ঢাকা ১০:৩৬ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ৪ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম :
Logo মঙ্গল শোভাযাত্রা – তাসফিয়া ফারহানা ঐশী Logo সাস্টিয়ান ব্রাহ্মণবাড়িয়া এর ইফতার মাহফিল সম্পন্ন Logo কুবির চট্টগ্রাম স্টুডেন্টস ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশনের ইফতার ও পূর্নমিলনী Logo অধ্যাপক জহীর উদ্দিন আহমেদের মায়ের মৃত্যুতে শাবির মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও মুক্ত চিন্তা চর্চায় ঐক্যবদ্ধ শিক্ষকবৃন্দ পরিষদের শোক প্রকাশ Logo শাবির অধ্যাপক জহীর উদ্দিনের মায়ের মৃত্যুতে উপাচার্যের শোক প্রকাশ Logo বিশ কোটিতে গণপূর্তের প্রধান হওয়ার মিশনে ‘ছাত্রদল ক্যাডার প্রকৌশলী’! Logo দূর্নীতির রাক্ষস ফায়ার সার্ভিসের এডি আনোয়ার! Logo ঝড় ও শিলাবৃষ্টিতে ক্ষতি হওয়া শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয়ে অবকাঠামোর সংস্কার শুরু Logo বুয়েটে নিয়মতান্ত্রিক ছাত্র রাজনীতির দাবিতে শাবিপ্রবি ছাত্রলীগের মানববন্ধন Logo কুবি উপাচার্যের বক্তব্যের প্রমাণ দিতে শিক্ষক সমিতির সাত দিনের আল্টিমেটাম




বেতন বৃদ্ধিসহ গ্রাম পুলিশের ৫ দফা দাবিতে মানববন্ধন

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১১:২৫:০৬ অপরাহ্ন, শনিবার, ২ জানুয়ারী ২০২১ ৮৫ বার পড়া হয়েছে

নিজস্ব প্রতিবেদক;

বাজারদরের সঙ্গে সামঞ্জস্য বেতনস্কেলসহ ৫ দফা দাবিতে বাংলাদেশ গ্রাম পুলিশ কর্মচারী ইউনিয়ন মানববন্ধন করেছে। শনিবার (২ জানুয়ারি) জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে আয়োজিত এক মানববন্ধন থেকে এ দাবি জানানো হয়।

গ্রাম পুলিশ সদস্যরা বলেন, ৫০ বছরে বাংলাদেশে বহুবার ক্ষমতার হাত বদল হয়েছে। কিন্তু আমাদের দিকে কেউ ফিরেও তাকায়নি। প্রায় ৪০ বছর এভাবেই আমাদের জীবন চলছে। আমরা মর্যাদা নিয়ে মানুষের মতো বাঁচতে চাই। বর্তমান সরকার ক্ষমতায় আসার পর বাংলাদেশ উন্নয়নশীল দেশের কাতারে উন্নীত হয়েছে। অথচ গ্রাম পুলিশরা নিম্নআয়ের মানুষেও উন্নীত হতে পারেনি। নিত্যপণ্যের দাম বেড়েছে, কিন্তু আমাদের বেতন-ভাতা বাড়েনি।

বক্তারা আরও বলেন, গ্রাম পুলিশ সদস্যদের মধ্যে দফাদারদের বেতন ৭ হাজার আর মহল্লাদারের বেতন সাড়ে ৬ হাজার। এই বেতন দিয়ে কিভাবে একটি পরিবার দিনাযাপন করতে পারে? কারণ নির্ধারিত বেতন-ভাতার বাইরে আমরা কোনো রেশন, চিকিৎসা ভাতা পাই না।

এসময় তারা গ্রাম পুলিশের মর্যাদা প্রতিষ্ঠার জন্য বর্তমান বাজারদরের সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ বেতন প্রদান ও জাতীয় বেতনের অন্তর্ভুক্ত করাসহ পাঁচ দফা দাবি জানান।

তাদের দাবিগুলো হলো-

১. গ্রাম পুলিশদের জীবনমান উন্নয়নে বাজারদরের সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ বেতন প্রদান ও জাতীয় বেতনস্কেলের অন্তর্ভুক্ত করতে হবে।
২. সরকারি অন্যান্য বাহিনীর মতো রেশনিং ব্যবস্থা করতে হবে।
৩. ঝুঁকি ও চিকিৎসা ভাতার ব্যবস্থা করতে হবে।
৪. গ্রাম পুলিশদের জন্য ইউনিয়ন পরিষদকে প্রশাসনিক ইউনিট হিসেবে ঘোষণা করতে হবে
৫. গ্রাম পুলিশদের এককালীন অবসর ভাতা দফাদার ৮ লাখ, মহাল্লাদার ৭ লাখ করতে হবে এবং অন্যান্য বাহিনীর ন্যায় একটি কেন্দ্রীয় অধিদফতর প্রতিষ্ঠা ও প্রশিক্ষণের মাধ্যমে যোগ্য ও দক্ষ বাহিনী হিসেবে গড়ে তোলার ব্যবস্থা করতে হবে।

সংগঠনের সভাপতি বাবু ভবেন্দ্রনাথ বিশ্বাসের সভাপতিত্বে অন্যদের মধ্যে প্রধান সমন্বয়কারী শাহজাহান কবীর জহির, শ্রমিক কর্মচারী ঐক্যপরিষদের নেতা নাইমুল আহসান জুয়েল, রাজেকুজ্জামন রতন, সংগঠনের কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি আবুল কাসেম, ইস্কান্দার আলী, শাহজাহান সরদার, সাধারণ সম্পাদক দেলোয়ার হোসেনসহ প্রমুখ বক্তব্য দেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :




বেতন বৃদ্ধিসহ গ্রাম পুলিশের ৫ দফা দাবিতে মানববন্ধন

আপডেট সময় : ১১:২৫:০৬ অপরাহ্ন, শনিবার, ২ জানুয়ারী ২০২১

নিজস্ব প্রতিবেদক;

বাজারদরের সঙ্গে সামঞ্জস্য বেতনস্কেলসহ ৫ দফা দাবিতে বাংলাদেশ গ্রাম পুলিশ কর্মচারী ইউনিয়ন মানববন্ধন করেছে। শনিবার (২ জানুয়ারি) জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে আয়োজিত এক মানববন্ধন থেকে এ দাবি জানানো হয়।

গ্রাম পুলিশ সদস্যরা বলেন, ৫০ বছরে বাংলাদেশে বহুবার ক্ষমতার হাত বদল হয়েছে। কিন্তু আমাদের দিকে কেউ ফিরেও তাকায়নি। প্রায় ৪০ বছর এভাবেই আমাদের জীবন চলছে। আমরা মর্যাদা নিয়ে মানুষের মতো বাঁচতে চাই। বর্তমান সরকার ক্ষমতায় আসার পর বাংলাদেশ উন্নয়নশীল দেশের কাতারে উন্নীত হয়েছে। অথচ গ্রাম পুলিশরা নিম্নআয়ের মানুষেও উন্নীত হতে পারেনি। নিত্যপণ্যের দাম বেড়েছে, কিন্তু আমাদের বেতন-ভাতা বাড়েনি।

বক্তারা আরও বলেন, গ্রাম পুলিশ সদস্যদের মধ্যে দফাদারদের বেতন ৭ হাজার আর মহল্লাদারের বেতন সাড়ে ৬ হাজার। এই বেতন দিয়ে কিভাবে একটি পরিবার দিনাযাপন করতে পারে? কারণ নির্ধারিত বেতন-ভাতার বাইরে আমরা কোনো রেশন, চিকিৎসা ভাতা পাই না।

এসময় তারা গ্রাম পুলিশের মর্যাদা প্রতিষ্ঠার জন্য বর্তমান বাজারদরের সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ বেতন প্রদান ও জাতীয় বেতনের অন্তর্ভুক্ত করাসহ পাঁচ দফা দাবি জানান।

তাদের দাবিগুলো হলো-

১. গ্রাম পুলিশদের জীবনমান উন্নয়নে বাজারদরের সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ বেতন প্রদান ও জাতীয় বেতনস্কেলের অন্তর্ভুক্ত করতে হবে।
২. সরকারি অন্যান্য বাহিনীর মতো রেশনিং ব্যবস্থা করতে হবে।
৩. ঝুঁকি ও চিকিৎসা ভাতার ব্যবস্থা করতে হবে।
৪. গ্রাম পুলিশদের জন্য ইউনিয়ন পরিষদকে প্রশাসনিক ইউনিট হিসেবে ঘোষণা করতে হবে
৫. গ্রাম পুলিশদের এককালীন অবসর ভাতা দফাদার ৮ লাখ, মহাল্লাদার ৭ লাখ করতে হবে এবং অন্যান্য বাহিনীর ন্যায় একটি কেন্দ্রীয় অধিদফতর প্রতিষ্ঠা ও প্রশিক্ষণের মাধ্যমে যোগ্য ও দক্ষ বাহিনী হিসেবে গড়ে তোলার ব্যবস্থা করতে হবে।

সংগঠনের সভাপতি বাবু ভবেন্দ্রনাথ বিশ্বাসের সভাপতিত্বে অন্যদের মধ্যে প্রধান সমন্বয়কারী শাহজাহান কবীর জহির, শ্রমিক কর্মচারী ঐক্যপরিষদের নেতা নাইমুল আহসান জুয়েল, রাজেকুজ্জামন রতন, সংগঠনের কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি আবুল কাসেম, ইস্কান্দার আলী, শাহজাহান সরদার, সাধারণ সম্পাদক দেলোয়ার হোসেনসহ প্রমুখ বক্তব্য দেন।