ঢাকা ০২:৫৩ অপরাহ্ন, রবিবার, ০৩ মার্চ ২০২৪, ২০ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম :
Logo ১৭ মার্চ ও ২৬ মার্চের আহ্বায়কসহ তিনজনকে প্রত্যাহারের আহ্বান কুবি শিক্ষক সমিতির Logo সিলেটে সাইবার ট্রাইব্যুনালে ছাত্রদল ও ছাত্রশিবির সদস্যের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের Logo ড. ইউনূসের মামলা পর্যবেক্ষণ করছে জাতিসংঘ Logo কাভার্ডভ্যান ও অটোরিকশার সংঘর্ষে ছাত্র নিহত, আহত ৩ Logo রাজশাহীতে যুবলীগ কর্মীকে কুপিয়ে হত্যার ঘটনায় গ্রেপ্তার ৫ Logo এবার ঢাবি অধ্যাপক নাদিরের বিরুদ্ধে যৌন নিপীড়নের অভিযোগ  Logo সন্দ্বীপ থানার ওসির পিপিএম পদক লাভ Logo মালয়েশিয়ায় ১৩৪ বাংলাদেশি গ্রেফতার Logo শাবির ছাত্রীহলে ফিঙ্গারপ্রিন্ট স্থাপন, কমবে চুরি ও বহিরাগত প্রবেশ, বাড়বে নিরাপত্তা Logo গণতন্ত্র মঞ্চের কর্মসূচিতে হামলার নিন্দা ১২ দলীয় জোটের




আসছে বাজেটে পণ্যে ভ্যাটের হার কমবে: অর্থমন্ত্রী

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৭:০৯:৫৪ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৪ মে ২০১৯ ৯৬ বার পড়া হয়েছে

নিজস্ব প্রতিবেদক;
আসছে বাজেটে কোনো পণ্যে ভ্যাটের হার বাড়বে না বরং কমবে বলে জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল।

তিনি বলেন, মূল্য সংযোজন কর বা ভ্যাট আইন বাস্তবায়ন নিয়ে ব্যবসায়ীদের আর কোনো আপত্তি নেই। ভ্যাট আইন বাস্তবায়ন নিয়ে ব্যবসায়ীদের সঙ্গে কিছুটা ভুল বোঝাবুঝি হয়েছিল, সেটি পুরোপুরি কেটে গেছে।

মঙ্গলবার শেরে বাংলানগরে অর্থ মন্ত্রণালয়ের সভা কক্ষে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড ও এফবিসিসিআইয়ের সঙ্গে বৈঠক শেষে তিনি এসব কথা বলেন।

ভ্যাট প্রসঙ্গে অর্থমন্ত্রী বলেন, কোনো পণ্যে ভ্যাট বাড়বে না বরং কমবে। তবে ভ্যাটের আওতা বাড়বে। সবকিছু জনবান্ধব আর দেশের অগ্রগতির লক্ষে সুন্দরভাবে করা হবে। ভ্যাট দিতে কেউ কষ্ট পাবে না, সব কিছুই করা হবে উইন উইন অবস্থানে।

মোস্তফা কামাল বলেন, আইনগত কারণে ভ্যাট আইনের সব তথ্য এখন প্রকাশ সম্ভব নয়, তবে আইনে ব্যবসায়ীদের জন্য ক্ষতিকর নয় বরং ব্যবসায়ী বান্ধব আইন হবে। ফলে সেটা বোঝানোর পর ব্যবসায়ীরা আশ্বস্ত হয়েছেন। যার ফলে এনবিআর-এর সঙ্গে ব্যবসায়ীদের কোনো দূরত্ব নেই।

ভ্যাট আইন স্বচ্ছতার সঙ্গে ঝামেলাহীনভাবে আসছে ১ জুলাই থেকেই বাস্তবায়ন করা হবে জানিয়ে তিনি বলেন, ভ্যাট আইন বাস্তবায়ন দু একদিনের কাজ নয়, এটি একটি চলমান প্রক্রিয়া অর্থাৎ এটা সময়ের সঙ্গে সঙ্গে পরিবর্তনযোগ্য। ভ্যাট আইন বাস্তবায়নের পরও যদি কোথাও কোনো সীমাবন্ধতা দেখা দেয় তাহলে তা জনবান্ধব ও ব্যবসাবান্ধব করতে পরিবর্তন করে সময়োপযোগী করা হবে। এই বিষয়ে ব্যবসায়ীরা সর্বাত্বক সহযোগিতা করবে বলে আশ্বস্ত করেছেন।

তিনি বলেন, কোন পণ্যে কি হারে ভ্যাট বসবে ব্যবসায়ীরা তা আমাদের কাছে জানতে চেয়েছে। আমরা তাদেরকে বলেছি, বিদ্যমান যেসব আইন আছে, তাতে বাজেট ঘোষণার আগ পর্যন্ত কোন পণ্যে কত শতাংশ হারে ভ্যাট বসবে, সে তথ্য প্রকাশের কোনো নিয়ম নেই। বাজেট ঘোষণার আগে এসব তথ্য প্রকাশ করা যায় না।

জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) চেয়ারম্যান মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া বলেন, ভ্যাট আইন বাস্তবায়নে কোনো সমস্যা থাকলে তা পরবর্তীতে সংশোধন ও পরিবর্তনের সুযোগ রয়েছে। নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে ভ্যাট আইন বাস্তবায়নে সকলের সহযোগিতা আমাদের কাম্য। ভ্যাট আইন সংস্কারে এফবিসিসিআই ও এনবিআরের যৌথ উদ্যোগে একটি ওয়ার্কিং গ্রুপ করা হবে। যারা ভ্যাট আইন সংস্কারে ভবিষ্যতে কাজ করবে।

বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন এফবিসিসিআইয়ের সভাপতি সফিউল ইসলাম মহিউদ্দিন, ফেডারেশন অব বাংলাদেশ চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির (এফবিসিসিআই) নব-নির্বাচিত সভাপতি শেখ ফজলে ফাহিম, বিজিএমইএ-এর সাবেক সভাপতি সিদ্দিকুর রহমান প্রমুখ।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :




আসছে বাজেটে পণ্যে ভ্যাটের হার কমবে: অর্থমন্ত্রী

আপডেট সময় : ০৭:০৯:৫৪ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৪ মে ২০১৯

নিজস্ব প্রতিবেদক;
আসছে বাজেটে কোনো পণ্যে ভ্যাটের হার বাড়বে না বরং কমবে বলে জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল।

তিনি বলেন, মূল্য সংযোজন কর বা ভ্যাট আইন বাস্তবায়ন নিয়ে ব্যবসায়ীদের আর কোনো আপত্তি নেই। ভ্যাট আইন বাস্তবায়ন নিয়ে ব্যবসায়ীদের সঙ্গে কিছুটা ভুল বোঝাবুঝি হয়েছিল, সেটি পুরোপুরি কেটে গেছে।

মঙ্গলবার শেরে বাংলানগরে অর্থ মন্ত্রণালয়ের সভা কক্ষে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড ও এফবিসিসিআইয়ের সঙ্গে বৈঠক শেষে তিনি এসব কথা বলেন।

ভ্যাট প্রসঙ্গে অর্থমন্ত্রী বলেন, কোনো পণ্যে ভ্যাট বাড়বে না বরং কমবে। তবে ভ্যাটের আওতা বাড়বে। সবকিছু জনবান্ধব আর দেশের অগ্রগতির লক্ষে সুন্দরভাবে করা হবে। ভ্যাট দিতে কেউ কষ্ট পাবে না, সব কিছুই করা হবে উইন উইন অবস্থানে।

মোস্তফা কামাল বলেন, আইনগত কারণে ভ্যাট আইনের সব তথ্য এখন প্রকাশ সম্ভব নয়, তবে আইনে ব্যবসায়ীদের জন্য ক্ষতিকর নয় বরং ব্যবসায়ী বান্ধব আইন হবে। ফলে সেটা বোঝানোর পর ব্যবসায়ীরা আশ্বস্ত হয়েছেন। যার ফলে এনবিআর-এর সঙ্গে ব্যবসায়ীদের কোনো দূরত্ব নেই।

ভ্যাট আইন স্বচ্ছতার সঙ্গে ঝামেলাহীনভাবে আসছে ১ জুলাই থেকেই বাস্তবায়ন করা হবে জানিয়ে তিনি বলেন, ভ্যাট আইন বাস্তবায়ন দু একদিনের কাজ নয়, এটি একটি চলমান প্রক্রিয়া অর্থাৎ এটা সময়ের সঙ্গে সঙ্গে পরিবর্তনযোগ্য। ভ্যাট আইন বাস্তবায়নের পরও যদি কোথাও কোনো সীমাবন্ধতা দেখা দেয় তাহলে তা জনবান্ধব ও ব্যবসাবান্ধব করতে পরিবর্তন করে সময়োপযোগী করা হবে। এই বিষয়ে ব্যবসায়ীরা সর্বাত্বক সহযোগিতা করবে বলে আশ্বস্ত করেছেন।

তিনি বলেন, কোন পণ্যে কি হারে ভ্যাট বসবে ব্যবসায়ীরা তা আমাদের কাছে জানতে চেয়েছে। আমরা তাদেরকে বলেছি, বিদ্যমান যেসব আইন আছে, তাতে বাজেট ঘোষণার আগ পর্যন্ত কোন পণ্যে কত শতাংশ হারে ভ্যাট বসবে, সে তথ্য প্রকাশের কোনো নিয়ম নেই। বাজেট ঘোষণার আগে এসব তথ্য প্রকাশ করা যায় না।

জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) চেয়ারম্যান মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া বলেন, ভ্যাট আইন বাস্তবায়নে কোনো সমস্যা থাকলে তা পরবর্তীতে সংশোধন ও পরিবর্তনের সুযোগ রয়েছে। নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে ভ্যাট আইন বাস্তবায়নে সকলের সহযোগিতা আমাদের কাম্য। ভ্যাট আইন সংস্কারে এফবিসিসিআই ও এনবিআরের যৌথ উদ্যোগে একটি ওয়ার্কিং গ্রুপ করা হবে। যারা ভ্যাট আইন সংস্কারে ভবিষ্যতে কাজ করবে।

বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন এফবিসিসিআইয়ের সভাপতি সফিউল ইসলাম মহিউদ্দিন, ফেডারেশন অব বাংলাদেশ চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির (এফবিসিসিআই) নব-নির্বাচিত সভাপতি শেখ ফজলে ফাহিম, বিজিএমইএ-এর সাবেক সভাপতি সিদ্দিকুর রহমান প্রমুখ।