ঢাকা ০৫:৫৭ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ২৪ জুলাই ২০২৪, ৮ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম :
Logo শাবি ক্যাম্পাসে আন্দোলনকারীদের ছড়ানো গুজবে সয়লাব Logo সিলেট-সুনামগঞ্জ মহাসড়কে আন্দোলনকারীরা পুলিশের উপর হামলা চালালে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে Logo জবিতে আজীবন ছাত্ররাজনীতি নিষিদ্ধ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ Logo শাবিতে হল প্রশাসনকে ভয়-ভীতি দেখিয়ে নোটিসে জোর পূর্বক সাইন আদায় Logo এবার সামনে আসছে ছাত্রলীগ কর্তৃক আন্দোলনকারীদের মারধরের আরো ঘটনা Logo আবাসিক হল ছাড়ছে শাবি শিক্ষার্থীরা Logo নিরাপত্তার স্বার্থে শাবি শিক্ষার্থীদের আইডিকার্ড সাথে রাখার আহবান বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের Logo জনস্বাস্থ্যের প্রধান সাধুর যত অসাধু কর্ম: দুর্নীতি ও অর্থ পাচারের অভিযোগ! Logo বিআইডব্লিউটিএ বন্দর শাখা যুগ্ম পরিচালক আলমগীরের দুর্নীতি ও ঘুষ বাণিজ্য  Logo রাজশাহীতে এটিএন বাংলার সাংবাদিক সুজাউদ্দিন ছোটনকে হয়রানিমূলক মামলায় বএিমইউজরে নিন্দা ও প্রতিবাদ




বিমানে মৌমাছির হানা, বিমানবন্দরে ৩ ঘণ্টা আটকা তথ্যমন্ত্রী

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০২:৩৫:০২ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ৮৬ বার পড়া হয়েছে

মৌমাছির দল এয়ার ইন্ডিয়ার বিমানে হানা দেয়ায় কলকাতা বিমানবন্দরে তিন ঘণ্টা আটকা থাকতে হয়েছে তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদকে। আগরতলায় তিন দিনব্যাপী বাংলাদেশ চলচ্চিত্র উৎসবে যোগ দিতে যাওয়ার পথে রোববার এ ঘটনা ঘটে। খবর কলকাতা টেলিগ্রাফের।

কলকাতা টেলিগ্রাফের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ১৩৬ জন যাত্রী নিয়ে এয়ার ইন্ডিয়ার ফ্লাইট এআই-৭৪৩ কলকাতা বিমানবন্দর থেকে উড়ার কথা ছিল রোববার সকাল ৯টা ৪০ মিনিটে। কিন্তু তিনবার উড়ার চেষ্টা করেও রানওয়ে থেকে ফিরে আসে বিমানটি। এতে কিছুটা বিরক্ত হন তথ্যমন্ত্রী ও তার সফরসঙ্গীরা।

এয়ার ইন্ডিয়ার পক্ষ থেকে শুরুতে যাত্রীদেরকে ‘কারিগরি ত্রুটির’ কথা বলা হয়। কিন্তু বিরক্ত বাংলাদেশ প্রতিনিধি দলের সদস্যরা নেমে যেতে চাইলে কেবিন ক্রু দরজা খোলার চেষ্টা করেন। তখনই মৌমাছির দলের হানার বিষয়টি ধরা পড়ে।

পরে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা এসে পানি ছিটিয়ে মৌমাছির ঝাঁকটিকে তাড়িয়ে দেয়। পরে বেলা ১২টা ৪০ মিনিটে উড়োজাহাজটি কলকাতা ছাড়ে।

ফ্লাইটে ছিলেন তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ এবং অভিনেত্রী রোকেয়া প্রাচীসহ বাংলাদেশ প্রতিনিধি দলের ১৮ সদস্য। এই দীর্ঘ সময় তাদেরকে বিরক্তি নিয়ে বিমানেই বসে থাকতে হয়। এমতাবস্থায় হাছান মাহমুদ টেলিফোন করে আয়োজকদের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান কিছুটা পিছিয়ে দেয়ার অনুরোধ করেন।

তথ্যমন্ত্রী এয়ার ইনডিয়া কর্তৃপক্ষ যাত্রীদেরকে অন্য কোনো উড়োজাহাজে তুলে দেয়ার কথা বলেন। কেবিন ক্রু তাদের নামিয়ে দেয়ার জন্য দরজা খুলতে গিয়ে মৌমাছির ঝাঁক দেখতে পান।

ওই উড়োজাহাজের বাঁ দিকের উইন্ডস্ক্রিন আর জানালায় আশ্রয় নিয়েছিল মৌমাছির ওই ঝাঁক। দরজা খুলতে গিয়ে দেখা যায়, বাইরে মৌমাছির চাক উড়ে বেড়াচ্ছে। দরজা খুললে মৌমাছি বিমানের ভেতরে ঢুকে পড়লে বিপদ হতে পারত বলে জানানো হয় বিমান সংস্থার পক্ষ থেকে। বিমান সংস্থার এক কর্মী বলেন, যাত্রী ভর্তি বিমানে মৌমাছি ঢুকে কাউকে কামড়ে দিতে পারত। তাছাড়া বিমানের ভেতরে ঢুকে পড়া মৌমাছিদের মারতেও সমস্যা হতে। সে ক্ষেত্রে নিয়ম অনুযায়ী কীটনাশক ছড়িয়ে জীবাণুমুক্ত করতে হতো এবং যাত্রীদের নামিয়ে দিতে হতো। এমতাবস্থায় বিমানবালারা মন্ত্রীকে জানান, ওই অবস্থায় বিমানের দরজা খোলা সম্ভব নয়।

এর আগেও এয়ার ইন্ডিয়ার বিমান মৌমাছির কবলে পড়ে। ২০১২ সালের সেপ্টেম্বরে এ বিমানবন্দরে জেট এয়ারের চারটি বিমান মৌমাছির কারণে ছয় ঘণ্টা বিলম্বিত হয়। ওই মাসেই ইনডিগোর আরেকটি ফ্লাইট ২১ মিনিট রানওয়েতে আটকে থাকে উইন্ডস্ক্রিনে মৌমাছির হানার কারণে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :




বিমানে মৌমাছির হানা, বিমানবন্দরে ৩ ঘণ্টা আটকা তথ্যমন্ত্রী

আপডেট সময় : ০২:৩৫:০২ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯

মৌমাছির দল এয়ার ইন্ডিয়ার বিমানে হানা দেয়ায় কলকাতা বিমানবন্দরে তিন ঘণ্টা আটকা থাকতে হয়েছে তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদকে। আগরতলায় তিন দিনব্যাপী বাংলাদেশ চলচ্চিত্র উৎসবে যোগ দিতে যাওয়ার পথে রোববার এ ঘটনা ঘটে। খবর কলকাতা টেলিগ্রাফের।

কলকাতা টেলিগ্রাফের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ১৩৬ জন যাত্রী নিয়ে এয়ার ইন্ডিয়ার ফ্লাইট এআই-৭৪৩ কলকাতা বিমানবন্দর থেকে উড়ার কথা ছিল রোববার সকাল ৯টা ৪০ মিনিটে। কিন্তু তিনবার উড়ার চেষ্টা করেও রানওয়ে থেকে ফিরে আসে বিমানটি। এতে কিছুটা বিরক্ত হন তথ্যমন্ত্রী ও তার সফরসঙ্গীরা।

এয়ার ইন্ডিয়ার পক্ষ থেকে শুরুতে যাত্রীদেরকে ‘কারিগরি ত্রুটির’ কথা বলা হয়। কিন্তু বিরক্ত বাংলাদেশ প্রতিনিধি দলের সদস্যরা নেমে যেতে চাইলে কেবিন ক্রু দরজা খোলার চেষ্টা করেন। তখনই মৌমাছির দলের হানার বিষয়টি ধরা পড়ে।

পরে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা এসে পানি ছিটিয়ে মৌমাছির ঝাঁকটিকে তাড়িয়ে দেয়। পরে বেলা ১২টা ৪০ মিনিটে উড়োজাহাজটি কলকাতা ছাড়ে।

ফ্লাইটে ছিলেন তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ এবং অভিনেত্রী রোকেয়া প্রাচীসহ বাংলাদেশ প্রতিনিধি দলের ১৮ সদস্য। এই দীর্ঘ সময় তাদেরকে বিরক্তি নিয়ে বিমানেই বসে থাকতে হয়। এমতাবস্থায় হাছান মাহমুদ টেলিফোন করে আয়োজকদের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান কিছুটা পিছিয়ে দেয়ার অনুরোধ করেন।

তথ্যমন্ত্রী এয়ার ইনডিয়া কর্তৃপক্ষ যাত্রীদেরকে অন্য কোনো উড়োজাহাজে তুলে দেয়ার কথা বলেন। কেবিন ক্রু তাদের নামিয়ে দেয়ার জন্য দরজা খুলতে গিয়ে মৌমাছির ঝাঁক দেখতে পান।

ওই উড়োজাহাজের বাঁ দিকের উইন্ডস্ক্রিন আর জানালায় আশ্রয় নিয়েছিল মৌমাছির ওই ঝাঁক। দরজা খুলতে গিয়ে দেখা যায়, বাইরে মৌমাছির চাক উড়ে বেড়াচ্ছে। দরজা খুললে মৌমাছি বিমানের ভেতরে ঢুকে পড়লে বিপদ হতে পারত বলে জানানো হয় বিমান সংস্থার পক্ষ থেকে। বিমান সংস্থার এক কর্মী বলেন, যাত্রী ভর্তি বিমানে মৌমাছি ঢুকে কাউকে কামড়ে দিতে পারত। তাছাড়া বিমানের ভেতরে ঢুকে পড়া মৌমাছিদের মারতেও সমস্যা হতে। সে ক্ষেত্রে নিয়ম অনুযায়ী কীটনাশক ছড়িয়ে জীবাণুমুক্ত করতে হতো এবং যাত্রীদের নামিয়ে দিতে হতো। এমতাবস্থায় বিমানবালারা মন্ত্রীকে জানান, ওই অবস্থায় বিমানের দরজা খোলা সম্ভব নয়।

এর আগেও এয়ার ইন্ডিয়ার বিমান মৌমাছির কবলে পড়ে। ২০১২ সালের সেপ্টেম্বরে এ বিমানবন্দরে জেট এয়ারের চারটি বিমান মৌমাছির কারণে ছয় ঘণ্টা বিলম্বিত হয়। ওই মাসেই ইনডিগোর আরেকটি ফ্লাইট ২১ মিনিট রানওয়েতে আটকে থাকে উইন্ডস্ক্রিনে মৌমাছির হানার কারণে।