ঢাকা ০৮:১৩ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ




মামলা তুলে নিতে সাংবাদিককে হুমকি দিলেন খিলগাঁও থানা পুলিশ!

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১২:০০:২১ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১৯ ফেব্রুয়ারী ২০২০ ১১৭ বার পড়া হয়েছে

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ খিলগাঁও জোনের সাবেক পুলিশের এসি নাদিয়া জুঁই, খিলগাঁও থানার ওসি মশিউর রহমান সহ কয়েকজন পুলিশ ও মাদক ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে সাংবাদিক জিয়াউর রহমানের দায়ের করা মামলা তুলে নিতে ওসি মশিউর রহমান হুমকি দিয়েছেন বলে অভিযোগ করেছেন মামলার বাদী সাংবাদিক জিয়াউর রহমান। অন্যথায় তাকে মাদক মামলায় গ্রেফতার করার হুমকি দিয়েছেন বলেও অভিযোগ করেন তিনি।

উল্লেখ্য, সাপ্তাহিক তদন্ত চিত্র অফিসে হামলা, আসবাবপত্র ভাংচুর ছিনতাই মাদক ব্যবসায়ীর প্রচারণায় মিথ্যা মামলায় সাপ্তাহিক তদন্ত চিত্র পত্রিকার সম্পাদক জিয়াউর রহমানকে গ্রেপ্তারের ষড়যন্ত্র করায় খিলগাঁওয়ের সাবেক এসি নাদিয়া জুঁই, ওসি সহ ৪ পুলিশ ও ৪ মাদক ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে ২০১৮ সালে মামলা দায়ের করেন। সেই মামলার শুনানি সামনে রেখে মামলার বাদী জিয়াউর রহমানকে হুমকি দেওয়ায় অভিযোগে গত ১৭/০১/২০২০ তারিখে পুলিশের মহাপরিদর্শকের বরাবর একটি অভিযোগ করেন জিয়াউর রহমান।

উক্ত অভিযোগে জিয়াউর রহমান উল্লেখ করেন, তার দায়েরকৃত মামলার তদন্ত আদালত পিবিআই কে দিলেও এসি নাদিয়া জুঁই প্রভাব খাটিয়ে আদালতের আদেশ পরিবর্তন করে ডিবি পুলিশ দিয়ে দায়সারা তদন্ত প্রতিবেদন আদালতে দায়ের করান। উক্ত প্রতিবেদনের বিষয় বাদী তার ন্যায় বিচার পাওয়ার আশায় একটি নারাজি দরখাস্ত করেন। আদালতে নারাজির দরখাস্ত না-মঞ্জুর করে মামলাটি খারিজ করে দেন। এতে জিয়াউর রহমান ন্যায় বিচার পেতে উচ্চ আদালতে মামলাটি রিভিউ করেন। যার রিভিউ পিটিশন নাম্বার ১০০৮/২০১৯। সেই রিভিউ পিটিশনের ১৯ ফেব্রুয়ারি শুনানির তরিখ সমানে রেখে খিলগাঁও থানায় ওসি কর্তৃক মামলার বাদী জিয়াউর রহমানকে পথ আটকে হুমকি দেন বলেও অভিযোগে উল্লেখ করেন।

এবিষয়ে জিয়াউর রহমান বলেন, গত ১৫ ফেব্রুয়ারী রাতে খিলগাঁও থানার সামনে রাস্তায় বেশ কয়েক জন সাংবাদিক বন্ধু সহ সংবাদের কাজে যাচ্ছিলাম। ওই সময় খিলগাঁও থানার ওসি মশিউর রহমান তার সাথে থাকা কয়েকজন এসআই সহ আমাদের পথ আটকায় এবং আমাকে মামলাটি তুলে নিতে হুমকি দেয়। যদি তুলে না নেই তাহলে মাদক মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে চালান দিবে বলেও হুমকি দেন। অবস্থা বেগতিক দেখে আমি তাকে মামলা তুলে নেওয়ার আশ্বাস দিয়ে ঘটনাস্থল ত্যাগ করি।

জিয়াউর রহমান আরো বলেন, আমি এবিষয়ে পুলিশের মহাপরিদর্শক ও বিজ্ঞ আদালতের সুদৃষ্টি কামনা করছি।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :




মামলা তুলে নিতে সাংবাদিককে হুমকি দিলেন খিলগাঁও থানা পুলিশ!

আপডেট সময় : ১২:০০:২১ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১৯ ফেব্রুয়ারী ২০২০

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ খিলগাঁও জোনের সাবেক পুলিশের এসি নাদিয়া জুঁই, খিলগাঁও থানার ওসি মশিউর রহমান সহ কয়েকজন পুলিশ ও মাদক ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে সাংবাদিক জিয়াউর রহমানের দায়ের করা মামলা তুলে নিতে ওসি মশিউর রহমান হুমকি দিয়েছেন বলে অভিযোগ করেছেন মামলার বাদী সাংবাদিক জিয়াউর রহমান। অন্যথায় তাকে মাদক মামলায় গ্রেফতার করার হুমকি দিয়েছেন বলেও অভিযোগ করেন তিনি।

উল্লেখ্য, সাপ্তাহিক তদন্ত চিত্র অফিসে হামলা, আসবাবপত্র ভাংচুর ছিনতাই মাদক ব্যবসায়ীর প্রচারণায় মিথ্যা মামলায় সাপ্তাহিক তদন্ত চিত্র পত্রিকার সম্পাদক জিয়াউর রহমানকে গ্রেপ্তারের ষড়যন্ত্র করায় খিলগাঁওয়ের সাবেক এসি নাদিয়া জুঁই, ওসি সহ ৪ পুলিশ ও ৪ মাদক ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে ২০১৮ সালে মামলা দায়ের করেন। সেই মামলার শুনানি সামনে রেখে মামলার বাদী জিয়াউর রহমানকে হুমকি দেওয়ায় অভিযোগে গত ১৭/০১/২০২০ তারিখে পুলিশের মহাপরিদর্শকের বরাবর একটি অভিযোগ করেন জিয়াউর রহমান।

উক্ত অভিযোগে জিয়াউর রহমান উল্লেখ করেন, তার দায়েরকৃত মামলার তদন্ত আদালত পিবিআই কে দিলেও এসি নাদিয়া জুঁই প্রভাব খাটিয়ে আদালতের আদেশ পরিবর্তন করে ডিবি পুলিশ দিয়ে দায়সারা তদন্ত প্রতিবেদন আদালতে দায়ের করান। উক্ত প্রতিবেদনের বিষয় বাদী তার ন্যায় বিচার পাওয়ার আশায় একটি নারাজি দরখাস্ত করেন। আদালতে নারাজির দরখাস্ত না-মঞ্জুর করে মামলাটি খারিজ করে দেন। এতে জিয়াউর রহমান ন্যায় বিচার পেতে উচ্চ আদালতে মামলাটি রিভিউ করেন। যার রিভিউ পিটিশন নাম্বার ১০০৮/২০১৯। সেই রিভিউ পিটিশনের ১৯ ফেব্রুয়ারি শুনানির তরিখ সমানে রেখে খিলগাঁও থানায় ওসি কর্তৃক মামলার বাদী জিয়াউর রহমানকে পথ আটকে হুমকি দেন বলেও অভিযোগে উল্লেখ করেন।

এবিষয়ে জিয়াউর রহমান বলেন, গত ১৫ ফেব্রুয়ারী রাতে খিলগাঁও থানার সামনে রাস্তায় বেশ কয়েক জন সাংবাদিক বন্ধু সহ সংবাদের কাজে যাচ্ছিলাম। ওই সময় খিলগাঁও থানার ওসি মশিউর রহমান তার সাথে থাকা কয়েকজন এসআই সহ আমাদের পথ আটকায় এবং আমাকে মামলাটি তুলে নিতে হুমকি দেয়। যদি তুলে না নেই তাহলে মাদক মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে চালান দিবে বলেও হুমকি দেন। অবস্থা বেগতিক দেখে আমি তাকে মামলা তুলে নেওয়ার আশ্বাস দিয়ে ঘটনাস্থল ত্যাগ করি।

জিয়াউর রহমান আরো বলেন, আমি এবিষয়ে পুলিশের মহাপরিদর্শক ও বিজ্ঞ আদালতের সুদৃষ্টি কামনা করছি।