ঢাকা ০৩:৪৫ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২২, ১৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম :




ঘাতক সুপ্রভাত বাসের মালিক গ্রেপ্তার

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১০:২৮:২১ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ৫ এপ্রিল ২০১৯ ১৫ বার পড়া হয়েছে

রাজধানীর নদ্দা এলাকায় বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থী আবরার আহমেদ চৌধুরী নিহতের ঘটনায় সুপ্রভাত পরিবহনের বাসটির মালিক গোপাল কর্মকারকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। ঢাকার অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার আব্দুল বাতেন এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

তিনি বলেছেন, বাসটির মালিককে বৃহস্পতিবার সকালে গ্রেপ্তার করেছেন গোয়েন্দা পুলিশের সদস্যরা।

উল্লেখ্য, গত ১৯ মার্চ রাজধানীর নদ্দা এলাকায় সুপ্রভাত বাসের চাপায় ইউনিভার্সিটি অব প্রফেশনালসের শিক্ষার্থী আবরার নিহত হওয়ার পর ওই বাসের রেজিস্ট্রেশন, রুট পারমিট সাময়িকভাবে বাতিল করা হয়। এ ঘটনায় গ্রেপ্তার বাসটির চালক মো. সিরাজুল ইসলাম, কন্ডাকটর ইয়াছিন আরাফাত ও চালকের সহকারী ইব্রাহীম আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন।

আবরারের মৃত্যুর ঘটনায় তার বাবা অবসরপ্রাপ্ত ব্রিগেডিয়ার জেনারেল আরিফ আহাম্মেদ চৌধুরী বাদী হয়ে গুলশান থানায় যে মামলা করেছেন তাতে ওই তিনজন ছাড়া বাস মালিককে আসামি করা হয়েছিল।

ওই সময় পুলিশ কর্মকর্তা বাতেন এক সংবাদ সম্মেলনে বলেছিলেন, গত ১৯ মার্চ সকালে সদরঘাট থেকে রওনা হওয়ার পর ওই বাসটি শাহজাদপুর বাঁশতলা এলাকায় এক কলেজছাত্রীকে চাপা দেয়। বাসের মূল চালক সিরাজুল ইসলামকে ধরে তখন পুলিশে দেন যাত্রীরা।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :




ঘাতক সুপ্রভাত বাসের মালিক গ্রেপ্তার

আপডেট সময় : ১০:২৮:২১ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ৫ এপ্রিল ২০১৯

রাজধানীর নদ্দা এলাকায় বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থী আবরার আহমেদ চৌধুরী নিহতের ঘটনায় সুপ্রভাত পরিবহনের বাসটির মালিক গোপাল কর্মকারকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। ঢাকার অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার আব্দুল বাতেন এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

তিনি বলেছেন, বাসটির মালিককে বৃহস্পতিবার সকালে গ্রেপ্তার করেছেন গোয়েন্দা পুলিশের সদস্যরা।

উল্লেখ্য, গত ১৯ মার্চ রাজধানীর নদ্দা এলাকায় সুপ্রভাত বাসের চাপায় ইউনিভার্সিটি অব প্রফেশনালসের শিক্ষার্থী আবরার নিহত হওয়ার পর ওই বাসের রেজিস্ট্রেশন, রুট পারমিট সাময়িকভাবে বাতিল করা হয়। এ ঘটনায় গ্রেপ্তার বাসটির চালক মো. সিরাজুল ইসলাম, কন্ডাকটর ইয়াছিন আরাফাত ও চালকের সহকারী ইব্রাহীম আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন।

আবরারের মৃত্যুর ঘটনায় তার বাবা অবসরপ্রাপ্ত ব্রিগেডিয়ার জেনারেল আরিফ আহাম্মেদ চৌধুরী বাদী হয়ে গুলশান থানায় যে মামলা করেছেন তাতে ওই তিনজন ছাড়া বাস মালিককে আসামি করা হয়েছিল।

ওই সময় পুলিশ কর্মকর্তা বাতেন এক সংবাদ সম্মেলনে বলেছিলেন, গত ১৯ মার্চ সকালে সদরঘাট থেকে রওনা হওয়ার পর ওই বাসটি শাহজাদপুর বাঁশতলা এলাকায় এক কলেজছাত্রীকে চাপা দেয়। বাসের মূল চালক সিরাজুল ইসলামকে ধরে তখন পুলিশে দেন যাত্রীরা।