ঢাকা ০৪:১২ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২১ জুন ২০২৪, ৬ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম :




নবজাতককে খুবলে খাচ্ছিল কুকুর, বুকে টেনে নিল পুলিশ

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৬:২৫:৩০ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২০ অগাস্ট ২০১৯ ৮২ বার পড়া হয়েছে

নিজস্ব প্রতিবেদক
ভোরের আলো তখনও ফোটেনি। সেই আবছা আলোতেই ফুটপাতে পড়ে থাকা এক নবজাতককে খুবলে খাওয়ার চেষ্টা করছিল কয়েকটি কুকুর। ঘটনাটি দেখে এগিয়ে গেলেন রাতভর দায়িত্ব পালন শেষে ক্লান্ত পুলিশ সদস্য মোস্তাফিজুর রহমান। সঙ্গে সঙ্গে কুকুর তাড়িয়ে ফুটপাত থেকে নবজাতক কন্যাকে বুকে তুলে নেন ওই পুলিশ সদস্য। পাশেই ছিল নবজাতকের মানসিক ভারসাম্যহীন মা।

না এটি কোনো সিনেমার দৃশ্য নয়। দেশের দ্বিতীয় রাজধানী খ্যাত চট্টগ্রামের আগ্রাবাদ বাদামতলী মোড়ে মঙ্গলবার (২০ আগস্ট) ভোরে ঘটে এ ঘটনা। মা ও নবজাতককে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। দুজনই সুস্থ আছেন।

চট্টগ্রাম মহানগর পুলিশের ডবলমুরিং জোনের সহকারী কমিশনার আশিকুর রহমান জাগো নিউজকে বলেন, আগ্রাবাদ এলাকায় টহল দেয়ার সময় বাদামতলী ক্রসিংয়ের উত্তর পাশে সোনালী ব্যাংকের সামনে ফুটপাতের ওপর কয়েকটি কুকুরকে কিছু একটা নিয়ে টানাটানি করতে দেখে কৌতূহলবশত এগিয়ে যান ডবলমুরিং থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মোস্তাফিজুর রহমান। ঘটনাস্থলে গিয়ে নবজাতককে দেখতে পেয়ে দ্রুত আগে কুকুরগুলোকে তাড়ান। পরে নবজাতককে বুকে টেনে নিয়ে দ্রুত আগ্রাবাদ মা ও শিশু হাসপাতালে নিয়ে যান তিনি। এরপর মানসিক ভারসাম্যহীন মা ও নবজাতককে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

উপ-পরিদর্শক (এসআই) মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, ভোরে আগ্রাবাদ বাদামতলী মোড়ে সোনালী ব্যাংকের সামনে তিন-চারটি কুকুরকে কিছু একটা নিয়ে টানাটানি করতে দেখে কৌতূহলবশত এগিয়ে যাই। দেখি একেবারে সদ্য ভূমিষ্ঠ একটি শিশুর নাড়ি নিয়ে টানাটানি করছে কুকুরগুলো। পাশেই ২৫-২৬ বছর বয়সী এক পাগলীকে পড়ে থাকতে দেখি। শিশুটি ও তার মাকে উদ্ধার করে আগ্রাবাদ মা ও শিশু হাসপাতালে নিয়ে যাই। কুকুরের কামড়ে শিশুটির কোনো ক্ষতি হয়নি। তারা দুজনই চমেক হাসপাতালে, ভালো আছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :




নবজাতককে খুবলে খাচ্ছিল কুকুর, বুকে টেনে নিল পুলিশ

আপডেট সময় : ০৬:২৫:৩০ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২০ অগাস্ট ২০১৯

নিজস্ব প্রতিবেদক
ভোরের আলো তখনও ফোটেনি। সেই আবছা আলোতেই ফুটপাতে পড়ে থাকা এক নবজাতককে খুবলে খাওয়ার চেষ্টা করছিল কয়েকটি কুকুর। ঘটনাটি দেখে এগিয়ে গেলেন রাতভর দায়িত্ব পালন শেষে ক্লান্ত পুলিশ সদস্য মোস্তাফিজুর রহমান। সঙ্গে সঙ্গে কুকুর তাড়িয়ে ফুটপাত থেকে নবজাতক কন্যাকে বুকে তুলে নেন ওই পুলিশ সদস্য। পাশেই ছিল নবজাতকের মানসিক ভারসাম্যহীন মা।

না এটি কোনো সিনেমার দৃশ্য নয়। দেশের দ্বিতীয় রাজধানী খ্যাত চট্টগ্রামের আগ্রাবাদ বাদামতলী মোড়ে মঙ্গলবার (২০ আগস্ট) ভোরে ঘটে এ ঘটনা। মা ও নবজাতককে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। দুজনই সুস্থ আছেন।

চট্টগ্রাম মহানগর পুলিশের ডবলমুরিং জোনের সহকারী কমিশনার আশিকুর রহমান জাগো নিউজকে বলেন, আগ্রাবাদ এলাকায় টহল দেয়ার সময় বাদামতলী ক্রসিংয়ের উত্তর পাশে সোনালী ব্যাংকের সামনে ফুটপাতের ওপর কয়েকটি কুকুরকে কিছু একটা নিয়ে টানাটানি করতে দেখে কৌতূহলবশত এগিয়ে যান ডবলমুরিং থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মোস্তাফিজুর রহমান। ঘটনাস্থলে গিয়ে নবজাতককে দেখতে পেয়ে দ্রুত আগে কুকুরগুলোকে তাড়ান। পরে নবজাতককে বুকে টেনে নিয়ে দ্রুত আগ্রাবাদ মা ও শিশু হাসপাতালে নিয়ে যান তিনি। এরপর মানসিক ভারসাম্যহীন মা ও নবজাতককে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

উপ-পরিদর্শক (এসআই) মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, ভোরে আগ্রাবাদ বাদামতলী মোড়ে সোনালী ব্যাংকের সামনে তিন-চারটি কুকুরকে কিছু একটা নিয়ে টানাটানি করতে দেখে কৌতূহলবশত এগিয়ে যাই। দেখি একেবারে সদ্য ভূমিষ্ঠ একটি শিশুর নাড়ি নিয়ে টানাটানি করছে কুকুরগুলো। পাশেই ২৫-২৬ বছর বয়সী এক পাগলীকে পড়ে থাকতে দেখি। শিশুটি ও তার মাকে উদ্ধার করে আগ্রাবাদ মা ও শিশু হাসপাতালে নিয়ে যাই। কুকুরের কামড়ে শিশুটির কোনো ক্ষতি হয়নি। তারা দুজনই চমেক হাসপাতালে, ভালো আছে।