• ২৩শে অক্টোবর ২০২১ খ্রিস্টাব্দ , ৭ই কার্তিক ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

আ.লীগের সম্পাদক হলেন বিএনপির ৩ নেতা, ১ জন উপদেষ্টা

সকালের সংবাদ ডেস্ক;
প্রকাশিত মে ২৮, ২০১৯, ১৭:৫৭ অপরাহ্ণ
আ.লীগের সম্পাদক হলেন বিএনপির ৩ নেতা, ১ জন উপদেষ্টা

জেলা প্রতিনিধি;

চার বছরের মাথায় নেত্রকোনার কলমাকান্দা উপজেলা আওয়ামী লীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা করা হয়েছে। ঘোষিত কমিটিতে কয়েকজন বিএনপি নেতাকে পদে রাখা হয়েছে। এতে করে স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতাদের মধ্যে চাপা ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, কলমাকান্দা উপজেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন ২০১৫ সালের ২৬ মে উপজেলা অডিটরিয়ামে অনুষ্ঠিত হয়। সম্মেলনে সাবেক সংসদ সদস্য ছবি বিশ্বাসের ভাই ছন্দন বিশ্বাসকে সভাপতি ও আনোয়ার হোসেন ফৌজদারকে সাধারণ সম্পাদক করা হয়।

২০১৬ সালের সম্মেলনে কেন্দ্রীয় প্রেসিডিয়াম সদস্য কাজী জাফর উল্লাহ, সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মতিয়র রহমান ও সাধারণ সম্পাদক আশরাফ আলী খান খসরু উপস্থিত ছিলেন।

গত ১৯ মে জেলা আওয়ামী লীগ কলমাকান্দা উপজেলা আওয়ামী লীগের ৭১ সদস্য বিশিষ্ট পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা করে। এছাড়া ১১ জনকে এ কমিটির উপদেষ্টা করা হয়।

আওয়ামী লীগের নতুন কমিটিতে উপজেলা বিএনপির সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক হাবিবুর রহমান হাবিবকে সহ-প্রচার ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক, উপজেলা বিএনপির সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক সুভাষ সাহাকে সদস্য, উপজেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি আবু সাঈদ চৌধুরীকে উপদেষ্টা কমিটির সদস্য এবং উপজেলা যুবদলের সাবেক সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক প্রদীপ সরকারকে সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক করা হয়েছে।

পাশাপাশি কমিউনিস্ট পার্টির খন্দকার আবদুল মতিনকে দফতর সম্পাদক এবং বিগত উপজেলা ও ইউপি নির্বাচনে নৌকার বিপক্ষে অবস্থান নেয়া ফজলুল হককে সহ-সভাপতি করা হয়েছে।

এদিকে, সাবেক এমপি মোস্তাক আহমেদ রুহী, উপজেলা যুবলীগের সাবেক সভাপতি এরশাদুর রহমান মিন্টুসহ উপজেলার ত্যাগী আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীর নাম কমিটিতে না থাকায় তাদের মধ্যে চাপা ক্ষোভ বিরাজ করছে। বিষয়টি নিয়ে গত কয়েকদিন ধরে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে লেখালেখি ও স্থানীয়দের মধ্যে সমালোচনা চলছে।

কলমাকান্দা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আনোয়ার হোসেন ফৌজদার কমিটিতে বিএনপি নেতাকর্মীদের নাম থাকার বিষয়ে বলেণ, ওই সমস্ত নেতাকর্মীরা বেশ কিছুদিন আগে আওয়ামী লীগে যোগদান করেছেন। তাদেরকে সম্মান করে বিভিন্ন পদে দেয়া হয়েছে। আওয়ামী লীগ একটি বড় দল। দলের মধ্যে অনেক নেতাকর্মী আছেন। সবাইকে কমিটিতে নেয়া সম্ভব না। এ নিয়ে তাদের মধ্যে কিছুটা ক্ষোভ কাজ করা স্বাভাবিক।

এ বিষয়ে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এসএম ফখরুল ইসলাম ফিরোজ বলেন, বিএনপি নেতাদের নিয়ে কমিটি করা হয়েছে। দলের ত্যাগী ও পরীক্ষিত নেতাকর্মীদের কমিটিতে স্থান দেয়া হয়নি। যারা দলের নেতাকর্মীদের ওপর হামলা করেছে এবং নৌকার বিপক্ষে অবস্থান নিয়ে কাজ করেছে তারাই আজ দলের পদ পেয়েছে।

  • ফজর
  • যোহর
  • আছর
  • মাগরিব
  • এশা
  • সূর্যোদয়
  • ৪:৪৬
  • ১১:৪৭
  • ৩:৫১
  • ৫:৩২
  • ৬:৪৬
  • ৫:৫৮
error: সাইটের কোন তথ্য কপি করা নিষেধ!!