

রংপুর প্রতিনিধিঃ মুঠোফোনে প্রেম। এরপর বিয়ে না করেই স্বামী-স্ত্রী পরিচয়ে বসবাস। এখন বিয়েতে অস্বীকৃতি জানানোই হারপিক খেয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেছেন রংপুর কারমাইকেল কলেজের মাস্টার্সের এক ছাত্রী। এ ঘটনায় প্রেমিক ইমরানকে (৩৫) আটক করেছে পুলিশ।

বুধবার রাতে রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের কোতয়ালি থানায় এ ঘটনা ঘটে।

পুলিশ জানায়, নগরীর কামালকাছনা এলাকার আশরাফ আলীর ছেলে ও একটি কোচিং সেন্টারের পরিচালক ইমরানের সঙ্গে মুঠোফোনে পরিচয় হয় ওই কলেজছাত্রীর। এরপর বিয়ে না করেই গোপনে তারা বাসা ভাড়া নিয়ে স্বামী-স্ত্রী হিসেবে বসবাস করেন।

সম্প্রতি ওই কলেজছাত্রী বিয়ের জন্য চাপ দিলে অস্বীকৃতি জানান ইমরান। এ নিয়ে বুধবার রাত ৯টার দিকে থানায় দু’জনকে নিয়ে আলোচনার উদ্যোগ নেয় পুলিশ। এ সময় ইমরান বিয়েতে অস্বীকৃতি জানালে ওই কলেজছাত্রী থানার বাথরুমে ঢুকে হারপিক খেয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন। পরে পুলিশ তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করে।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে কোতয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি, তদন্ত) মোক্তারুল আলম বলেন, প্রেমিক ইমরানকে আটক করা হয়েছে এবং ওই কলেজছাত্রীকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :




থানার বাথরুমে ঢুকে হারপিক খেলেন তরুণী

আপডেট সময় : ১০:৩৬:১৯ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ১৮ জানুয়ারী ২০১৯

 

রংপুর প্রতিনিধিঃ মুঠোফোনে প্রেম। এরপর বিয়ে না করেই স্বামী-স্ত্রী পরিচয়ে বসবাস। এখন বিয়েতে অস্বীকৃতি জানানোই হারপিক খেয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেছেন রংপুর কারমাইকেল কলেজের মাস্টার্সের এক ছাত্রী। এ ঘটনায় প্রেমিক ইমরানকে (৩৫) আটক করেছে পুলিশ।

বুধবার রাতে রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের কোতয়ালি থানায় এ ঘটনা ঘটে।

পুলিশ জানায়, নগরীর কামালকাছনা এলাকার আশরাফ আলীর ছেলে ও একটি কোচিং সেন্টারের পরিচালক ইমরানের সঙ্গে মুঠোফোনে পরিচয় হয় ওই কলেজছাত্রীর। এরপর বিয়ে না করেই গোপনে তারা বাসা ভাড়া নিয়ে স্বামী-স্ত্রী হিসেবে বসবাস করেন।

সম্প্রতি ওই কলেজছাত্রী বিয়ের জন্য চাপ দিলে অস্বীকৃতি জানান ইমরান। এ নিয়ে বুধবার রাত ৯টার দিকে থানায় দু’জনকে নিয়ে আলোচনার উদ্যোগ নেয় পুলিশ। এ সময় ইমরান বিয়েতে অস্বীকৃতি জানালে ওই কলেজছাত্রী থানার বাথরুমে ঢুকে হারপিক খেয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন। পরে পুলিশ তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করে।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে কোতয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি, তদন্ত) মোক্তারুল আলম বলেন, প্রেমিক ইমরানকে আটক করা হয়েছে এবং ওই কলেজছাত্রীকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।