ঢাকা ০৯:৫৪ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২২, ১৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম :




কমলগঞ্জে সড়ক প্রশস্তকরণ কাজে নিম্নমানের সামগ্রী ব্যবহারের অভিযোগ

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১০:২৩:৩৪ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ১৮ জানুয়ারী ২০১৯ ১৫ বার পড়া হয়েছে

 

কমলগঞ্জ (মৌলভীবাজার) প্রতিনিধিঃ মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার ভানুগাছ-মুন্সিবাজার ভায়া চৈতন্যগঞ্জ সড়কের প্রশস্থ পাকা করনে নিম্নমানের কাজের অভিযোগ পাওয়া গেছে।

কুলাউড়ার একটি প্রতিষ্ঠানের ঠিকাদার শাফি আলম ইউনুছ কমলগঞ্জ উপজেলার এলজিইডির আওতাধীন ২০১৮-১৯ অর্থবছরের ভানুগাছ-মুন্সিবাজার ভায়া চৈতন্যগঞ্জ এলাকা পর্যন্ত ৩৭৭৫ মি. চেইনিজের পাকা রাস্তার প্রসস্থ করণ কাজ পান। যার ব্যয় প্রায় ১ কোটি ৬৪ লাখ টাকা। ঠিকাদারি প্রতিষ্টানটি সিডিউল মোতাবেক কাজ না করে খুবই নিন্মমানের ইটের কোয়া ও মাটি মিশ্রিত বালু দিয়ে কাজ করার অভিযোগ উঠেছে।

সরেজমিনে দেখা যায়, ভানুগাছ-মুন্সিবাজার ভায়া চৈতন্যগঞ্জ পাকা সড়কের প্রশস্ত—করণ কাজ পৌরসভার রামপাশা বালক সরকারী প্রাথমিক বিদ্যায়ের সম্মুখ হতে শুরু হয়েছে। তিন ফুট প্রস্ত ও ১৬ ইঞ্চি গভীরতার বক্স করার কথা থাকলেও বাস্তবে ১ফুট গভীরতা দেখা ।

তাছাড়া ভালো মানের ইটের কংক্রিটের পরিবর্তে তিন নাম্বার ইট দিয়ে খোয়া এবং মাটি মিশ্রিত বালি মাটি ব্যবহার করে রাস্তার বক্সটি তে কাজ কোন রকমে জোড়াতালি দিয়ে পাকা রাস্তার প্রশস্থ করণের কাজ সম্পন্ন করা হচ্ছে। নির্মান কাজের স্থানে বিধি মোতাবেক রাস্তায় চার্ট টাঙানোর কথা থাকলেও কোথাও কোন চার্ট পাওয়া যায়নি।

সাংবাদিকদের মাধ্যমে ন্মিমানের কাজ হচ্ছে বিষয়টি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আশেকুল হক অবগত হলে তাৎক্ষণিক ভাবে সাইটের কাজ বন্ধ রেখে নিন্মমানের ইটের খোয়া ও বালি সরিয়ে নেয়ার নিদের্শ দেন।

ঠিকাদারী প্রতিষ্টানে মালিক শাফি আলম ইউনুসের সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করার চেষ্টা করলে তার বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

এ ব্যাপারে উপজেলা প্রকৌশলী মোঃ জাহিদুর রহমান, বিষযটি অবগত আছি । সাইটে গিয়ে তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

এব্যাপারে কমলগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার আশেকুল হক বলেন, তিনি জানতে পেরে কাজ বন্ধ রেখে নিম্মমানের ইটের খ্য়োা সরিয়ে নেয়ার নির্দেশ দিয়েছি। তারপরও সরেজমিনে গিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করবো ।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :




কমলগঞ্জে সড়ক প্রশস্তকরণ কাজে নিম্নমানের সামগ্রী ব্যবহারের অভিযোগ

আপডেট সময় : ১০:২৩:৩৪ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ১৮ জানুয়ারী ২০১৯

 

কমলগঞ্জ (মৌলভীবাজার) প্রতিনিধিঃ মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার ভানুগাছ-মুন্সিবাজার ভায়া চৈতন্যগঞ্জ সড়কের প্রশস্থ পাকা করনে নিম্নমানের কাজের অভিযোগ পাওয়া গেছে।

কুলাউড়ার একটি প্রতিষ্ঠানের ঠিকাদার শাফি আলম ইউনুছ কমলগঞ্জ উপজেলার এলজিইডির আওতাধীন ২০১৮-১৯ অর্থবছরের ভানুগাছ-মুন্সিবাজার ভায়া চৈতন্যগঞ্জ এলাকা পর্যন্ত ৩৭৭৫ মি. চেইনিজের পাকা রাস্তার প্রসস্থ করণ কাজ পান। যার ব্যয় প্রায় ১ কোটি ৬৪ লাখ টাকা। ঠিকাদারি প্রতিষ্টানটি সিডিউল মোতাবেক কাজ না করে খুবই নিন্মমানের ইটের কোয়া ও মাটি মিশ্রিত বালু দিয়ে কাজ করার অভিযোগ উঠেছে।

সরেজমিনে দেখা যায়, ভানুগাছ-মুন্সিবাজার ভায়া চৈতন্যগঞ্জ পাকা সড়কের প্রশস্ত—করণ কাজ পৌরসভার রামপাশা বালক সরকারী প্রাথমিক বিদ্যায়ের সম্মুখ হতে শুরু হয়েছে। তিন ফুট প্রস্ত ও ১৬ ইঞ্চি গভীরতার বক্স করার কথা থাকলেও বাস্তবে ১ফুট গভীরতা দেখা ।

তাছাড়া ভালো মানের ইটের কংক্রিটের পরিবর্তে তিন নাম্বার ইট দিয়ে খোয়া এবং মাটি মিশ্রিত বালি মাটি ব্যবহার করে রাস্তার বক্সটি তে কাজ কোন রকমে জোড়াতালি দিয়ে পাকা রাস্তার প্রশস্থ করণের কাজ সম্পন্ন করা হচ্ছে। নির্মান কাজের স্থানে বিধি মোতাবেক রাস্তায় চার্ট টাঙানোর কথা থাকলেও কোথাও কোন চার্ট পাওয়া যায়নি।

সাংবাদিকদের মাধ্যমে ন্মিমানের কাজ হচ্ছে বিষয়টি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আশেকুল হক অবগত হলে তাৎক্ষণিক ভাবে সাইটের কাজ বন্ধ রেখে নিন্মমানের ইটের খোয়া ও বালি সরিয়ে নেয়ার নিদের্শ দেন।

ঠিকাদারী প্রতিষ্টানে মালিক শাফি আলম ইউনুসের সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করার চেষ্টা করলে তার বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

এ ব্যাপারে উপজেলা প্রকৌশলী মোঃ জাহিদুর রহমান, বিষযটি অবগত আছি । সাইটে গিয়ে তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

এব্যাপারে কমলগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার আশেকুল হক বলেন, তিনি জানতে পেরে কাজ বন্ধ রেখে নিম্মমানের ইটের খ্য়োা সরিয়ে নেয়ার নির্দেশ দিয়েছি। তারপরও সরেজমিনে গিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করবো ।