• ১৬ই জুন ২০২১ খ্রিস্টাব্দ , ২রা আষাঢ় ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীকে কটুক্তিকারীদের অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ইতালির রাষ্ট্রদূত!

সকালের সংবাদ ডেস্ক;
প্রকাশিত জুন ১৫, ২০১৯, ১৯:৫৪ অপরাহ্ণ
বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীকে কটুক্তিকারীদের অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ইতালির রাষ্ট্রদূত!

ইউরোপ ব্যুরো;
ইতালির মিলানে একটি বিতর্কিত অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ দূতাবাসের রাষ্ট্রদূত আব্দুস সোবহান সিকদার প্রধান অতিথি এবং ইতালি আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক হাসান ইকবাল ও সহ সভাপতি জসিম উদ্দিন বিশেষ অতিথি হওয়ায় চলছে সর্বত্র সমালোচনা ও নিন্দা।আগামী ১৬ জুন মিলানে বিএনপি ও জামাত পন্থী একটি সাংবাদিক সংগঠনের ব্যানারে ঈদ পুনমির্লনী করা হবে।সেখানে রোমস্থ দূতাবাসের রাষ্ট্রদূতের নাম প্রধান অতিথি তালিকায় এবং ইতালি আওয়ামী লীগের দুই নেতার নাম বিশেষ অতিথি তালিকায় থাকায় ক্ষোভ প্রকাশ করছেন ইতালির মিলান লোম্বাদিয়া আওয়ামী লীগ। তারা এই প্রতিবেদকে বলেন অনুষ্ঠানে যাওয়া কোন দোষের নয় তবে যারা জাতীর জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমান এবং মানবতার নেত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনাকে নিয়ে বিএনপির বিভিন্ন সভায় কটুক্তি করেছেন,অশ্লীল ভাষায় মন্তব্য করেছেন তদের অনুষ্ঠানে শেখ হাসিনা সরকারের একজন রাষ্ট্রদূত কি ভাবে উপস্থিত হবে আমাদের বোধগম্য নয়। ঐ সংগঠনটির সভাপতি মনিরুজ্জামান মনির রোমে বিএনপির এজেন্ডা বাস্তবায়নে কাজ করে ।

প্রধানমন্ত্রী রোম সফরকালে প্রধানমন্ত্রীর সংবর্ধনার সংবাদ কভার না করে বিএনপির প্রতিবাদ সভার সংবাদ সংগ্রহ করেছে। এ ছাড়া প্রধানমন্ত্রী যে দিন রোমে পৌছেন বিএনপিপন্থী সাংবাদিক হাসান মাহামুদ ও মনিরুজ্জামান মনিরকে হোটেল লবি থেকে বের করে নিরাপত্তা সদস্যরা।এ দিকে মনিরুজ্জামান মনিরের আপন বড় ভাই বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী ফোরাম ইউকের সভাপতি এবং তারেক রহমানের এজেন্ট হিসাবে পরিচিত। এ ছাড়াও মনিরের বিরুদ্ধে বাংলাদেশ দূতাবাসের বিভিন্ন তথ্য পাচারের অভিযোগ রয়েছে। এ ছাড়াও সরকারকে বেকায়দায় ফেলতে ফেসবুকে দূতাবাসের সমালোচনা করেন । যার কারনে তার বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করে পররাষ্ট্র-দফতরে পাঠানো হয়েছে এমন তথ্য নিশ্চিত করেছে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক দূতাবাসের এক কর্মকর্তা। অনুষ্ঠানের আরেক আয়োজক ফেরদৌস পলি যিনি মিলান মহিলা দলের সভাপতি।একাধারে মিলান বিএনপির মহিলা বিষয়ক সম্পাদিকা। তিনি বঙ্গবন্ধু এবং বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে নিয়ে একাধিক বার বিএনপির সভায় অশ্লীল ভাষায় বক্তব্য দিয়েছে যার প্রমান ফেসবুকে সহ ভিডিও ক্লিপে প্রমাণ রয়েছে। এমন কি ২০১৪ সালে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী মিলান সফরকালে তার সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে এনটিভির মনিরুজ্জামান মনির এবং ফেরদৌস পলিকে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে নিরাপত্তা কর্মিরা হলে ঢুকতে দেয়নি। সাবেক বানিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ মিলান সফরকালে তার হোটেলের ঠিকানা বিএনপির কাছে ফাসঁ করার অভিযোগ রয়েছে এই দুই সাংবাদিকের বিরুদ্ধে। একই অনুষ্ঠানে ইতালি আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক হাসান ইকবাল ও সহ সভাপতি জসিম উদ্দিন বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত থাকার কথা রয়েছে। এ ব্যাপারে ইতালি আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি জাহাঙ্গীর ফরাজী এবং যুগ্ম সাধারন সম্পাদক এম এ রব মিন্টু বলেন যারা আমার নেত্রীকে নিয়ে অশ্লীল মন্তব্য তাদের আয়োজিত অনুষ্ঠানে রাষ্ট্রদূত এবং আওয়ামী লীগের দুই সিনিয়র নেতার পোষ্টারে নাম আসাই দুঃখজনক। বিএনপি, জামাত পন্থী সাংবাদিকদের অনুষ্ঠানে আমাদের দলের দুই যে দুজনের নাম এসেছে এ ব্যাপারে আমরা অবগত নই। এটা তাদের ব্যক্তিগত ব্যাপার।

ইতালির মিলান প্রবাসী সাংবাদিক (সকালের সংবাদের ইউরোপ ব্যুরো ) তুহিন মাহামুদ বলেন আমরা বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সাংবাদিক ,স্বাধীনতা বিরোধীদের অনুষ্ঠানে মান্যবর রাষ্ট্রদূত এবং আওয়ামী লীগের দুই নেতার যোগদান করার প্রশ্নই আসে না।আমি যতদুর জানি আসবে না যদি আসে তার পরবর্তী কর্মসূচী পরে হবে।

এ দিকে মহামান্য রাষ্ট্রপতির জার্মান সফরকালে ইতালি বিএনপি সাবেক দপ্তর সম্পাদক,যিনি সব সময় আওয়ামী লীগের সমালোচনা করে তাকে নিয়ে মহামান্য রাষ্ট্রপতিকে ফুল দেওয়ায় বেকায়দায় রয়েছে ইতালি আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি জসিম উদ্দিন। মিলান আওয়ামী লীগের এক নেতা বলেন আওয়ামী লীগের যে সব নেতাকর্মীরা ঐ অনুষ্ঠানে যাবে তারা নব্য রাজাকার এবং বিএনপির দালাল।

  • ফজর
  • যোহর
  • আছর
  • মাগরিব
  • এশা
  • সূর্যোদয়
  • ৩:৪৬
  • ১২:০২
  • ৪:৩৮
  • ৬:৫১
  • ৮:১৭
  • ৫:১০
error: সাইটের কোন তথ্য কপি করা নিষেধ!!