ঢাকা ০৯:৩৬ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০২৪, ১ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম :
Logo নিরাপত্তার স্বার্থে শাবি শিক্ষার্থীদের আইডিকার্ড সাথে রাখার আহবান বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের Logo জনস্বাস্থ্যের প্রধান সাধুর যত অসাধু কর্ম: দুর্নীতি ও অর্থ পাচারের অভিযোগ! Logo বিআইডব্লিউটিএ বন্দর শাখা যুগ্ম পরিচালক আলমগীরের দুর্নীতি ও ঘুষ বাণিজ্য  Logo রাজশাহীতে এটিএন বাংলার সাংবাদিক সুজাউদ্দিন ছোটনকে হয়রানিমূলক মামলায় বএিমইউজরে নিন্দা ও প্রতিবাদ Logo শিক্ষার্থীদের তথ্য প্রযুক্তিতে দক্ষ হয়ে স্মার্ট বাংলাদেশ গড়ায় অবদান রাখতে হবেঃ ড. তৌফিক রহমান চৌধুরী Logo ‘কানামাছি শিশুসাহিত্য পুরস্কার ২০২৪’ পেলেন লেখক Logo মধ্যরাতে শাবি ছাত্রলীগের ‘ তুমি কে, আমি কে- বাঙ্গালী, বাঙ্গালী’ শ্লোগানে উত্তাল ক্যাম্পাস Logo আম নিয়ে কষ্টগাঁথা Logo ঘুমান্ত বিবেক মাতাল আবেগ’ – আকাশমণি Logo পুলিশের হামলার পরও ৬ ঘন্টা ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক অবরোধে কুবি শিক্ষার্থীর




শিশু ধর্ষণের অভিযোগ তুলে বৃদ্ধকে উলঙ্গ করে নির্যাতন

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১০:৪২:২০ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ৮৮ বার পড়া হয়েছে

মিঠাপুকুর (রংপুর) প্রতিনিধি

রংপুরের মিঠাপুকুরে পঞ্চম শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ তুলে এক বৃদ্ধকে উলঙ্গ করে রাতভর নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে। ধষর্ণে অভিযুক্ত ফেলু মিয়া (৬০) নামে ওই বৃদ্ধকে হাত-পা বেঁধে রাতভর বেধড়ক মারধর এবং গোপনাঙ্গে বাইসাইকেলের স্পোক ঢুকিয়ে নির্যাতন চালানো হয়।

এছাড়াও বখাটেরা বৃদ্ধকে নির্যাতনের ভিডিও ধারণ করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে দিলে তা ভাইরাল হয়ে যায়। বুধবার রাতে উপজেলার জায়গীর বাসস্ট্যান্ডের অদূরে এই ঘটনা ঘটে।

স্থানীয়রা জানায়, উপজেলার লতিবপুর ইউনিয়নের নিশ্চিতপুর গ্রামের ফেলু মিয়া (৬০) সোমবার দুপুরে বাড়ির পাশে একটি কলাবাগানে ডেকে নিয়ে এক শিশুকে ধর্ষণ করেছেন বলে খবর ছড়িয়ে পড়ে। পরে বুধবার রাতে ফেলু মিয়াকে নিজ বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে যায় স্থানীয় ১০-১২ জন বখাটে যুবক।

ফেসবুকে ভাইরাল হওয়া ভিডিওতে দেখা যায়, কয়েকজন যুবক ওই বৃদ্ধকে উলঙ্গ করে লাঠি দিয়ে বেধড়ক মারপিট করছে। অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করছে। কয়েকজন আবার পেছন দিকে বারবার লাথি মারছে। মাঝে মাঝে বাইসাইকেলের স্পোক বৃদ্ধের লিঙ্গে ঢুকিয়ে দেওয়া হচ্ছে। এভাবে রাতভর তার ওপর নির্যাতন চালানো হয়।

নির্যাতনে ওই বৃদ্ধ গুরুতর আহত হয়ে পড়েন। এক পর্যায়ে অবস্থা বেগতিক দেখে বখাটেরা বৃদ্ধকে রেখে পালিয়ে যায়। পরে স্থানীয় লোকজন বৃদ্ধকে উদ্ধার করে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করান। বর্তমান তিনি হাসপাতালে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছেন। এ ঘটনায় বৃদ্ধের মেয়ে ফাতেমা আক্তার বাদি হয়ে ৬ জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত পরিচয় আরও কয়েকজনকে আসামি করে থানায় মামলা দায়ের করেছেন।

মিঠাপুকুর থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) হাবিবুর রহমান বলেন, ধর্ষণের অভিযোগ সঠিক নয়। বখাটেরা সাজানো অভিযোগ তৈরি করে ওই বৃদ্ধের ওপর নির্যাতন চালিয়েছে। ইতোমধ্যে মামলা হয়েছে। আসামিরা পলাতক থাকায় গ্রেফতার করা সম্ভব হয়নি। তাদের গ্রেফতারে জোরালো অভিযোগ চালানো হচ্ছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :




শিশু ধর্ষণের অভিযোগ তুলে বৃদ্ধকে উলঙ্গ করে নির্যাতন

আপডেট সময় : ১০:৪২:২০ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯

মিঠাপুকুর (রংপুর) প্রতিনিধি

রংপুরের মিঠাপুকুরে পঞ্চম শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ তুলে এক বৃদ্ধকে উলঙ্গ করে রাতভর নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে। ধষর্ণে অভিযুক্ত ফেলু মিয়া (৬০) নামে ওই বৃদ্ধকে হাত-পা বেঁধে রাতভর বেধড়ক মারধর এবং গোপনাঙ্গে বাইসাইকেলের স্পোক ঢুকিয়ে নির্যাতন চালানো হয়।

এছাড়াও বখাটেরা বৃদ্ধকে নির্যাতনের ভিডিও ধারণ করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে দিলে তা ভাইরাল হয়ে যায়। বুধবার রাতে উপজেলার জায়গীর বাসস্ট্যান্ডের অদূরে এই ঘটনা ঘটে।

স্থানীয়রা জানায়, উপজেলার লতিবপুর ইউনিয়নের নিশ্চিতপুর গ্রামের ফেলু মিয়া (৬০) সোমবার দুপুরে বাড়ির পাশে একটি কলাবাগানে ডেকে নিয়ে এক শিশুকে ধর্ষণ করেছেন বলে খবর ছড়িয়ে পড়ে। পরে বুধবার রাতে ফেলু মিয়াকে নিজ বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে যায় স্থানীয় ১০-১২ জন বখাটে যুবক।

ফেসবুকে ভাইরাল হওয়া ভিডিওতে দেখা যায়, কয়েকজন যুবক ওই বৃদ্ধকে উলঙ্গ করে লাঠি দিয়ে বেধড়ক মারপিট করছে। অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করছে। কয়েকজন আবার পেছন দিকে বারবার লাথি মারছে। মাঝে মাঝে বাইসাইকেলের স্পোক বৃদ্ধের লিঙ্গে ঢুকিয়ে দেওয়া হচ্ছে। এভাবে রাতভর তার ওপর নির্যাতন চালানো হয়।

নির্যাতনে ওই বৃদ্ধ গুরুতর আহত হয়ে পড়েন। এক পর্যায়ে অবস্থা বেগতিক দেখে বখাটেরা বৃদ্ধকে রেখে পালিয়ে যায়। পরে স্থানীয় লোকজন বৃদ্ধকে উদ্ধার করে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করান। বর্তমান তিনি হাসপাতালে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছেন। এ ঘটনায় বৃদ্ধের মেয়ে ফাতেমা আক্তার বাদি হয়ে ৬ জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত পরিচয় আরও কয়েকজনকে আসামি করে থানায় মামলা দায়ের করেছেন।

মিঠাপুকুর থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) হাবিবুর রহমান বলেন, ধর্ষণের অভিযোগ সঠিক নয়। বখাটেরা সাজানো অভিযোগ তৈরি করে ওই বৃদ্ধের ওপর নির্যাতন চালিয়েছে। ইতোমধ্যে মামলা হয়েছে। আসামিরা পলাতক থাকায় গ্রেফতার করা সম্ভব হয়নি। তাদের গ্রেফতারে জোরালো অভিযোগ চালানো হচ্ছে।