ঢাকা ১০:৪১ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২২, ১৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম :




রোহিঙ্গা ক্যাম্পে বিদেশিদের ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১২:০৮:২৭ অপরাহ্ন, সোমবার, ১০ ডিসেম্বর ২০১৮ ১৪ বার পড়া হয়েছে

রোহিঙ্গা ক্যাম্প (ছবি : সংগৃহীত)

 

 

সকালের সংবাদ ডেস্কঃ বান্দবানের পর এবার রোহিঙ্গা ক্যাম্পেও বিদেশিদের ভ্রমণে নিরুৎসাহিত করা হয়েছে। নির্বাচন পর্যন্ত নিরাপত্তাজনিত কারণে সরকারের তরফে এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

এ ব্যাপারে সরকারের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে-রোহিঙ্গা ক্যাম্প স্পর্শকাতর এলাকা তাই সেখানে বিদেশিদের ভ্রমণে বাড়তি নিরাপত্তা দেয় সরকার। কিন্তু নির্বাচনকালে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা রুটিন কাজের অতিরিক্ত হিসেবে ভোটের মাঠে দায়িত্ব পালন করেন। কাজেই রোহিঙ্গা ক্যাম্পে বিদেশিদের নিরাপত্তায় অতিরিক্ত ফোর্র্স মোতায়েন করা কঠিন। এ অবস্থায় ভোটের আনুষ্ঠানিকতা শেষ না হওয়া পর্যন্ত জাতিসংঘসহ সংশ্লিষ্ট আন্তর্জাতিক সংস্থা-সংগঠনের প্রতিনিধি এবং কূটনীতিকদের যাতায়াতকে ‘নিরুৎসাহিত’ করা হচ্ছে।

এ ব্যাপারে এক কর্মকর্তা বলেন, ‘জাতিসংঘের অধীন সংস্থাগুলোর যারা রোহিঙ্গা ক্যাম্প সংশ্লিষ্ট তাদের আগেই চিঠি দেয়া হয়েছে। মধ্য জানুয়ারি পর্যন্ত তাদের রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ভ্রমণ পরিকল্পনা না করতে বলা হয়েছে।’

কিন্তু তারপরও বিভিন্ন সংস্থার তরফে প্রায় প্রতিদিনই ভ্রমণ পরিকল্পনার চিঠি আসছে। বিষয়টি বিব্রতকর, আমরা ‘না’ বলতে পারছি না। আবার হ্যাঁ-ও বলছি না। এ পর্যন্ত কত চিঠির জবাব পেন্ডিং বা ঝুলিয়ে রাখা হয়েছে জানতে চাইলে ওই কর্মকর্তা বলেন, আমরা কাউকেই হ্যাঁ বলছি না।

পূর্বানুমতি রয়েছে এমন ব্যক্তিদেরও নিরুৎসাহিত করা হচ্ছে জানিয়ে ওই কর্মকর্তা বলেন, তাদের জানুয়ারির পর ভ্রমণ পরিকল্পনা করতে বলা হচ্ছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :




রোহিঙ্গা ক্যাম্পে বিদেশিদের ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা

আপডেট সময় : ১২:০৮:২৭ অপরাহ্ন, সোমবার, ১০ ডিসেম্বর ২০১৮

 

 

সকালের সংবাদ ডেস্কঃ বান্দবানের পর এবার রোহিঙ্গা ক্যাম্পেও বিদেশিদের ভ্রমণে নিরুৎসাহিত করা হয়েছে। নির্বাচন পর্যন্ত নিরাপত্তাজনিত কারণে সরকারের তরফে এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

এ ব্যাপারে সরকারের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে-রোহিঙ্গা ক্যাম্প স্পর্শকাতর এলাকা তাই সেখানে বিদেশিদের ভ্রমণে বাড়তি নিরাপত্তা দেয় সরকার। কিন্তু নির্বাচনকালে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা রুটিন কাজের অতিরিক্ত হিসেবে ভোটের মাঠে দায়িত্ব পালন করেন। কাজেই রোহিঙ্গা ক্যাম্পে বিদেশিদের নিরাপত্তায় অতিরিক্ত ফোর্র্স মোতায়েন করা কঠিন। এ অবস্থায় ভোটের আনুষ্ঠানিকতা শেষ না হওয়া পর্যন্ত জাতিসংঘসহ সংশ্লিষ্ট আন্তর্জাতিক সংস্থা-সংগঠনের প্রতিনিধি এবং কূটনীতিকদের যাতায়াতকে ‘নিরুৎসাহিত’ করা হচ্ছে।

এ ব্যাপারে এক কর্মকর্তা বলেন, ‘জাতিসংঘের অধীন সংস্থাগুলোর যারা রোহিঙ্গা ক্যাম্প সংশ্লিষ্ট তাদের আগেই চিঠি দেয়া হয়েছে। মধ্য জানুয়ারি পর্যন্ত তাদের রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ভ্রমণ পরিকল্পনা না করতে বলা হয়েছে।’

কিন্তু তারপরও বিভিন্ন সংস্থার তরফে প্রায় প্রতিদিনই ভ্রমণ পরিকল্পনার চিঠি আসছে। বিষয়টি বিব্রতকর, আমরা ‘না’ বলতে পারছি না। আবার হ্যাঁ-ও বলছি না। এ পর্যন্ত কত চিঠির জবাব পেন্ডিং বা ঝুলিয়ে রাখা হয়েছে জানতে চাইলে ওই কর্মকর্তা বলেন, আমরা কাউকেই হ্যাঁ বলছি না।

পূর্বানুমতি রয়েছে এমন ব্যক্তিদেরও নিরুৎসাহিত করা হচ্ছে জানিয়ে ওই কর্মকর্তা বলেন, তাদের জানুয়ারির পর ভ্রমণ পরিকল্পনা করতে বলা হচ্ছে।