• ১৬ই এপ্রিল ২০২১ খ্রিস্টাব্দ , ৩রা বৈশাখ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

কাশ্মীরে জাতিগত নিধনের আশঙ্কা ইমরান খানের

সকালের সংবাদ ডেস্ক;
প্রকাশিত আগস্ট ৭, ২০১৯, ১২:২০ অপরাহ্ণ
কাশ্মীরে জাতিগত নিধনের আশঙ্কা ইমরান খানের

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : ভারত নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা বাতিলে ভারতের পদক্ষেপের বিরুদ্ধে জবাব দেয়ার অঙ্গীকার ব্যক্ত করেছেন পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। এর আগে পাক সেনাবাহিনীর প্রধান জেনারেল কামার জাভেদ বাজওয়াও বলেছেন, কাশ্মীরিদের সহায়তার জন্য তাদের সেনারা যে কোনো পর্যায়ে যেতে প্রস্তুত।

ভারত অধিকৃত জম্মু-কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা-সংক্রান্ত ভারতীয় সংবিধানের ৩৭০ অনুচ্ছেদ বাতিল হয়ে যাওয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছে পাকিস্তান। একই সঙ্গে কাশ্মীরিদের পাশে দাঁড়ানোরও ঘোষণা দেয়া হয়েছে।

ইমরান খান বলেছেন, এমন পদক্ষেপের মাধ্যমে আন্তর্জাতিক আইন লঙ্ঘন করেছে ভারত। একই সঙ্গে কাশ্মীরে ভারতের জাতিগত নিধনের আশঙ্কাও ব্যক্ত করেছেন ইমরান খান।

এদিকে ভারতের সংবিধানের ৩৭০ অনুচ্ছেদ বাতিলের আগে রোববার সন্ধ্যা থেকেই কাশ্মীরে টেলিফোন, মোবাইল এবং ইন্টারনেট সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেয়া হয়। তারপর থেকে এখন পর্যন্ত একই পরিস্থিতি বিরাজ করছে। এখনও সেখানবার কেউ কারো সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারছেন না।

দীর্ঘদিন ধরেই কাশ্মীর নিয়ে বিতর্ক রয়েছে। প্রায় সাত দশক ধরে ৩৭০ অনুচ্ছেদের আওতায় বিশেষ মর্যাদা পেয়ে আসছিল কাশ্মীর। কিন্তু গত সোমবার হঠাৎ করেই ৩৭০ অনুচ্ছেদ বাতিলের ঘোষণা দেয় ভারত।

প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান বলেছেন, সোমবার ভারত সরকার যে ঘোষণা দিয়েছে তিনি সে বিষয়ে বিশ্বকে জানাতে চান। তিনি বলেন, জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের মাধ্যমে আমরা সাধারণ সভায় এই বিষয়টি তুলে ধরব। আমরা সব সংস্থার সঙ্গে এ বিষয়ে কথা বলব। আমরা এ বিষয়টি গণমাধ্যমের কাছে তুলে ধরব এবং বিশ্ববে বলব।

ইমরান খান আরও বলেন, কাশ্মীরের বিশেষ সুবিধা বাতিলের কারণে মুসলিম সংখ্যাগরিষ্ঠ দেশের তকমা হারাবে ভারত। তিনি বলেন, আমার আশঙ্কা কাশ্মীরে ভারত এখন জাতিগত নিধন চালাবে। তিনি আরও বলেন, তারা স্থানীয় লোকজনকে সরিয়ে অন্যদের সেখানে আনার চেষ্টা করবে। আর ওই লোকদেরই সংখ্যাগরিষ্ঠতা দেবে। এতে করে স্থানীয় লোকজনরা তাদের ক্রীতদাসে পরিণত হবে।