ঢাকা ০৮:৩৪ অপরাহ্ন, বুধবার, ০৭ জুন ২০২৩, ২৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩০ বঙ্গাব্দ




মিরপুরবাসীর জন্য প্রধানমন্ত্রীর বসন্তের উপহার মিরপুর-কালশী ফ্লাইওভার

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • আপডেট সময় : ১২:০০:৩০ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৩ ৮৯ বার পড়া হয়েছে

মিরপুরবাসীর জন্য প্রধানমন্ত্রীর বসন্তের উপহার মিরপুর-কালশী ফ্লাইওভার। এই ফ্লাইওভারটি মিরপুরবাসীর অনেক আকাঙ্ক্ষার একটি স্থাপনা। এটি নির্মাণের সময়ে অনেক কষ্টও সইতে হয়েছে এখানকার বাসিন্দাদের। সে জন্যই মিরপুরবাসীকে বসন্ত উপহার দিচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী।

রোববার (১৯ ফেব্রুয়ারি) সকাল ১০টায় কালশী বালুর মাঠে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে ২.৩৪ কিলোমিটার দীর্ঘ ফ্লাইওভারটির উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। উদ্বোধন অনুষ্ঠান চলছে।

এক হাজার ১২ কোটি টাকা ব্যয়ে সম্পন্ন হওয়া কালশী ফ্লাইওভার উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। রোববার সকাল ১০টায় প্রকল্পটি উদ্বোধন করবেন তিনি। নির্ধারিত সময়ের চার মাস আগেই চালু হচ্ছে ফ্লাইওভারটি।

প্রকল্পটি চালু হলে মিরপুর থেকে বিমানবন্দর এলাকায় ১০ থেকে ১৫ মিনিটেই যাওয়া যাবে। মিরপুর, পল্লবী, ঢাকা ক্যান্টনমেন্ট, উত্তরা, মহাখালী ও রামপুরার মধ্যে সড়ক যোগাযোগ আরও সহজ হবে।

যাত্রীদের ভ্রমণ সহজ করার লক্ষ্যে আগের চার লেন বিশিষ্ট রাস্তাগুলোকে ছয় লেন করা হয়েছে। প্রকল্পটির কাজ বিএনসিসি ও বাংলাদেশ আর্মি সম্পন্ন করেছে।

এ বিষয়ে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র আতিকুল ইসলাম জানান, ফ্লাইওভারটি মিরপুরবাসীর জন্য বড় পুরস্কার হবে। এর ফলে কোনো যানজট হবে না। ফ্লাইওভারের নিচে ফুটপাত ও সাইকেল লেন করা হয়েছে এবং দুটি ফুটওভার ব্রিজও করা হয়েছে বলে জানান তিনি।

২০১৮ সালের ১ জানুয়ারি প্রকল্পটি অনুমোদন করে সরকার। নির্মাণের সময়কাল নির্ধারণ করা হয় ২০২৩ সালের জুন পর্যন্ত। কিন্তু এর আগেই নির্মাণ কাজ শেষ হওয়ায় খুলে দেওয়া হচ্ছে যান চলাচলের জন্য।

উদ্বোধন অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকার কথা রয়েছে, ঢাকা-১৬ আসনের সংসদ সদস্য মো. ইলিয়াস উদ্দিন মোল্লা, সেনাপ্রধান জেনারেল এসএম শফিউদ্দিন আহমেদ, ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম ও স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায়মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম।

স্বাগত বক্তব্য দেবেন স্থানীয় সরকার বিভাগের সচিব মুহাম্মদ ইব্রাহিম এবং প্রকল্প সম্পর্কিত উপস্থাপনা এবং ভিডিও চিত্র প্রদর্শন করবেন ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. মনোয়ারুল ইসলাম সরদার।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :




মিরপুরবাসীর জন্য প্রধানমন্ত্রীর বসন্তের উপহার মিরপুর-কালশী ফ্লাইওভার

আপডেট সময় : ১২:০০:৩০ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৩

মিরপুরবাসীর জন্য প্রধানমন্ত্রীর বসন্তের উপহার মিরপুর-কালশী ফ্লাইওভার। এই ফ্লাইওভারটি মিরপুরবাসীর অনেক আকাঙ্ক্ষার একটি স্থাপনা। এটি নির্মাণের সময়ে অনেক কষ্টও সইতে হয়েছে এখানকার বাসিন্দাদের। সে জন্যই মিরপুরবাসীকে বসন্ত উপহার দিচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী।

রোববার (১৯ ফেব্রুয়ারি) সকাল ১০টায় কালশী বালুর মাঠে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে ২.৩৪ কিলোমিটার দীর্ঘ ফ্লাইওভারটির উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। উদ্বোধন অনুষ্ঠান চলছে।

এক হাজার ১২ কোটি টাকা ব্যয়ে সম্পন্ন হওয়া কালশী ফ্লাইওভার উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। রোববার সকাল ১০টায় প্রকল্পটি উদ্বোধন করবেন তিনি। নির্ধারিত সময়ের চার মাস আগেই চালু হচ্ছে ফ্লাইওভারটি।

প্রকল্পটি চালু হলে মিরপুর থেকে বিমানবন্দর এলাকায় ১০ থেকে ১৫ মিনিটেই যাওয়া যাবে। মিরপুর, পল্লবী, ঢাকা ক্যান্টনমেন্ট, উত্তরা, মহাখালী ও রামপুরার মধ্যে সড়ক যোগাযোগ আরও সহজ হবে।

যাত্রীদের ভ্রমণ সহজ করার লক্ষ্যে আগের চার লেন বিশিষ্ট রাস্তাগুলোকে ছয় লেন করা হয়েছে। প্রকল্পটির কাজ বিএনসিসি ও বাংলাদেশ আর্মি সম্পন্ন করেছে।

এ বিষয়ে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র আতিকুল ইসলাম জানান, ফ্লাইওভারটি মিরপুরবাসীর জন্য বড় পুরস্কার হবে। এর ফলে কোনো যানজট হবে না। ফ্লাইওভারের নিচে ফুটপাত ও সাইকেল লেন করা হয়েছে এবং দুটি ফুটওভার ব্রিজও করা হয়েছে বলে জানান তিনি।

২০১৮ সালের ১ জানুয়ারি প্রকল্পটি অনুমোদন করে সরকার। নির্মাণের সময়কাল নির্ধারণ করা হয় ২০২৩ সালের জুন পর্যন্ত। কিন্তু এর আগেই নির্মাণ কাজ শেষ হওয়ায় খুলে দেওয়া হচ্ছে যান চলাচলের জন্য।

উদ্বোধন অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকার কথা রয়েছে, ঢাকা-১৬ আসনের সংসদ সদস্য মো. ইলিয়াস উদ্দিন মোল্লা, সেনাপ্রধান জেনারেল এসএম শফিউদ্দিন আহমেদ, ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম ও স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায়মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম।

স্বাগত বক্তব্য দেবেন স্থানীয় সরকার বিভাগের সচিব মুহাম্মদ ইব্রাহিম এবং প্রকল্প সম্পর্কিত উপস্থাপনা এবং ভিডিও চিত্র প্রদর্শন করবেন ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. মনোয়ারুল ইসলাম সরদার।