ঢাকা ০৮:২৭ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৩ জুন ২০২৪, ৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ




আমন্ত্রণ পেয়েও ২০ দলের বৈঠকে যাবে না পার্থের বিজেপি

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০১:০০:৩৬ অপরাহ্ন, রবিবার, ১২ মে ২০১৯ ৮৮ বার পড়া হয়েছে

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক;
বৈঠক ডেকেছে বিএনপি নেতৃত্বাধীন ২০দলীয় জোট। আগামীকাল সোমবার বিকেল ৪টায় গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে।

জোটের শরিক বাংলাদেশ লেবার পার্টির চেয়ারম্যান ডা. মো. মোস্তাফিজুর রহমান ইরান ও বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টির মহাসচিব এম এম আমিনুর রহমান বৈঠকের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

গত ১১ ফেব্রুয়ারি এ জোটের সর্বশেষ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পর সেটি ছিল জোটের দ্বিতীয় বৈঠক। দীর্ঘদিন পর জোটের বৈঠক ডাকায় বিএনপির প্রতি সন্তোষ প্রকাশ করেছেন শরিক নেতারা

সূত্র জানায়, বৈঠকে চলমান রাজনৈতিক পরিস্থিতি, বিশেষ করে বিজেপির জোট ত্যাগ এবং আরেক শরিক লেবার পার্টির বিএনপিকে দেয়া আল্টিমেটামসহ সার্বিক বিষয় নিয়ে আলোচনা হবে। আগামী বৈঠকে জোট সংস্কারেরও প্রস্তাব তোলা হতে পারে।

জোট ত্যাগকারী আন্দালিব রহমান পার্থের বাংলাদেশ জাতীয় পার্টিকেও (বিজেপি) বৈঠকে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে।

বৈঠক প্রসঙ্গে কল্যাণ পার্টির মহাসচিব এম এম আমিনুর রহমান জাগো নিউজকে বলেন, দীর্ঘদিন পর হলেও জোটের বৈঠক ডাকায় বিএনপিকে ধন্যবাদ। তবে এ বৈঠক নিয়মিত হওয়া দরকার এবং গত সাড়ে সাত বছরে জোটের শরিক দলগুলোর ভূমিকা নিয়ে আলোচনা করা দরকার।

‘কাউকে ছোট বা হেয় করা নয়, বর্তমান রাজনৈতিক প্রেক্ষাপট বিবেচনায় ২০ দলীয় জোটের অনেক দলই কার্যকর ভূমিকা রাখতে পারছে না। যেহেতু জোট ভূমিকা রাখতে পারছে না, বিষয়টি বিএনপিকে অনুধাবন করে আগামী দিনের আন্দোলন-সংগ্রামের চিন্তা মাথায় রেখে জোটে সংস্কার আনা দরকার।’

তিনি আরও বলেন, কার্যকর ভূমিকা না রাখার কারণে বিভিন্ন রাজনৈতিক দলেও নেতৃত্বের পরিবর্তন হয়। অতএব জোটেও নেতৃত্বের বা দলের পরিবর্তন আনলে জোট আরও গতিশীল হবে বলে আমি মনে করি।

এদিকে জোটের বৈঠকে আমন্ত্রণ পাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করে বিজেপি মহাসচিব আব্দুল মতিন সাউদ বলেন, ‘একটা দায়িত্বশীল রাজনৈতিক দল হিসেবে অন্যান্য রাজনৈতিক দলগুলোর সঙ্গে যে সম্পর্ক থাকা দরকার সেটা অবশ্যই আমাদের পক্ষ থেকে থাকবে। আমরা সম্পূর্ণ নৈতিক জায়গা থেকে ২০ দলীয় জোট থেকে বের হয়েছি। সুতরাং তাদের বৈঠকে আমাদের যাওয়ার কোনো প্রশ্নই ওঠে না।’

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :




আমন্ত্রণ পেয়েও ২০ দলের বৈঠকে যাবে না পার্থের বিজেপি

আপডেট সময় : ০১:০০:৩৬ অপরাহ্ন, রবিবার, ১২ মে ২০১৯

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক;
বৈঠক ডেকেছে বিএনপি নেতৃত্বাধীন ২০দলীয় জোট। আগামীকাল সোমবার বিকেল ৪টায় গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে।

জোটের শরিক বাংলাদেশ লেবার পার্টির চেয়ারম্যান ডা. মো. মোস্তাফিজুর রহমান ইরান ও বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টির মহাসচিব এম এম আমিনুর রহমান বৈঠকের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

গত ১১ ফেব্রুয়ারি এ জোটের সর্বশেষ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পর সেটি ছিল জোটের দ্বিতীয় বৈঠক। দীর্ঘদিন পর জোটের বৈঠক ডাকায় বিএনপির প্রতি সন্তোষ প্রকাশ করেছেন শরিক নেতারা

সূত্র জানায়, বৈঠকে চলমান রাজনৈতিক পরিস্থিতি, বিশেষ করে বিজেপির জোট ত্যাগ এবং আরেক শরিক লেবার পার্টির বিএনপিকে দেয়া আল্টিমেটামসহ সার্বিক বিষয় নিয়ে আলোচনা হবে। আগামী বৈঠকে জোট সংস্কারেরও প্রস্তাব তোলা হতে পারে।

জোট ত্যাগকারী আন্দালিব রহমান পার্থের বাংলাদেশ জাতীয় পার্টিকেও (বিজেপি) বৈঠকে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে।

বৈঠক প্রসঙ্গে কল্যাণ পার্টির মহাসচিব এম এম আমিনুর রহমান জাগো নিউজকে বলেন, দীর্ঘদিন পর হলেও জোটের বৈঠক ডাকায় বিএনপিকে ধন্যবাদ। তবে এ বৈঠক নিয়মিত হওয়া দরকার এবং গত সাড়ে সাত বছরে জোটের শরিক দলগুলোর ভূমিকা নিয়ে আলোচনা করা দরকার।

‘কাউকে ছোট বা হেয় করা নয়, বর্তমান রাজনৈতিক প্রেক্ষাপট বিবেচনায় ২০ দলীয় জোটের অনেক দলই কার্যকর ভূমিকা রাখতে পারছে না। যেহেতু জোট ভূমিকা রাখতে পারছে না, বিষয়টি বিএনপিকে অনুধাবন করে আগামী দিনের আন্দোলন-সংগ্রামের চিন্তা মাথায় রেখে জোটে সংস্কার আনা দরকার।’

তিনি আরও বলেন, কার্যকর ভূমিকা না রাখার কারণে বিভিন্ন রাজনৈতিক দলেও নেতৃত্বের পরিবর্তন হয়। অতএব জোটেও নেতৃত্বের বা দলের পরিবর্তন আনলে জোট আরও গতিশীল হবে বলে আমি মনে করি।

এদিকে জোটের বৈঠকে আমন্ত্রণ পাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করে বিজেপি মহাসচিব আব্দুল মতিন সাউদ বলেন, ‘একটা দায়িত্বশীল রাজনৈতিক দল হিসেবে অন্যান্য রাজনৈতিক দলগুলোর সঙ্গে যে সম্পর্ক থাকা দরকার সেটা অবশ্যই আমাদের পক্ষ থেকে থাকবে। আমরা সম্পূর্ণ নৈতিক জায়গা থেকে ২০ দলীয় জোট থেকে বের হয়েছি। সুতরাং তাদের বৈঠকে আমাদের যাওয়ার কোনো প্রশ্নই ওঠে না।’