ঢাকা ০৮:৩১ অপরাহ্ন, বুধবার, ১২ জুন ২০২৪, ২৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম :




মেট্রোপলিটন বিশ্ববিদ্যালয়ে 'স্পেশাল রেফারেন্স অন কোপিং মেকানিজম ইন স্টুডেন্ট লাইফ'- শীর্ষক কর্মশালা অনুষ্ঠিত

প্রতিবন্ধকতার মুখোমুখি হওয়া মানেই নিজেকে বৃহৎভাবে তুলে ধরাঃ ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মোহাম্মদ জহিরুল হক

প্রতিনিধি, সিলেট
  • আপডেট সময় : ০৮:৪৭:০৬ অপরাহ্ন, রবিবার, ১০ সেপ্টেম্বর ২০২৩ ১২০ বার পড়া হয়েছে

দেশের অন্যতম শীর্ষ বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় মেট্রোপলিটন ইউনিভার্সিটির ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মোহাম্মদ জহিরুল হক বলেছেন, “যে কোনও প্রতিবন্ধকতার মুখোমুখি হওয়া মানেই নিজেকে বৃহৎভাবে তুলে ধরা তথা সামনের দিকে এগিয়ে নেয়ার অপূর্ব সুযোগ। শিক্ষার্থীদের বিভিন্ন স্তরে প্রতিকূলতা ও প্রতিবন্ধকতাকে আলিঙ্গন করতে হবে। সাম্প্রতিককালে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের মাঝে নানা কারনে হতাশার সৃষ্টি ও অনেকে সেই হতাশার কাছে পরাস্থ হয়ে আত্মহত্যার পথ বেছে নেন। এটা কোনোভাবেই কাম্য নয়। মানসিক চাপ মোকাবেলা করতে পারা শিক্ষার্থীদের একটি যোগ্যতা ও দক্ষতা।”

আজ ১০ সেপ্টেম্বর সকাল ১০ টায় প্রফেসর এম হাবিবুর রহমান হলে এমইউ সোশ্যাল সার্ভিসেস ক্লাব আয়োজিত ‘মেন্টাল স্ট্রেস এন্ড ফ্রাস্টেশনঃ স্পেশাল রেফারেন্স অন কোপিং মেকানিজম ইন স্টুডেন্ট লাইফ’ শীর্ষক কর্মশালার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি উপর্যুক্ত কথাগুলো বলেন। এমইউ সোশ্যাল সার্ভিসেস ক্লাবের সভাপতি আইন ও বিচার বিভাগের প্রধান গাজী সাইফুল হাসানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন কর্মশালার মূল আলোচক শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজকর্ম বিভাগের প্রফেসর ড. মোহাম্মদ আলী ওয়াক্কাস, প্রক্টর ও অর্থনীতি বিভাগের প্রধান প্রফেসর ড. মোহাম্মদ জামাল উদ্দিন, আইকিইউসির অতিরিক্ত পরিচালক ও ইংরেজী বিভাগের প্রধান ড. রমা ইসলাম, আইকিইউসির অতিরিক্ত পরিচালক ও এমবিএ প্রোগ্রামের কোঅর্ডিনেটর দেবাশিষ রায়, প্রমূখ।

ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মোহাম্মদ জহিরুল হক আরও বলেন, মেট্রোপলিটন ইউনিভার্সিটি সোশ্যাল সার্ভিসেস ক্লাবের এধরনের কর্মশালা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র সংগঠনের সার্বিক উন্নয়ন ও মঙ্গলের প্রতি বিশ্ববিদ্যালয়ের অঙ্গীকারের সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ। মানসিক চাপ এবং হতাশার মতো জটিল সমস্যাগুলো মোকাবেলায় তাদের নিবেদন একটি সহায়ক এবং লালনশীল শিক্ষার পরিবেশ গড়ে তোলার জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের লক্ষ্যকে নির্দেশ করে। মেট্রোপলিটন ইউনিভার্সিটি অনুপ্রেরণা এবং জ্ঞানের একটি আলোকবর্তিকা হয়ে চলেছে, যা শিক্ষার্থীদের শুধুমাত্র বিশ্বমানের শিক্ষাই নয়, জীবনের চ্যালেঞ্জগুলো সফলভাবে মোকাবেলা করার জন্য প্রয়োজনীয় পরামর্শ এবং নির্দেশিকা প্রদান করে।

কর্মশালার মূল আলোচক শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজকর্ম বিভাগের প্রফেসর ড. মোহাম্মদ আলী ওয়াক্কাস মানসিক চাপ মোকাবেলায় তাঁর চিন্তা-উদ্দীপক ধারণা দিয়ে শিক্ষার্থীদের বিমোহিত করেন। তিনি অভ্যন্তরীণ শক্তির গুরুত্বের উপর জোর দিয়ে বলেন, “প্রতিকূলতাকে জয় করার ক্ষমতা রাখতে হবে। একজন ব্যক্তির সবচেয়ে বড় সম্পদ হচ্ছে তার মন। আমরা শারিরীক অসুস্থতায় ডাক্তারের কাছে যাই, ঔষধ সেবন করি। অথচ মন ও মনের সুস্থতা নিয়ে আমরা উদাসীন। মনে রাখতে হবে মানসিক সুস্থতা হলো শারিরীক সুস্থতার পূর্বশর্ত।” তিনি আরও বলেন, ছাত্রজীবনে স্বাভাবিক ভাবেই নানাবিধ মানসিক চাপ এবং হতাশা থাকবে, তাই বলে এসবে নুইয়ে না পড়ে সামাজিক সম্পর্ক এবং মানসিক অসংগতির মাঝে যুতসই সমন্বয় এবং অভিযোজন করে বেঁচে থাকার রসদ যোগাতে পারে। পাশাপাশি ভালো ছাত্র হওয়ার চেয়ে মানবিক মানুষ হিসেবে গড়ে উঠার প্রতি জোর দেয়া প্রয়োজন।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মোহাম্মদ জহিরুল হক কর্মশালার রিসোর্স পার্সন শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজকর্ম বিভাগের প্রফেসর ড. মোহাম্মদ আলী ওয়াক্কাসকে সম্মাননা ক্রেস্ট প্রদান করেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :




মেট্রোপলিটন বিশ্ববিদ্যালয়ে 'স্পেশাল রেফারেন্স অন কোপিং মেকানিজম ইন স্টুডেন্ট লাইফ'- শীর্ষক কর্মশালা অনুষ্ঠিত

প্রতিবন্ধকতার মুখোমুখি হওয়া মানেই নিজেকে বৃহৎভাবে তুলে ধরাঃ ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মোহাম্মদ জহিরুল হক

আপডেট সময় : ০৮:৪৭:০৬ অপরাহ্ন, রবিবার, ১০ সেপ্টেম্বর ২০২৩

দেশের অন্যতম শীর্ষ বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় মেট্রোপলিটন ইউনিভার্সিটির ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মোহাম্মদ জহিরুল হক বলেছেন, “যে কোনও প্রতিবন্ধকতার মুখোমুখি হওয়া মানেই নিজেকে বৃহৎভাবে তুলে ধরা তথা সামনের দিকে এগিয়ে নেয়ার অপূর্ব সুযোগ। শিক্ষার্থীদের বিভিন্ন স্তরে প্রতিকূলতা ও প্রতিবন্ধকতাকে আলিঙ্গন করতে হবে। সাম্প্রতিককালে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের মাঝে নানা কারনে হতাশার সৃষ্টি ও অনেকে সেই হতাশার কাছে পরাস্থ হয়ে আত্মহত্যার পথ বেছে নেন। এটা কোনোভাবেই কাম্য নয়। মানসিক চাপ মোকাবেলা করতে পারা শিক্ষার্থীদের একটি যোগ্যতা ও দক্ষতা।”

আজ ১০ সেপ্টেম্বর সকাল ১০ টায় প্রফেসর এম হাবিবুর রহমান হলে এমইউ সোশ্যাল সার্ভিসেস ক্লাব আয়োজিত ‘মেন্টাল স্ট্রেস এন্ড ফ্রাস্টেশনঃ স্পেশাল রেফারেন্স অন কোপিং মেকানিজম ইন স্টুডেন্ট লাইফ’ শীর্ষক কর্মশালার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি উপর্যুক্ত কথাগুলো বলেন। এমইউ সোশ্যাল সার্ভিসেস ক্লাবের সভাপতি আইন ও বিচার বিভাগের প্রধান গাজী সাইফুল হাসানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন কর্মশালার মূল আলোচক শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজকর্ম বিভাগের প্রফেসর ড. মোহাম্মদ আলী ওয়াক্কাস, প্রক্টর ও অর্থনীতি বিভাগের প্রধান প্রফেসর ড. মোহাম্মদ জামাল উদ্দিন, আইকিইউসির অতিরিক্ত পরিচালক ও ইংরেজী বিভাগের প্রধান ড. রমা ইসলাম, আইকিইউসির অতিরিক্ত পরিচালক ও এমবিএ প্রোগ্রামের কোঅর্ডিনেটর দেবাশিষ রায়, প্রমূখ।

ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মোহাম্মদ জহিরুল হক আরও বলেন, মেট্রোপলিটন ইউনিভার্সিটি সোশ্যাল সার্ভিসেস ক্লাবের এধরনের কর্মশালা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র সংগঠনের সার্বিক উন্নয়ন ও মঙ্গলের প্রতি বিশ্ববিদ্যালয়ের অঙ্গীকারের সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ। মানসিক চাপ এবং হতাশার মতো জটিল সমস্যাগুলো মোকাবেলায় তাদের নিবেদন একটি সহায়ক এবং লালনশীল শিক্ষার পরিবেশ গড়ে তোলার জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের লক্ষ্যকে নির্দেশ করে। মেট্রোপলিটন ইউনিভার্সিটি অনুপ্রেরণা এবং জ্ঞানের একটি আলোকবর্তিকা হয়ে চলেছে, যা শিক্ষার্থীদের শুধুমাত্র বিশ্বমানের শিক্ষাই নয়, জীবনের চ্যালেঞ্জগুলো সফলভাবে মোকাবেলা করার জন্য প্রয়োজনীয় পরামর্শ এবং নির্দেশিকা প্রদান করে।

কর্মশালার মূল আলোচক শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজকর্ম বিভাগের প্রফেসর ড. মোহাম্মদ আলী ওয়াক্কাস মানসিক চাপ মোকাবেলায় তাঁর চিন্তা-উদ্দীপক ধারণা দিয়ে শিক্ষার্থীদের বিমোহিত করেন। তিনি অভ্যন্তরীণ শক্তির গুরুত্বের উপর জোর দিয়ে বলেন, “প্রতিকূলতাকে জয় করার ক্ষমতা রাখতে হবে। একজন ব্যক্তির সবচেয়ে বড় সম্পদ হচ্ছে তার মন। আমরা শারিরীক অসুস্থতায় ডাক্তারের কাছে যাই, ঔষধ সেবন করি। অথচ মন ও মনের সুস্থতা নিয়ে আমরা উদাসীন। মনে রাখতে হবে মানসিক সুস্থতা হলো শারিরীক সুস্থতার পূর্বশর্ত।” তিনি আরও বলেন, ছাত্রজীবনে স্বাভাবিক ভাবেই নানাবিধ মানসিক চাপ এবং হতাশা থাকবে, তাই বলে এসবে নুইয়ে না পড়ে সামাজিক সম্পর্ক এবং মানসিক অসংগতির মাঝে যুতসই সমন্বয় এবং অভিযোজন করে বেঁচে থাকার রসদ যোগাতে পারে। পাশাপাশি ভালো ছাত্র হওয়ার চেয়ে মানবিক মানুষ হিসেবে গড়ে উঠার প্রতি জোর দেয়া প্রয়োজন।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মোহাম্মদ জহিরুল হক কর্মশালার রিসোর্স পার্সন শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজকর্ম বিভাগের প্রফেসর ড. মোহাম্মদ আলী ওয়াক্কাসকে সম্মাননা ক্রেস্ট প্রদান করেন।