ঢাকা ১১:৪২ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ০৩ মার্চ ২০২৪, ২০ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম :
Logo ১৭ মার্চ ও ২৬ মার্চের আহ্বায়কসহ তিনজনকে প্রত্যাহারের আহ্বান কুবি শিক্ষক সমিতির Logo সিলেটে সাইবার ট্রাইব্যুনালে ছাত্রদল ও ছাত্রশিবির সদস্যের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের Logo ড. ইউনূসের মামলা পর্যবেক্ষণ করছে জাতিসংঘ Logo কাভার্ডভ্যান ও অটোরিকশার সংঘর্ষে ছাত্র নিহত, আহত ৩ Logo রাজশাহীতে যুবলীগ কর্মীকে কুপিয়ে হত্যার ঘটনায় গ্রেপ্তার ৫ Logo এবার ঢাবি অধ্যাপক নাদিরের বিরুদ্ধে যৌন নিপীড়নের অভিযোগ  Logo সন্দ্বীপ থানার ওসির পিপিএম পদক লাভ Logo মালয়েশিয়ায় ১৩৪ বাংলাদেশি গ্রেফতার Logo শাবির ছাত্রীহলে ফিঙ্গারপ্রিন্ট স্থাপন, কমবে চুরি ও বহিরাগত প্রবেশ, বাড়বে নিরাপত্তা Logo গণতন্ত্র মঞ্চের কর্মসূচিতে হামলার নিন্দা ১২ দলীয় জোটের




শেখ হাসিনা সরকারের নীতি আইনের ঊর্ধ্বে নয় কেউ: গণপূর্তমন্ত্রী

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৫:৩১:৪৫ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৮ এপ্রিল ২০১৯ ১২০ বার পড়া হয়েছে

পিরোজপুর প্রতিনিধি;

গৃহায়ণ ও গণপূর্তমন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম বলেছেন, এ দেশের বিচারব্যবস্থা স্বাধীন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকারের নীতি হচ্ছে, দেশে কেউই আইনের ঊর্ধ্বে নয়। অপরাধীকে শাস্তি পেতেই হবে। রোববার পিরোজপুরের জেলা জজ আদালত প্রাঙ্গণে জাতীয় আইনগত সহায়তা দিবস ২০১৯-র র‌্যালি-পরবর্তী আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন গণপূর্ত মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম।

গণপূর্তমন্ত্রী বলেন, ‘বঙ্গবন্ধু আমাদের একটি স্বাধীন-সার্বভৌম দেশ এবং দেশটি পরিচালনার জন্য একটি সংবিধান দিয়ে গেছেন। এই সংবিধানের ১৯ ও ২৭ নম্বর অনুচ্ছেদে সুস্পষ্টভাবে বলা হয়েছে, দেশের সবার আইনি অধিকার এবং বিচার প্রার্থনার সুযোগ রয়েছে। সংবিধান প্রদত্ত সেই অধিকার বাস্তবায়ন করতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২০০০ সালে জাতীয় আইনগত সহায়তা আইন প্রণয়ন করে সব মানুষের বিচার পাওয়ার অধিকার নিশ্চিত করেছেন।’

শ ম রেজাউল করিম বলেন, বর্তমান সরকার যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের ব্যবস্থা করেছে। সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়াকে শাস্তি দিয়েছেন আদালত, বিশ্বজিৎ হত্যার অপরাধে অপরাধীদের ফাঁসির নির্দেশ হয়েছে, নারায়ণগঞ্জের সাত খুনের আসামিদের ফাঁসিসহ বিভিন্ন মেয়াদের শাস্তি দিয়েছেন আদালত। এই ধারাবাহিকতায় প্রমাণিত যে এ দেশের বিচারব্যবস্থা এখন স্বাধীন এবং হস্তক্ষেপমুক্ত। তিনি বলেন, মানুষের শেষ আশ্রয়স্থল হচ্ছে আদালত। আর্থিকভাবে অসচ্ছল মানুষের বিচারপ্রাপ্তি নিশ্চিত করতে রাষ্ট্রীয় খরচে আইনজীবী নিয়োগ করে বিচারের পথ সুগম করতে জাতীয় আইনগত সহায়তা আইন প্রণয়ন করা হয়েছে। এ দেশের লাখ লাখ অসহায় মানুষ এই আইনের সুবিধা পাচ্ছেন।

পিরোজপুরের জেলা ও দায়রা জজ এবং জেলা লিগ্যাল এইড কমিটির সভাপতি মো. আবদুল মান্নানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে পিরোজপুরের জেলা প্রশাসক আবু আলী মো. সাজ্জাদ হোসেন, নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক মো. মিজানুর রহমান, চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আবু জাফর মো. নোমান, পিরোজপুর পৌরসভার মেয়র মো. হাবিবুর রহমান, ভারপ্রাপ্ত পুলিশ সুপার মোল্লা আজাদ হোসেন, জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি মো. বেলায়েত হোসেন, সরকারি কৌঁসুলি খান মো. আলাউদ্দিন, নারী শিশু আদালতের পিপি রাজ্জাক খান বাদশা, সরকারি কৌঁসুলি শহিদুল আলম পান্না, লিগ্যাল এইডের প্যানেল আইনজীবী কমল মুখার্জি এবং লিগ্যাল এইডের সহায়তা পাওয়া বিচারপ্রার্থী রোজিনা আক্তার বক্তব্য দেন।

আলোচনা সভার আগে বর্ণাঢ্য র‌্যালিতে গৃহায়ণ ও গণপূর্তমন্ত্রী, জেলা ও দায়রা জজ, বিচারক, আইনজীবী, সাংবাদিক, মুক্তিযোদ্ধা, সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীসহ বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ অংশগ্রহণ করেন। র‌্যালি শহরের বঙ্গবন্ধু চত্বর থেকে শুরু হয়ে জেলা জজ আদালত প্রাঙ্গণে গিয়ে শেষ হয়।

মন্ত্রী এরপর শহরতলির ডুমরিতলা শ্রীগুরু আশ্রমে ভক্ত সমাবেশে বক্তব্য দেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :




শেখ হাসিনা সরকারের নীতি আইনের ঊর্ধ্বে নয় কেউ: গণপূর্তমন্ত্রী

আপডেট সময় : ০৫:৩১:৪৫ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৮ এপ্রিল ২০১৯

পিরোজপুর প্রতিনিধি;

গৃহায়ণ ও গণপূর্তমন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম বলেছেন, এ দেশের বিচারব্যবস্থা স্বাধীন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকারের নীতি হচ্ছে, দেশে কেউই আইনের ঊর্ধ্বে নয়। অপরাধীকে শাস্তি পেতেই হবে। রোববার পিরোজপুরের জেলা জজ আদালত প্রাঙ্গণে জাতীয় আইনগত সহায়তা দিবস ২০১৯-র র‌্যালি-পরবর্তী আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন গণপূর্ত মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম।

গণপূর্তমন্ত্রী বলেন, ‘বঙ্গবন্ধু আমাদের একটি স্বাধীন-সার্বভৌম দেশ এবং দেশটি পরিচালনার জন্য একটি সংবিধান দিয়ে গেছেন। এই সংবিধানের ১৯ ও ২৭ নম্বর অনুচ্ছেদে সুস্পষ্টভাবে বলা হয়েছে, দেশের সবার আইনি অধিকার এবং বিচার প্রার্থনার সুযোগ রয়েছে। সংবিধান প্রদত্ত সেই অধিকার বাস্তবায়ন করতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২০০০ সালে জাতীয় আইনগত সহায়তা আইন প্রণয়ন করে সব মানুষের বিচার পাওয়ার অধিকার নিশ্চিত করেছেন।’

শ ম রেজাউল করিম বলেন, বর্তমান সরকার যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের ব্যবস্থা করেছে। সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়াকে শাস্তি দিয়েছেন আদালত, বিশ্বজিৎ হত্যার অপরাধে অপরাধীদের ফাঁসির নির্দেশ হয়েছে, নারায়ণগঞ্জের সাত খুনের আসামিদের ফাঁসিসহ বিভিন্ন মেয়াদের শাস্তি দিয়েছেন আদালত। এই ধারাবাহিকতায় প্রমাণিত যে এ দেশের বিচারব্যবস্থা এখন স্বাধীন এবং হস্তক্ষেপমুক্ত। তিনি বলেন, মানুষের শেষ আশ্রয়স্থল হচ্ছে আদালত। আর্থিকভাবে অসচ্ছল মানুষের বিচারপ্রাপ্তি নিশ্চিত করতে রাষ্ট্রীয় খরচে আইনজীবী নিয়োগ করে বিচারের পথ সুগম করতে জাতীয় আইনগত সহায়তা আইন প্রণয়ন করা হয়েছে। এ দেশের লাখ লাখ অসহায় মানুষ এই আইনের সুবিধা পাচ্ছেন।

পিরোজপুরের জেলা ও দায়রা জজ এবং জেলা লিগ্যাল এইড কমিটির সভাপতি মো. আবদুল মান্নানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে পিরোজপুরের জেলা প্রশাসক আবু আলী মো. সাজ্জাদ হোসেন, নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক মো. মিজানুর রহমান, চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আবু জাফর মো. নোমান, পিরোজপুর পৌরসভার মেয়র মো. হাবিবুর রহমান, ভারপ্রাপ্ত পুলিশ সুপার মোল্লা আজাদ হোসেন, জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি মো. বেলায়েত হোসেন, সরকারি কৌঁসুলি খান মো. আলাউদ্দিন, নারী শিশু আদালতের পিপি রাজ্জাক খান বাদশা, সরকারি কৌঁসুলি শহিদুল আলম পান্না, লিগ্যাল এইডের প্যানেল আইনজীবী কমল মুখার্জি এবং লিগ্যাল এইডের সহায়তা পাওয়া বিচারপ্রার্থী রোজিনা আক্তার বক্তব্য দেন।

আলোচনা সভার আগে বর্ণাঢ্য র‌্যালিতে গৃহায়ণ ও গণপূর্তমন্ত্রী, জেলা ও দায়রা জজ, বিচারক, আইনজীবী, সাংবাদিক, মুক্তিযোদ্ধা, সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীসহ বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ অংশগ্রহণ করেন। র‌্যালি শহরের বঙ্গবন্ধু চত্বর থেকে শুরু হয়ে জেলা জজ আদালত প্রাঙ্গণে গিয়ে শেষ হয়।

মন্ত্রী এরপর শহরতলির ডুমরিতলা শ্রীগুরু আশ্রমে ভক্ত সমাবেশে বক্তব্য দেন।